× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ১৮ জানুয়ারি ২০১৯, শুক্রবার

মেডিকেল বর্জ্যের অব্যবস্থাপনা

দেশ বিদেশ

মানবজমিন ডেস্ক | ১১ জানুয়ারি ২০১৯, শুক্রবার, ৯:৫৬

বিক্ষিপ্তভাবে পড়ে আছে মানুষের শরীরের কর্তিত অংশবিশেষ। প্লাস্টিকের ব্যাগে, বিন উপচে পড়ছে তা। পচন ধরায় দুর্গন্ধ চারদিকে। ফলে ভন্‌ ভন্‌ করছে মাছি। কোনো কোনো ব্যাগ থেকে বেরিয়ে পড়ছে সুঁচ ও ব্যবহৃত বিভিন্ন জিনিসপত্র। এমন অবস্থা বৃটেনের নর্থ টাইনিসাইডের বেন্টনে অবস্থিত হেলথকেয়ার এনভায়রনমেন্টাল সার্ভিসেসে। সেখানে হাসপাতালে অপারেশনের পর মানুষের যেসব কর্তিত অঙ্গপ্রত্যঙ্গ এবং বর্জ্য তা অপসারণ করা হয়। কিন্তু তা দিনে দিনে জমতে জমতে এক ভয়াবহ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে।
এমনটা হওয়ার কথা নয়। বৃটেনের জাতীয় স্বাস্থ্য স্কিমের (এনএইচএস) একটি স্ক্যান্ডাল হিসেবে দেখা হচ্ছে এ ঘটনাকে। এ নিয়ে সচিত্র রিপোর্ট প্রকাশ করেছে অনলাইন ডেইলি মেইল। এতে বলা হয়েছে, বেন্টনে ওই হেলথকেয়ার এনভায়রনমেন্টাল সার্ভিসেসে (এইচইএস) টন টন কমলা ও হলুদ রঙের ব্যাগে এসব সংক্রামক বর্জ্য ফেলে রাখা হয়েছে। সেখান থেকে এ বিষয়ে তথ্য প্রকাশকারীরা বলছেন, ফ্রিজগুলো সয়লাব মানুষের পূর্ণাঙ্গ মাথা, অঙ্গপ্রত্যঙ্গ, বাহু ও হাতে। যদিও কোনো ফ্রিজে মানুষের দেহাংশের ছবি প্রকাশ করা হয় নি। অপারেশন সংক্রান্ত প্রশিক্ষণ থেকে এসব জিনিস রাখা হয়েছে সেখানে। এখানকার এসব স্ক্যান্ডালের কথা প্রকাশ হয়ে পড়ে অক্টোবরে। তখন এইচইএসে দেখা যায় শত শত টন ক্লিনিক্যাল বর্জ্য। তার মধ্যে রয়েছে মানুষের দেহাংশ। এসব সেখানে স্তূপীকৃত করে রাখা হয়েছে। এরপরই ওই প্রতিষ্ঠানটি জাতীয় স্বাস্থ্য বিষয়ক স্কিমের সঙ্গে তাদের চুক্তি ছিন্ন করেছে। কারণ, তদন্তে দেখা গেছে, দ্রুততার সঙ্গে ওইসব বর্জ্য প্রক্রিয়াজাতকরণ করা হয় নি। বেন্টনের ওই সাইটের সাবেক একজন কর্মী সেখান থেকে ধারণ করেছেন কিছু ছবি। তাতে দেখা যায়, বিনগুলো উপচে পড়ছে সংক্রামক সব বর্জ্যে। তার মধ্যে রয়েছে ক্যানসার চিকিৎসায় ব্যবহৃত ভয়াবহ সব ওষুধ, ব্যবহৃত সুঁচ। একটির ওপর আরেকটি জমা করে সেখানে সৃষ্টি হয়েছে এক বিদঘুটে অবস্থা। প্রতিষ্ঠানটি স্কটল্যান্ডে এনএইচএসের সঙ্গে চুক্তি করলেও এসব বর্জ্য প্রক্রিয়াজাতকরণে তাদের দায়বদ্ধতার কথা প্রত্যাখ্যান করেছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর