× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ২২ এপ্রিল ২০১৯, সোমবার

নেতাজিকে মনে রেখে কলকাতায় বিনা পয়সায় চপ খাওয়ানোর ট্রাডিশন

ভারত

কলকাতা প্রতিনিধি | ২৪ জানুয়ারি ২০১৯, বৃহস্পতিবার, ১০:৪৬

উত্তর কলকাতার হাতিবাগনের অদূরে বিধান সরণীর উপরে  লক্ষ্মীনারায়ণ সাউ অ্যান্ড সন্স-র তেলেভাজার দোকান। আলু, ফুলকপির চপ, বেগুনি, ফুলুরি থেকে পেঁয়াজি, সবই পাওয়া যায়।  ১৯১৮ সালে চালু হওয়া এই দোকান একশ বছর পেরিয়ে গিয়েছে । কিন্তু এই দোকানে নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুকে মনে রেখে তাঁর জন্মদিন ২৩ জানুয়ারিতে বিনা পয়সায় পছন্দমত চপ খাওয়ানো হয়। এবারও তার কোনও ব্যাতিক্রম হয় নি। বুধবার সারাদিন ধরে গরম গরম তেলেভাজা দেওয়া হয়েছে সকলকে বিনা পয়সায়। ছোটদের জন্য বরাদ্দ ছিল দুটি করে চপ। আর পরিবারের জন্য চারটে। কত মানুষকে বিনা পয়সায় তেলেভাজা খাওয়ানো হয়েছে ? কোনও হিসেব নেই খাতায় কলমে, তবে দশ হাজার মানুষ তো হবেই।
জানা গেছে, নেতাজীর জন্মদিনে বিনা পয়সায় তেলেভাজা খাওয়ানো তাদের দীর্ঘ ট্রাডিশন। ১৯৪৭ সাল  থেকেই এই রীতি শুরু হয়েছে যা আজও চলছে। দাদু থেকে নাতি, তিন পুরুষই নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বসুর জন্মদিনে বিনে পয়সায় তেলেভাজা খাইয়ে আসছে। অবশ্য নেতাজির সঙ্গে এই দোকানের যোগাযোগের একটা ইতহাস রযেছে। ছাত্রাবস্থায় নেতাজি এই দোকানের তেলেভাজা খেতেন। একবার কঙগ্রেসের এক মিটিংয়ে তেলেবাজা সরবরাহ করেছিল এই দোকান। আর তার পর এক সময়ে বিপ্লেরীদের যোগাযোগের কেন্দ্র হয়ে উঠেছিল এই তেলেভাজার দোকান। বিপ্লবীদের মধ্যে তথ্য দেওয়া নেওয়ার ক্ষেত্রেও লিঙ্ক ম্যানের ভূমিকা পালন করেছিলেন এই দোকানের তৎ্কালীন মালিক খেদু সাউ। স্বাধীনতা সংগ্রামীদের উদ্দেশে নেতাজির পাঠানো গোপন চিঠিপত্রও চালান হত এই দোকান থেকেই। আজও নেতাজিকে মনে রেখে ট্রাডিশনকে বাঁচিয়ে রেখেছে সাউ পরিবারের বর্তমান প্রজন্ম।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর