× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ২১ আগস্ট ২০১৯, বুধবার

খাগড়াগড় বিস্ফোরণকান্ডে আরও এক জেএমবি জঙ্গি গ্রেপ্তার

ভারত

কলকাতা প্রতিনিধি | ২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, শনিবার, ২:১০

পশ্চিমবঙ্গের বর্ধমান জেলার খাগড়াগড় বিস্ফোরণকান্ডে জড়িত আরও এক জেএমবি জঙ্গিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। কেরালা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করেছে কলকাতা পুলিশের স্পেশাল টাস্ক ফোর্স। ধৃত জঙ্গির নাম সৈয়দ আবদুল মাতিন।  বর্ধমানে শিমুলিয়া মাদ্রাসায় আইইডি তৈরির প্রশিক্ষণ নেওয়া ১৫ জেএমবি সদস্যের  মধ্যে এই আব্দুল মাতিন অন্যতম। তার সঙ্গে নাসিরুল্লা, সইদুল, জয়দুলদের ঘনিষ্ঠ যোগাযোগ ছিল বলে জানা গিয়েছে। বাড়ি আসামের বড়পেটার চাপারবোরি এলাকায়। পুলিশের দাবি, ২০১০ সাল থেকেই জেএমবি জঙ্গিদের সঙ্গে তার ঘনিষ্ঠ যোগাযোগ ছিল। মালদহের কালিয়াচকের শেরশা মাদ্রাসায় ছাত্র থাকাকালীন আবদুল মাতিন জেএমবির ভাবধারায় প্রভাবিত হয়েছিলেন বলে পুলিশের দাবি। ২০১৪ সালে খাগড়াগড় বিস্ফোরণের পরই রাজ্য ছেড়ে পালিয়ে যান তিনি।
জানা গেছে, স্থানীয় পুলিশের সাহায্য নিয়ে কেরালার মাল্লাপুরম এলাকা থেকে গত বৃহষ্পতিবার তাকে গ্রেপ্তার করেছে স্পেশাল টাস্ক ফোর্স। আট দিনের ট্রানজিট রিমান্ডে তাকে কলকাতায় নিয়ে আসা হয়েছে। শনিবার তাকে নগর দায়রা আদালতে তোলার কথা। মাতিনকে গ্রেপ্তারের তিন দিন আগেই খাগড়াগড় বিস্ফোরণের সঙ্গে যুক্ত কাজি ও তার সঙ্গী সাজ্জাদ আলীকে এনআইয়ের গোয়েন্দারা পশ্চিমবঙ্গের হুগলির আরামবাগ থেকে গ্রেপ্তার করেছিল। ২০১৪ সালে খাগড়াগড়ে একটি বাড়িতে বিস্ফোরণের পরে তদন্তে এনআইএ জানতে পারে বাংলাদেশের নিষিদ্ধ জামাতুল মুজাহিদিনের জঙ্গিরা পশ্চিমবঙ্গ, আসাম ও ঝাড়খন্ডে জেএমবির নেটওয়ার্ক গড়ে তুলেছে। মাতিনকে নিয়ে  ৩০ জনকে খাগড়াগড় বিস্ফোরণ মামলায় গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এই মামলার বিচার প্রক্রিয়া ইতিমধ্যেই শুরু হয়েছে।  

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর