× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ২২ মার্চ ২০১৯, শুক্রবার

পর্দা উঠলো ঢাকা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের

দেশ বিদেশ

স্টাফ রিপোর্টার | ১১ জানুয়ারি ২০১৯, শুক্রবার, ১০:১০

 ‘সপ্তদশ ঢাকা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব-২০১৯’ উদ্বোধন করলেন সাবেক অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। এ চলচ্চিত্র উৎসবের ২৭ বছর পূর্ণ হলো এবার। গতকাল বৃহস্পতিবার বিকাল ৪টা ৩০ মিনিটে জাতীয় জাদুঘরের মূল মিলনায়তনে হয়ে গেল উৎসবের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান। সাবেক অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত তার ভাষণে বলেন, বহুদিন ধরে চলচ্চিত্র উন্নয়নের প্রচেষ্টা করে আসছে রেইনবো চলচ্চিত্র সংসদ। ৭২টি দেশের ১১৮টি চলচ্চিত্র দর্শকরা এবার উপভোগ করতে পারবেন। এটি সত্যিই আনন্দের সংবাদ। বিনোদন প্রত্যেকেরই অত্যন্ত প্রয়োজনীয়। আর উৎসবটা প্রতিবারের মতো এবারও অত্যন্ত মূল্যবান।
শুভ হোক এবারের উৎসব। একই সঙ্গে সকলকে আগামী দিনের সব চলচ্চিত্র উপভোগ করার আমন্ত্রণ জানিয়ে সপ্তদশ ঢাকা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের শুভ উদ্বোধন ঘোষণা করছি। উদ্বোধনের আগে মঞ্চে আয়োজনের অংশ হিসেবে ছিল ভাবনা নৃত্যদলের তিনটি গানের ওপর আলাদা তিনটি নৃত্য পরিবেশনা। সামিনা হোসেন প্রেমার নৃত্য পরিচালনায় লাঠিখেলাসহ বেশ কয়েকটি নৃত্য পরিবেশনা করেন ভাবনা নৃত্যদলের বেশ কয়েকজন নৃত্যশিল্পী। নয় দিনব্যাপী এ উৎসব চলবে ১৮ই জানুয়ারি পর্যন্ত। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উৎসবের প্রধান পৃষ্ঠপোষক ও পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম এমপি, তথ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব আবদুল মালেক ও উৎসব কমিটির কার্যনির্বাহী পরিষদের সদস্য ম. হামিদ উপস্থিত ছিলেন। উৎসব পরিচালক আহমেদ মুজতবা জামাল বলেন, এবারের উৎসবে পরিচয়পত্র দেখিয়ে মূল কেন্দ্রগুলোয় শিক্ষার্থীরা বিনামূল্যে ছবি দেখার সুযোগ পাবে। জাতীয় জাদুঘরের প্রধান মিলনায়তন ও কবি সুফিয়া কামাল মিলনায়তন, কেন্দ্রীয় গণগ্রন্থাগারের শওকত ওসমান স্মৃতি মিলনায়তন, জাতীয় জাদুঘরের কবি সুফিয়া কামাল মিলনায়তন, শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় চিত্রশালা মিলনায়তন, আলিয়ঁস ফ্রঁসেজ মিলনায়তন ও যমুনা ব্লকবাস্টার সিনেমায় এবারের উৎসবের চলচ্চিত্রগুলো প্রদর্শন করা হবে। নয় দিনব্যাপী এ উৎসবে উদ্বোধনী চলচ্চিত্র হিসেবে দেখানো হয় ‘দ্য  গেস্ট’ চলচ্চিত্রটি। তুরস্ক ও জর্ডানের যৌথ প্রযোজনায় নির্মিত এ চলচ্চিত্র পরিচালনা করেছেন তুরস্কের নির্মাতা আন্দাজ হাজানেদারগলু। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের পরই ছবিটি প্রদর্শিত হয়। উৎসবের এবারের  স্লোগান ‘নান্দনিক চলচ্চিত্র, মননশীল দর্শক, আলোকিত সমাজ’। রেইনবো ফিল্ম  সোসাইটির আয়োজিত এই উৎসবের সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য ইভেন্ট ‘উইমেন্স ফিল্ম  মেকারস কনফারেন্স’। প্রতিবারের মতো এবারও উৎসবে আজ ও আগামীকাল রাজধানীর আলিয়ঁস ফ্রঁসেজ মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হবে ‘উইমেন্স ফিল্ম মেকারস কনফারেন্স’। এতে আন্তর্জাতিক নারী চলচ্চিত্র নির্মাতা ও ব্যক্তিত্বরা অংশ নেবেন।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর