× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ২৫ জুন ২০১৯, মঙ্গলবার

দিনাজপুরের ঘাগড়া-গির্জা ক্যানেল বিপন্ন, খননের উদ্যোগ

বাংলারজমিন

স্টাফ রিপোর্টার, দিনাজপুর থেকে | ১৩ জানুয়ারি ২০১৯, রবিবার, ৯:০৭

 সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের অবহেলা আর উদাসীনতার কারণে অবৈধ দখলদারদের করাল গ্রাসে দিনাজপুরের মানচিত্র থেকে হারিয়ে যেতে বসেছে ঐতিহ্যবাহী  ঘাগড়া ও গির্জা ক্যানেল সহ অসংখ্য খাল। এসব ঘাগড়া-গির্জা ক্যানেল ও খালগুলো এখন অবৈধ দখলের স্থাপনা আর নোংরা আবর্জনার স্তূপে প্রায় বিপন্ন। একারণে শুধু বর্ষা নয়, শুষ্ক মৌসুমেও  সামান্য বৃষ্টিপাতে ময়লা পানিতে হয় সয়লাব। দীর্ঘদিন থাকছে জলাবদ্ধতা। ভারসাম্য হারাচ্ছে পরিবেশ। তবে এসব খাল উদ্ধার ও সংস্কারের উদ্যোগ নিয়েছে দিনাজপুর পানি উন্নয়ন বোর্ড।  দেখে বোঝার উপায় নেই, এটা ঘাগড়া না গির্জা ক্যানেল! প্রাকৃতিক ভারসাম্য রক্ষায় বৃটিশ আমলে খননকৃত প্রায় ১৪ কিলোমিটার দীর্ঘ ঘাগড়া ও গির্জা ক্যানেল এখন নির্বিচার আগ্রাসনের শিকার হয়েছে। দখলের ধারাবাহিকতায় মরে যেতে বসেছে এই খাল দু’টি। এক সময় স্বচ্ছ পানির উৎস ছিল এই খাল।
তাতে হতো মাছ চাষ। এখন ফেলা হচ্ছে, নোংরা-আবর্জনা। দুর্গন্ধে উপায় নেই নিঃশ্বাস নেয়ার। কিন্তু পরিষ্কার ও সংস্কার করারও উদ্যোগ নেই কর্তৃপক্ষের। এমন অভিযোগ এলাকাবাসীর। ১৪ কিলোমিটার দীর্ঘ ও ৩০ থেকে ৪০ ফুট প্রস্থ এই ঘাগড়া ও গির্জা ক্যানেল এখন সংকুিচত হয়েছে। খাল ভরাট করে বিস্তৃত হচ্ছে শহর। গড়ে উঠেছে বহুতল ভবন, ঘর-বাড়ি, দোকানপাট, রাস্তাঘাট, হাট-বাজার, ক্লাব-সমিতির অফিস ও ধর্মীয় উপাসনালয়। পানি প্রবাহ আটকে  দেয়া হয়েছে। একারণে শুধু বর্ষা নয়, শুষ্ক মৌসুমেও সামান্য বৃষ্টিপাতে ময়লা পানিতে সয়লাব হচ্ছে দিনাজপুর শহর। দীর্ঘদিন থাকছে জলাবদ্ধতা। এ কারণে প্রকৃতিতে বিপর্যয় নেমে আসছে। এমনি কথা বলছেন, পরিবেশবিদ প্রফেসর এমএ জব্বার। তিনি বলেন, ঘাগড়া ও গির্জা ক্যানেলসহ অসংখ্য খাল রয়েছে দিনাজপুরে। তা দখলমুক্ত করে খনন করা জরুরি। তা না হলে শহরসহ জেলার জন্য তা ভয়াবহ বিপর্যয় ডেকে আনবে। তবে, তা স্বীকার করলেও তা উদ্ধারে ব্যর্থতার কথা জানাচ্ছেন পৌর মেয়র  সৈয়দ জাহাঙ্গীর আলম। তিনি বলেন, প্রভাবশালীদের দখলে রয়েছে খাল দু’টি। তা মুক্ত করার প্রচেষ্টা নেয়া হয়েছে বেশ কয়েকবার। কিন্তু তা সম্ভব হয়নি উপর মহলের চাপে। তবে ঘাগড়া ও গির্জা ক্যানেলসহ জেলার ১৪টি খাল অবৈধ দখলদারদের আগ্রাসন থেকে উদ্ধার  ও সংস্কারের উদ্যোগ নিয়েছে দিনাজপুর পানি উন্নয়ন বোর্ড। কিন্তু তা কতদূর অগ্রসর হবে তা নিয়েও সংশয় প্রকাশ করছেন নির্বাহী প্রকৌশলী মো. ফইজুর রহমান।
কর্তৃপক্ষের অবহেলা আর উদাসীনতায় অবৈধ দখলদারদের হাতে জিম্মি হয়ে পড়ায় দিনাজপুরের ঐতিহ্যবাহী ঘাগড়া ও গির্জা ক্যানেল বিলুপ্ত হতে চলেছে। এতে জীব-বৈচিত্র্য বিনষ্টের পাশাপাশি বিপর্যন্ত হচ্ছে পরিবেশ। এ গির্জা ও ঘাগড়া ক্যানেল উদ্ধারে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি দেয়ার পাশাপাশি জনসচেতনতারও তাগিদ দিচ্ছেন পরিবেশবিদরা।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর