× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ২৬ এপ্রিল ২০১৯, শুক্রবার

ভেনিজুয়েলা ইস্যুতে পাল্টাপাল্টি যুক্তরাষ্ট্র ও রাশিয়ার

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ১০ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, রবিবার, ২:০৭

ভেনিজুয়েলায় একটি নতুন প্রেসিডেন্ট নির্বাচন ও আন্তর্জাতিক ত্রাণ সরবরাহের আহ্বান জানিয়ে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদে একটি খসড়া প্রস্তাব উত্থাপন করেছে যুক্তরাষ্ট্র। তবে রাশিয়া এ প্রস্তাবের বিপেক্ষ অবস্থান নেবে বলে আভাষ দিয়েছেন কূটনীতিকরা। তারা বলছেন, যুক্তরাষ্ট্র ওই খসড়া প্রস্তাব উত্থাপন করলেও তা কবে নাগাদ ভোটে দেয়া হবে তা নির্ধারিত হয় নি। এ নিয়ে সমঝোতা অব্যাহত রয়েছে। কিন্তু কূটনীতিকরা বলছেন, এ প্রস্তাবের বিরুদ্ধে অবস্থান নেবে রাশিয়া। তারা যুক্তরাষ্ট্রের প্রস্তাবকে আটকে দিতে ভেটো ক্ষমতা প্রয়োগ করবে। ভেনিজুয়েলার প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরোকে সমর্থনের অংশ হিসেবে রাশিয়া এমন পদক্ষেপ নেবে। এ ছাড়া তারা একটি পাল্টা প্রস্তাব উত্থাপন করেছে।
ফলে ভেনিজুয়েলাকে কেন্দ্র করে পাল্টাপাল্টি অবস্থানে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র ও রাশিয়া। এ খবর দিয়েছে বার্তা সংস্থা এএফপি।
যুক্তরাষ্ট্রের ওই খসড়া প্রস্তাবের একটি কপি শনিবার এএফপির হাতে এসেছে। তাতে বলা হয়েছে, ওই প্রস্তাবে ভেনিজুয়েলার ন্যাশনাল এসেম্বলির প্রতি পূর্ণ সমর্থন প্রকাশ করা হয়েছে। কারণ, এটাকেই ভেনিজুয়েলায় গণতান্ত্রিকভাবে নির্বাচিত প্রতিষ্ঠান হিসেবে দেখা হয়। ন্যাশনাল এসেম্বলির চেয়ারম্যান ও বিরোধী দলীয় নেতা হুয়ান গাইডো গত মাসে প্রেসিডেন্ট মাদুরোর শাসনকে চ্যালেঞ্জ করে নিজেকে অন্তর্বর্তী প্রেসিডেন্ট ঘোষণা করেন। তারপর থেকে এ ঘটনায় আন্তর্জাতিক দুনিয়ার রাজনীতি বিভক্ত হয়ে পড়ে।
যুক্তরাষ্ট্র যে খসড়া প্রস্তাব জমা দিয়েছে তাতে ভেনিজুয়েলায় নিরস্ত্র, শান্তিপূর্ণ প্রতিবাদকারীদের বিরুদ্ধে নিরাপত্তা রক্ষাকারীদের সহিংসতা ও অতিরিক্ত শক্তি প্রয়োগের জন্য গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করা হয়। এতে দেশটিতে অবিলম্বে একটি অবাধ, সুষ্ঠু ও বিশ্বাসযোগ্য প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রাজনৈতিক প্রক্রিয়া শুরুর আহ্বান জানানো হয়েছে। বলা হয়েছে, ওই নির্বাচন হতে হবে ভেনিজুয়েলার সংবিধানের আওতায়। এমন একটি নির্বাচন করতে নিজের ক্ষমতা প্রয়োগ করতে অনুরোধ জানানো হয়েছে জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্তনিও গুতেরাঁর প্রতি। দেশটিতে মানবাধিকার পরিস্থিতির যাতে আরো অবনতি না ঘটে সে প্রয়োজনীয়তার কথা তুলে ধরা হয়। বলা হয়, ভেনিজুয়েলার সর্বত্র সহায়তা পৌঁছে দেয়ার সুবিধা ও সহযোগিতা দিতে হবে।
ওদিকে শুক্রবার যুক্তরাষ্ট্রের প্রস্তাবের পাল্টা একটি প্রস্তাব দিয়েছে মস্কে। তাতে বলা হয়েছে, ভেনিজুয়েলার অখন্ডতা ও স্বাধীন রাজনৈতিক পরিস্থিতির বিরুদ্ধে শক্তি প্রয়োগের হুমকি রয়েছে। এতে মস্কো উদ্বিগ্ন। যেসব বিষয় ভেনিজুয়েলার আভ্যন্তরীণ বিষয় তার বিরুদ্ধে হস্তক্ষেপের কড়া সমালোচনা করা হয় এতে। ওই প্রস্তাবে মস্কে বলেছে, ভেনিজুয়েলার অচলাবস্থার সমাধান হতে হবে শান্তিপূর্ণভাবে। ভেনিজুয়েলার বর্তমান পরিস্থিতির ভিত্তিতে রাজনৈতিক সমাধানের লক্ষ্যে সব উদ্যোগে তারা সমর্থন করে। তবে সেটা হতে হবে একটি খাঁটি ও জাতীয় পর্যায়ে সবার অংশগ্রহণের মধ্য দিয়ে সংলাপের মাধ্যমে। তবে কূটনীতিকরা মনে করছেন, রাশিয়ার এই প্রস্তাব যদি ভোটে দেয়া হয় তাহলে তা সর্বনিম্ন ৯টি ভোট পাবে না। কারণ, এক্ষেত্রেও ভেটো দেবে একাধিক দেশ।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর