× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ২০ মার্চ ২০১৯, বুধবার

প্রতিশোধের লড়াইয়ে মাশরাফির মুখোমুখি সাকিব

খেলা

স্পোর্টস রিপোর্টার | ১১ জানুয়ারি ২০১৯, শুক্রবার, ৯:৫১

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগের (বিপিএল) ৫ম আসরে মাশরাফির রংপুর রাইডার্স চ্যাম্পিয়ন হয়। তারা ফাইনালে হারায় সাকিব আল হাসানের ঢাকা ডায়নামাইটসকে। ৬ষ্ঠ আসরে দুই দলই মাঠে নেমেছে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার লড়াইয়ে। এই আসরে প্রথমবার দুই দল মুখোমুখি হচ্ছে দারুণ প্রতিশোধের উত্তেজনা নিয়ে। এরই মধ্যে দুই দলের অর্জন ৪ পয়েন্ট। তবে ঢাকা ২ ম্যাচে তুলে নিয়েছে টানা জয়। অন্যদিকে রংপুর ৩ ম্যাচে প্রথমটিতে শুরু করে হার দিয়ে। সেই হিসেবে ঢাকার সামনে আজ শুধু প্রতিশোধেরই সুযোগ নয়, জিতলেই দখলে থাকবে শীর্ষ স্থানও।
তবে সবকিছু ছাপিয়ে লড়াই জমে উঠবে জাতীয় ওয়ানডে ও টেস্ট দলের দুই অধিনায়কের দ্বৈরথে। মাশরফি বিন মুর্তজার পেস আর সাকিব আল হাসানের স্পিন কোনটির জয় হবে সেটি দেখার অপেক্ষায় দেশের ক্রিকেট ভক্তরা। দেশের দুই মহা তারকার লড়াই শুরু হবে আজ দুপুর ২টায়। ঢাকার হয়ে প্রথম বিপিএল খেলতে এসেছেন ইয়ান বেল। তারকা খচিত দলের হয়ে এই ইংলিশ ক্রিকেটারের এখন পর্যন্ত অবশ্য মাঠে নামা হয়নি। তবে মাঠে না নামলেও দারুণ উপভোগ করছেন বিপিএল এমনটাই জানিয়েছেন। সেই সঙ্গে রংপুরের বিপক্ষে আজ দারুণ চ্যালেঞ্জের ম্যাচ নিয়ে ৩৬ বছর বয়সী ইংলিশ ব্যাটসম্যান দারুণ উচ্ছ্বসিত। তিনি বলেন, ‘বড় ম্যাচ, যেখানে থাকবে বড় ক্রিকেটাররা। দলের ছেলেরা দারুণভাবে প্রশিক্ষিত। আমি সত্যি দারুণ একটি ম্যাচের অপেক্ষাতে আছি। কাল (আজ) একটি বড় লড়াইয়ের প্রদর্শনীই হবে।’
এ পর্যন্ত ঢাকা ডায়নামাইটস ও রংপুর রাইডার্স মুখোমুখি হয়েছে পাঁচ ম্যাচে। যেখানে ঢাকার জয় ৩টিতে এবং রংপুরের ২টিতে। তবে শেষ দেখাতে ক্রিস গেইলের তাণ্ডবে ফাইনালে হেরে যায় ঢাকা। গেইল একাই ৬৯ বলে করেছিলেন ১৪৬ রান। ২০৭ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে ঢাকার ইনিংস থামে ১৪৯ রান ৯ উইকেট হারিয়ে। ৫৭ রানের বড় ব্যবধানেই হারে দলটি। সেই গেইল এবারও খেলছেন রংপুরের হয়ে। দলের সঙ্গে যুক্ত হয়েছেন অ্যালেক্স হেলসের মতো তারকাও। নিয়মিত পারফরমার রবি বোপারাতো আছেনই। এই আসরে প্রথম ম্যাচে হার চট্টগ্রাম ভাইকিংসের সঙ্গে দিয়ে শুরু করলেও মাশরাফির দল ঘুরে দাঁড়িয়েছে দারুণভাবে। হারিয়ে দিয়েছে আসরে খুলনা ও কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সকে। বিশেষ করে অস্ট্রেলিয়ার সাবেক অধিনায়ক স্টিভেন স্মিথের কুমিল্লার বিপক্ষে বল হাতে দারুণ ভূমিকা রাখেন রংপুরের অধিনায়ক মাশরাফি। বল হাতে একাই নিয়েছেন ৪ উইকেট। এছাড়াও দলটির টপ অর্ডারে গেইল থাকলেও দক্ষিণ আফ্রিকার রাইলি রুশো রাখেন ব্যাট হাতে দারুণ অবদান। তবে এই অবদানে তিনি এখন দারুণ আশাবাদী ঢাকার বিপক্ষে। রুশো বলেন, ‘আমরা সামনের দিকেই তাকিয়ে আছি। জানি ঢাকা দারুণ শক্তিশালী দল। তবে আমরাও সেরাটা দিতে প্রস্তুত।’ তিন ম্যাচে দুই জয়। এখানেই ঢাকার সঙ্গে পিছিয়ে রংপুর। কারণ প্রতিপক্ষ একটি ম্যাচেও হারেনি। তবে রুশো এ নিয়ে ভাবছেন না। তিনি বলেন, ‘এটিও ভালো বিষয় যে আমরা ঘুরে দাঁড়িয়ে টানা জয় তুলে নিয়েছি। আশা করি দলের সবাই বেশ আত্মবিশ্বাসী ভালো করতে।’
ঢাকা এই আসরের শুরু থেকেই দাপট দেখাতে শুরু করেছে। প্রথম ম্যাচেই তারা স্কোর বোর্ডে তোলে ১৮৯ রান ৮ উইকেট হারিয়ে। জবাব দিতে নামলে ঢাকার বোলাররা রাজশাহীকে গুঁড়িয়ে দিয়ে তুলে নেয় ৮৩ রানের জয়। এছাড়াও দ্বিতীয় ম্যাচে তারা ছিল আরো ভয়ঙ্কর। ৬ উইকেট হারিয়ে খুলনার বিপক্ষে তুলে নেয় ১৯২ রান।  সেই ম্যাচেও জয় পায় ১০৫ রানের। দুই ম্যাচেই ঢাকার আফগান ওপেনার হজরতউল্লাহ জাজাই হাঁকিয়েছেন ফিফটি। যার দিকে দল আজও তাকিয়ে থাকবে। তবে সুনীল নারাইন, পোলার্ড, রাসেলরাও দলটির অন্যতম ব্যাটিং ভরসা। বল হাতে সাকিব আল হাসান একাই ঘুরিয়ে দিতে পারেন ম্যাচের মোড়। আর ব্যাট হাতেও তিনি যেকোনো সময় চড়াও হওয়ার সক্ষমতা রাখেন। দলে আছেন দেশের আরেক সেরা পেসার রুবেল  হোসেনও।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর