× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৮, শুক্রবার

নাঙ্গলকোটে দুর্ধর্ষ ডাকাতি, আহত ৭

বাংলারজমিন

নাঙ্গলকোট (কুমিল্লা) প্রতিনিধি | ৬ ডিসেম্বর ২০১৮, বৃহস্পতিবার, ৯:৩২

নাঙ্গলকোটের ঢালুয়া ইউনিয়নের চৌকুড়ি গ্রামের কাজী অহিদুর রহমানের বাড়িতে দুর্ধর্ষ ডাকাতি হয়েছে। মঙ্গলবার গভীর রাতে এ ঘটনা ঘটে। ডাকাতদের হামলায় চার নারীসহ ৭ জন গুরুতর আহত হয়। পুলিশ ও পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার গভীর রাতে চৌকুড়ি গ্রামের কাজী অহিদুর রহমানের বাড়িতে ২০-২৫ জনের এক দল সশস্ত্র ডাকাত বাড়ির মূল ফটকের তালা ভেঙে ঘরে প্রবেশ করে। ডাকাতদল ঘরের প্রতিটি কক্ষে গিয়ে পরিবারের সদস্যদের অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে ঘরের আলমারিতে রক্ষিত মূল্যবান মালামাল লুট করার সময় পরিবারের সদস্যরা চিৎকার করলে তাদেরকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে ও পিটিয়ে গুরুতর আহত করে। ডাকাত দলের সদস্যরা বাড়ির পার্শ্ববর্তী অপর ৪টি পরিবারের ঘরের সামনে অবস্থান নিয়ে অন্যান্য পরিবারের সদস্যদের গালমন্দ এবং হুমকি-ধমকি দিয়ে ভীতিকর পরিবেশ সৃষ্টি করে। এ সময় ডাকাত দল অহিদুর রহমানের ঘরের আলমারিতে রক্ষিত নগদ প্রায় ৬ লাখ টাকা, ১৮ ভরি স্বর্ণালংকার, ৭টি মোবাইল ফোন সেট ও ৫টি টর্চ লাইটসহ মূল্যবান মালামাল লুটে নেয়। যার আনুমানিক মূল্য অন্তত ১৫ লাখ টাকা।
ডাকাতদের হামলায় আহতরা হলেন, কাজী অহিদুর রহমানের স্ত্রী জাকিয়া বেগম, ছেলে আবুল হাশেম, আবুল কাশেম, নূরুন নবী, মেয়ে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজ শিক্ষার্থী লিজা আক্তার, পুত্রবধূ মাহফুজা বেগম ও লিমা বেগম। আহতদের গুরুতর অবস্থায় প্রথমে নাঙ্গলকোট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। পরে অবস্থার অবনতি হলে তাদেরকে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। আবুল হাশেমের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।
আহত আবুল কাশেমের স্ত্রী আকলিমা আক্তার জানান, ডাকাতদল ঘরের দরজা ভেঙে ঘরে ঢুকে আমাদের সবাইকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে-পিটিয়ে গুরুতর আহত করে এবং মালামাল লুট করে নিয়ে যায়। খবর পেয়ে গতকাল কুমিল্লা জেলা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবদুল্লাহ আল মামুন, সহকারী পুলিশ সুপার (চৌদ্দগ্রাম সার্কেল) সাইফুল ইসলাম ও কুমিল্লা ডিবি (ওসি) মিজানুর রহমান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। নাঙ্গলকোট থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নজরুল ইসলাম পিপিএম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, সংবাদ পেয়ে রাতেই পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে আহতদের উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। অভিযোগ পেলে নিয়মিত মামলা রুজু করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর