× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ১৮ জানুয়ারি ২০১৯, শুক্রবার

ভাতের অধিকারও কেড়ে নিতে চায় সরকার: বাম জোট

দেশ বিদেশ

স্টাফ রিপোর্টার | ১১ জানুয়ারি ২০১৯, শুক্রবার, ১০:০৭

মানুষের ভোটের অধিকার কেড়ে নিয়ে সরকার এখন মানুষের ভাতের অধিকারও কেড়ে নিতে চায়। সে কারণে বাঁচার দাবিতে স্বতঃস্ফূর্ত আন্দোলনে সাধারণ শ্রমিকদের বিরুদ্ধে তারা ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করেছে। নজিরবিহীন ভোট ডাকাতি আর জালিয়াতির মধ্য দিয়ে গঠিত এই সরকার, মালিকদের মতো শ্রমিকদের বাঁচার ন্যায্য আন্দোলনকে ‘ষড়যন্ত্র’ হিসাবে আখ্যায়িত করে এবং রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাস চালিয়ে সকল ন্যায্য আন্দোলন দমন করতে চায়। কিন্তু ন্যূনতম বেতন ও বিভিন্ন গ্রেডের বেতন পুনঃনির্ধারণ ছাড়া এই সমস্যার সমাধান কোনোভাবেই হওয়া সম্ভব নয়। গার্মেন্ট শ্রমিক সুমন হত্যার প্রতিবাদে ও গার্মেন্ট শ্রমিকদের বাঁচার মতো ন্যায্য মজুরি বৃদ্ধিতে গতকাল জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে আয়োজিত এক বিক্ষোভ সভায় বাম গণতান্ত্রিক জোটের নেতারা এসব কথা বলেন।
সমাবেশে বক্তারা বলেন, হত্যা নির্যাতন করে শ্রমিকদের বাঁচার আন্দোলন নস্যাৎ করা যাবে না। শ্রমিকদের বুকে গুলি চালিয়ে সরকার ও মালিকপক্ষ শেষরক্ষা করতে পারবে না। ক্ষমতায় থাকার জন্য শ্রমিক শ্রেণিসহ জনগণের ভোটের আর দরকার না থাকায় সরকার এমন চূড়ান্ত স্বেচ্ছাচারিতা অব্যাহত রেখেছে।
তারা বলেন, গার্মেন্ট শ্রমিকদের দাবি উপেক্ষা করে যে বেতন ও বেতন কাঠামো নির্ধারণ করা হয়েছে, তা মোটেই গ্রহণযোগ্য নয়। কারণ প্রতি বছর ৫% হারে বেতন বৃদ্ধি হলে শ্রমিকদের অনেক বেশি টাকা পাওয়ার কথা। অপরদিকে কেবল প্রতিপক্ষের মার্কায় ভোট দেয়ার জন্য নারীকে ধর্ষিতা হতে হয়। জনগণকে পালিয়ে বেড়াতে হয়। তাই নেতৃবৃন্দ গার্মেন্ট শ্রমিক সমুন মিয়ার হত্যাকারীদের গ্রেপ্তার ও বিচার, আহত গার্মেন্ট শ্রমিকদের উপযুক্ত চিকিৎসা এবং সর্বোপরি গার্মেন্ট শ্রমিকদের মজুরি নিয়ে যে প্রতারণা চলছে তা বন্ধ করে শ্রমিকদের মজুরি বৃদ্ধির দাবি জানান। পাশাপাশি কোনো টালবাহানা না করে শ্রমিকদের বকেয়া মজুরি অনতিবিলম্বে পরিশোধের জন্যও মালিকদের প্রতি আহ্বান জানান তারা। এ সময় সরকার ও মালিকদের এই স্বৈরতান্ত্রিক তৎপরতা প্রতিরোধ করে শ্রমিকদের গণতান্ত্রিক অধিকার প্রতিষ্ঠায় ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন গড়ে তোলার জন্য সকল দেশবাসীর প্রতিও আহ্বান জানান এই বাম নেতারা। সমাবেশের পর একটি বিক্ষোভ মিছিল রাজপথ প্রদক্ষিণ করে।
বাম জোটের সমন্বয়ক মোহাম্মদ শাহ আলমের সভাপতিত্বে বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন বাম জোটের কেন্দ্রীয় নেতা সাইফুল হক, শুভ্রাংশু চক্রবর্তী, বজলুর রশীদ ফিরোজ, মোশাররফ হোসেন নান্নু, তাসলিমা আকতার, মমিনুর রহমান মমিন প্রমুখ।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর