× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ১৭ জানুয়ারি ২০১৯, বৃহস্পতিবার

আতাইকুলায় ১৮ বছর পর অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ

বাংলারজমিন

সাঁথিয়া (পাবনা) প্রতিনিধি | ১২ জানুয়ারি ২০১৯, শনিবার, ৮:১৯

দীর্ঘ ১৮ বছর পর গতকাল সকালে পাবনার নবগঠিত আতাইকুলা থানা ভবনের সামনে থেকে অবৈধ স্থাপনা বুলডোজার দিয়ে ভেঙে উচ্ছেদ করলেন ওসি মনিরুজ্জামান। জানা যায়, ২০০১ সালে তৎকালীন আওয়ামী লীগ সরকার পাবনার আতাইকুলায় আইনশৃঙ্খলা উন্নয়নের স্বার্থে সাঁথিয়া উপজেলাধীন আতাইকুলায় থানা ভবনের শুভ উদ্বোধন করেন। পাবনা জেলার  সাঁথিয়া, পাবনা সদর ও আটঘরিয়া উপজেলার পাঁচটি ইউনিয়ন নিয়ে আতাইকুলা থানা প্রতিষ্ঠিত হয়। থানা ভবন নির্মাণের জন্য স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে ভূমি মালিকদের জমির দামসহ দোকানপাটের ক্ষতিপূরণ বাবদ অর্থ দেয়া হয়। এমতাবস্থায় অন্যরা উঠে গেলেও ৬ জন দোকান মালিক জোরপূর্বক থানা ভবনের সামনে স্থাপনা উচ্ছেদ না করে ব্যবসা চালিয়ে যান। তাদের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে স্থাপনা সরিয়ে নিতে বার বার চিঠি দিলেও তোয়াক্কা করেনি তারা। থানা নিরাপত্তা ও সৌন্দর্য বর্ধনের কারণে আতাইকুলা থানার অফিসার ইনচার্জ মনিরুজ্জামানের নেতেৃত্বে শুক্রবার সকালে বুলডোজার দিয়ে স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়।
এব্যপারে আতাইকুলা থানার অফিসার ইনচার্জ মনিরুজ্জামান বলেন, দোকান মালিকদের বার বার বলা সত্ত্বেও সরকারি নির্দেশ উপেক্ষা করে দখল করেছিল।
সরকারের প্রয়োজনেই এ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর