× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ২৪ মার্চ ২০১৯, রবিবার

নাগরিকত্ব বিলের প্রতিবাদে আসামে ধর্মঘটের ডাক

ভারত

কলকাতা প্রতিনিধি | ৬ জানুয়ারি ২০১৯, রবিবার, ৩:০৬

মাত্র দু’দিন আগে আসামের শিলচরে সভা করতে এসে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বলে গিয়েছেন, বাংলাদেশ সহ তিন প্রতিবেশি দেশ থেকে আসা সংখ্যালঘু অমুসলিমদের নাগরিকত্ব দেওয়া হবে। এ ব্যাপারে আনা নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল, ২০১৬ সংসদে পাস করানো হবে। প্রধানমন্ত্রীর এই ঘোষণার পরই আসামের রাজনীতি উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে। ক্ষুব্ধ উত্তরপূর্ব ভারতের অন্য রাজ্যগুলির ছাত্ররাও। অসমিয়াদের আশঙ্কা, বিলটি পাস হলে তাদের কৃষ্টি-সংস্কৃতি বিদেশিদের হাতে লুণ্ঠিত হবে। সর্বনাশ হবে অসমিয়া জাতির। আর তাই ভারতে আসা বাংলাদেশি হিন্দুদের নাগরিকত্ব দিতে আইন সংশোধনীর চেষ্টার প্রতিবাদে আগামী ৮ জানুয়ারি মঙ্গলবার আসাম বন্ধের ডাক দিয়েছে আসামের সবচেয়ে বড় ছাত্র সংস্থা আসু। ১১ ঘণ্টার আসুর এই ধর্মঘটের ডাককে সমর্থন জানিয়েছে উত্তর-পূর্ব ভারতের বাকি ছাত্র সংস্থা ও অন্যান্য ছাত্রসংগঠন।
আগামী ৭ জানুয়ারি যৌথ সংসদীয় কমিটি অনুমোদিত নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলটি সংসদে পাস হবার কথা রয়েছে। সেদিন আসাম জুড়ে পালিত হবে ধিক্কার দিবস। আসুর উপদেষ্ট সমুজ্জল ভট্টাচার্য্য বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও বিজেপি সরকার বাংলাদেশিদের সুরক্ষিত রাখার চেষ্টা করছে। তবে আসাম চুক্তি বিরোধী কোনও পদক্ষেপ আসামবাসী মানবেন না বলে তিনি হুঁশিয়ারিও দিয়েছেন। তিনি আরও জানিয়েছেন, ১০ বছরের ব্যবধানে আসু ফের বন্ধ ডাকতে বাধ্য হয়েছে। এর পাশাপাশি আসামের বুদ্ধিজীবীরা ডাক দিয়েছেন ‘আসাম বাঁচাও’ আন্দোলনের। সেই আন্দোলনকে পুরোপুরি সমর্থন জানিয়েছে আসামের প্রদেশ কংগ্রেস।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর