× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ১০ ডিসেম্বর ২০১৮, সোমবার

সরাইলে শিশুর রগ কেটে দিলো বখাটে

বাংলারজমিন

সরাইল (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) প্রতিনিধি | ৬ ডিসেম্বর ২০১৮, বৃহস্পতিবার, ৯:৪৭

সরাইলে এক শিশু শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের চেষ্টা করে বায়েজিদ (১৭) নামের এক বখাটে। গলায় চেপে ধরাকালে চিৎকার করায় ওই শিক্ষার্থীর হাতের রগ কেটে দিয়েছে বখাটে। গত মঙ্গলবার রাতে সরাইল সদর ইউনিয়নের জিল্লুকদার পাড়ায় এ ঘটনা ঘটেছে। ঘটনার রাতেই বখাটেকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় ছাত্রীর মামা বাদী হয়ে সরাইল থানায় একটি মামলা করেছেন। মামলা ও ছাত্রীর পারিবারিক সূত্র জানায়, সদর উপজেলার মালিহাতা গ্রামের শাফি মিয়ার ছেলে বায়েজিদ। পারিবারিক সমস্যার কারণে পড়ালেখা করতে পারেনি। মাকে নিয়ে নানার বাড়ি এলাকা জিল্লুকদার পাড়ায় ভাড়া বাসায় বসবাস করে আসছে বায়েজিদ।
সরাইল পিডিবি অফিসে মাস্টার রোল কর্মচারী হিসেবে কাজও করত। মঙ্গলবার বাদ আছর প্রতিবেশী এক প্রবাসীর তৃতীয় শ্রেণিতে পড়ুয়া কন্যা শিশু (৮) বাড়ির পাশে খেলা করছিল। তাকে ফুসলিয়ে ব্যাডমিন্টন খেলার কথা বলে নিয়ে যায় বায়েজিদ। পাশের একটি পরিত্যক্ত টিনের ঘরে নিয়ে বায়েজিদ ওই শিশুটিকে ধর্ষণের উদ্দেশ্যে জাপটে ধরে। ধস্তাধস্তির একপর্যায়ে শিশুটির গলায় চেপে ধরার চেষ্টা করলে জোরে চিৎকার দেয়। ক্ষিপ্ত হয়ে বায়েজিদ ধারালো অস্ত্র দিয়ে শিশুটির বাম হাতের কব্জির উপরের অংশে রগ কেটে দেয়। সন্ধ্যা হয়ে গেলেও বাড়ি না ফেরায় শিশুটিকে চারদিকে খুঁজতেছিল পরিবারের লোকজন। এক সময় ময়লা জামা কাপড় ও রক্তাক্ত অবস্থায় বসত ঘরের দিকে আসছে শিশুটি। স্বজনরা এগিয়ে গেলে পুরো ঘটনা খুলে বলে ওই ছাত্রী। কিছুক্ষণ পরই জ্ঞান হারিয়ে মাটিতে পড়ে যায়। শিশুটির শরীরের গলা থেকে শুরু করে বিভিন্ন জায়গায় আঘাতের চিহ্ন দেখা যায়। তাকে প্রথমে সরাইল ও পরে জেলা সদর হাসপাতালে নেয়া হয়। অবস্থার দ্রুত অবনতি দেখে রাতে শিশুটিকে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। মঙ্গলবার রাতেই অভিযান চালিয়ে এএসআই শাজালাল বখাটে বায়েজিদকে গ্রেপ্তার করেছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর