× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, শনিবার
প্রধান বিচারপতি

ধর্ম যার যার উৎসব সবার

এক্সক্লুসিভ

স্টাফ রিপোর্টার | ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, সোমবার, ৯:০৮

প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন বলেছেন, ধর্ম যার যার উৎসব সবার। সুতরাং আমরা এ উৎসবে যোগ দিতে এসেছি। এখান থেকে সবার মঙ্গল কামনা করছি।
রোববার সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি মিলনায়তনে সরস্বতী পূজা উপলক্ষে বাণী অর্চনা অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন। সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির বাণী অর্চনা উদযাপন   পরিষদের আহ্বায়ক এ্যাডভোকেট ষষ্টী সরকারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন এ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম, সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি জয়নুল আবেদীন ও সম্পাদক এ এম মাহবুব উদ্দিন খোকন ও সদস্য সচিব মিন্টু কুমার মণ্ডল। উপস্থিত ছিলেন বিচারপতি ওবায়দুল হাসান, বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম, বিচারপতি গোবিন্দ চন্দ্র ঠাকুর, বিচারপতি ভবানী প্রসাদ সিংহ, বিচারপতি শশাংক শেখর সরকারসহ হাইকোর্ট বিভাগের অন্যান্য বিচারপতি ও আইনজীবীরা।
প্রধান বিচারপতি বলেন, ‘সুপ্রিম কোর্ট বারে এ অনুষ্ঠান অনেক আগে থেকেই পালন হয়ে আসছে। আমি প্রায় প্রত্যেক বারেই এসেছি। কোনো বারই মনে হয়, মিস হয়নি।
ভবিষ্যতেও আসবো।
মাহবুবে আলম বলেন, ‘আজ সবাই এই আনন্দে মেতে উঠুক। যে যে ধর্ম পালন করি না কেন এই উৎসবে সবাই সংযুক্ত হয়ে একাকার হয়ে যাই এই কামনা করছি।’
জয়নুল আবেদীন বলেন, ‘সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি সব সময় ধর্মীয় গোড়ামির ঊর্ধ্বে থাকে। আমরা মনে করি এই বাংলাদেশ সকলের। সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতিও সকলের। তাই এই দিনটিকে আমরা অত্যন্ত আনন্দের সঙ্গে পালন করে থাকি।’
মাহবুব উদ্দিন খোকন বলেন, ‘আমরা চাই সুপ্রিম কোর্ট সকল চিন্তার আধার হোক। সকল ধর্ম এখানে পালন করা হয়। আমাদের চিন্তার স্বাধীনতা, ধর্মের স্বাধীনতা এখানে লালন করা হয়।’

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
simon nobi
১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, বৃহস্পতিবার, ৯:০১

Impossible, its possible only in bangladesh !!!

মালেক
১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, সোমবার, ৯:৪৮

হিন্দুদের পুজায় মুসলমানরা গেলে ধর্ম যার যার, উৎসব সবার হয় । মুসলমান বুদ্ধিজিবিরা পুজা অনুষ্ঠানে যেয়ে এই বাণী টি উদগিরন করেন নিজেকে প্রগতিশীল প্রমান করার জন্য । কিন্তু মহামান্য বুদ্ধিজিবিরা ঈদ বা মিলাদুন্নবি অনুষ্ঠানে যেয়ে এই বাণী প্রচার করেন না, এমনকি তারা মুসলমানদের কোন অনুস্থানেও অংশ গ্রহন করেন না । আজ পর্যন্ত কোন হিন্দু ঈদ বা মিলাদুন্নবি অনুষ্ঠানে যোগ দিয়েছে, এমন প্রমান একেবারেই নাই । কারন, এই ক্ষেত্রে "ধর্ম যার যার, উৎসব সবার" নিতি বাক্য প্রযোজ্য নহে ।

হুমায়ুন খান
১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, সোমবার, ১:১৭

রাসূলে কারীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম ইরশাদ করছেন, من تشبه بقوم فهو منهم ‘যে ব্যক্তি অন্য জাতির সাদৃশ্য অবলম্বন করবে সে তাদের দলভ‚ক্ত বলে গণ্য হবে।’ Ñসুনানে আবু দাউদ, হাদীস ৪০৩১ অন্য একটি বর্ণনায় খলীফা হযরত উমর রা. বলেছেন, اجتنبوا أعداء الله في عيدهم তোমরা আল্লাহর দুশমনদের উৎসবগুলোতে অংশগ্রহণ থেকে বিরত থাক। Ñআস্সুনানুল কুবরা, হাদীস ১৮৮৬২ অন্য বর্ণনায় তিনি এর ব্যাখ্যায় বলেছেন ‘কারণ এক্ষেত্রে আল্লাহর অসন্তুষ্টি নাযিল হয়ে থাকে।’ আরেকটি বর্ণনায় হযরত আব্দুল্লাহ ইবনে আমর রা. বলেছেন من بنى ببلاد الأعاجم وصنع نيروزهم ومهرجانهم وتشبه بهم حتى يموت وهو كذلك، حشر معهم يوم القيامة. অর্থাৎ যারা বিধর্মীদের মত উৎসব করবে, কিয়ামত দিবসে তাদের হাশর ঐ লোকদের সাথেই হবে। Ñআস্সুনানুল কুবরা, হাদীস ১৫৫৬৩

M Palash
১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, সোমবার, ১২:৫৯

ধর্ম যার যার উৎসব তার তার। এটাই আল কোরআন এর বিধান।

বাহাউদ্দিন বাবলু
১০ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, রবিবার, ৬:০২

ধর্ম যার যার উৎসব তার তার। এটাই আল কোরআন এর বিধান।

Bappi
১০ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, রবিবার, ১১:২৪

রাজনৈতিক বক্তব্য বিচারপতির মুখে বেমানান।

অন্যান্য খবর