× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ১০ ডিসেম্বর ২০১৮, সোমবার
নারায়ণগঞ্জ-৪

মামলায় এগিয়ে শামীম ওসমান, সম্পদে শাহ আলম

বাংলারজমিন

স্টাফ রিপোর্টার, নারায়ণগঞ্জ থেকে | ৫ ডিসেম্বর ২০১৮, বুধবার, ৯:৩০

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনে আওয়ামী লীগের হেভিওয়েট প্রার্থী শামীম ওসমান ও বিএনপির মো. শাহ আলম। তবে শামীম ওসমানের কারণে আসনটি সারাদেশে আলোচিত। দুই প্রার্থী মধ্যে শামীম ওসমান ১৯৯৬ সালে বিএনপির প্রার্থী কমান্ডার সিরাজুল ইসলামকে পরাজিত করে প্রথমবারের মতো এমপি নির্বাচিত হন। এরপর ২০১৪ সালের নির্বাচনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় দ্বিতীয়বারের মতো তিনি এমপি। অন্যদিকে শাহ আলম ২০০৮ সালের নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী সারাহ বেগম কবরীর কাছে মাত্র ২ হাজার ৩৮৯ ভোটের ব্যবধানে পরাজিত হন। এদিকে ভোটারদের জানার আগ্রহ দেখা দিয়েছে শামীম ওসমান ও তার মূল প্রতিদ্বন্দ্বী শাহ আলমের
আমলনামা কেমন। তবে নির্বাচন কমিশনে জমা দেয়া তাদের হলফনামা পর্যালোচনা করে দেখা যায় দুইজনেই পেশায় ব্যবসায়ী হলেও শাহ আলম ব্যবসার পাশাপাশি চাকরি করেন। শিক্ষাগত যোগ্যতায় শামীম ওসমান বিএ, এলএলবি আর শাহ আলশ বিকম পাশ।
এদিকে হলফনামায় শামীম ওসমান দেখিয়েছেন ২৫শে নভেম্বর পর্যন্ত তার কাছে নগদ টাকার পরিমাণ ১০ লাখ ৮২ হাজার ৫৭০ টাকা। এছাড়া স্ত্রীর কাছে ১৩ লাখ ৬০ হাজার ৮৮২ টাকা এবং তার নির্ভরশীলদের কাছে ৬৫ লাখ ১২ হাজার ৬৩৫ টাকা। তার ব্যবসার মধ্যে রয়েছে জ্বালানী তেল আমদানি, পরিবহন, সরবরাহ, শিপিং (পন্য ও জ্বালানী পরিবহন), যাত্রী পরিবহন (ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ এসি বাস সার্ভিস)। বাড়ী, এপার্টমেন্ট, দোকান বা অন্যান্য খাত থেকে আয় ৪ লাখ ৪৭ হাজার ৬৬৪ টাকা, শেয়ার, সঞ্চয়পত্র, ব্যাংক আমানতের সুদ থেকে ১৩ লাখ ৬৩ হাজার ৬৮১ টাকা। এছাড়া অন্যান্য খাত থেকে আয় ২২ লাখ ৪৭ হাজার ৩২৫ টাকা। অপরদিকে শাহ আলমের কাছে নগদ টাকার পরিমাণ ৬ কোটি ২৪ লাখ ৮৫ হাজার  ৪৩ টাকা। এছাড়া স্ত্রীর কাছে ১১ লাখ ৩৩ হাজার ৩৮০ টাকা। এবং তার নির্ভরশীলদের কাছে ৭৮ লাখ ৪১ হাজার ৮৮২ টাকা। তার ব্যবসার মধ্যে রেয়ছে গার্মেন্ট, টেক্সটাইল, স্প্রিনিং মিল, ফুড, মৎস চাষ ইত্যাদি। শাহ আলমের  বাড়ী, এপার্টমেন্ট, দোকান বা অন্যান্য খাত থেকে আয় ৪৪ লাখ ৫৫ হাজার টাকা, শেয়ার, সঞ্চয়পত্র, ব্যাংক আমানত-সুদ ও ইনস্যুরেন্স প্রিমিয়াম থেকে ৮ লাখ ৪৭ হাজার ৯৫৩ টাকা। চাকুরী (সম্মানীভাতা) ও এলাইন্স বাবদ ১১ লাখ ৫ হাজার টাকা, মৎস চাষ থেকে ৩ লাখ ৩ হাজার ৮৫১ টাকা।

অপরদিকে হলফনামায় শামীম ওসমান উল্লেখ্য করেছেন তার বিরুদ্ধে ফৌজদারিসহ বিভিন্ন অপরাধে মামলা সংখ্যা ১৭। এরমধ্যে ৭টি মামলায় তিনি বেকসুর খালাস পেয়েছেন। ৪টি মামলা প্রত্যাহার ও ৩টি মামলার কার্যক্রম উচ্চ আদালতের নির্দেশে স্থগিত রয়েছে। ২টি মামলায় অভিযোগের দায় থেকে তিনি অব্যাহতি পেয়েছেন। আরেকটি আমলা উচ্চ আদালত শুনানি শেষে বাতিল করে দিয়েছেন। অন্যদিকে শাহ আলমের বিরুদ্ধে ৩টি ফৌজদারি মামলা রয়েছে। এরমধ্যে ২টি মামলায় তিনি অব্যাহতি পেয়েছেন এবং একটি মামলা তদন্তাধীন রয়েছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর