× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ২৬ জুন ২০১৯, বুধবার

জেসাপ মুটকোর্ট কম্পিটিশন-২০১৯ এর চ্যাম্পিয়ন ঢাবি

শিক্ষাঙ্গন

অনলাইন ডেস্ক | ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, বুধবার, ৬:৫২

‘ফিলিপ সি. জেসাপ ইন্টারন্যাশনাল ল মুটকোর্ট কম্পিটিশন’ এর ‘৩য় বাংলাদেশ কোয়ালিফাইয়িং রাউন্ড’ অনুষ্ঠিত হয়েছ। এ প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারী ৩১ টি বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) এবং রানার আপ হয়েছে ইস্টার্ন ইউনিভার্সিটি।

প্রতিযোগিতায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাইমি ওয়াদুদ বেস্ট মুটার নির্বাচিত হয়েছেন।

বেস্ট মেমোরিয়াল পুরষ্কার পায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়। এছাড়া ব্র্যাক ইউনিভার্সিটি ও জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় বিশ্ববিদ্যালয় যথাক্রমে দ্বিতীয় ও তৃতীয় সেরা মেমোরিয়ালের স্বীকৃতি লাভ করে।

স্পিরিট অফ জেসাপ পুরষ্কার যুগ্মভাবে লাভ করে নর্থ ইস্ট ইউনিভার্সিটি ও নর্দান ইউনিভার্সিটি।

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় সেরা নবীন দলের স্বীকৃতি লাভ করে। .

‘ফিলিপ সি. জেসাপ ইন্টারন্যাশনাল ল মুট কোর্ট কম্পিটিশন’ আইনের শিক্ষার্থীদের মধ্যে সবচেয়ে বিখ্যাত প্রতিযোগিতা যা আন্তর্জাতিক পর্যায়ে প্রায় ১০০টিরও অধিক দেশের আইনের শিক্ষার্থীকে একত্রিত করে। জেসাপ বাংলাদেশ কম্পিটিশন সেই প্রতিযোগিতার ন্যাশনাল রাউন্ড যা সারাবিশ্বের সকল জেসাপ প্রতিযোগিতার মধ্যে পঞ্চম বৃহত্তর কোয়ালিফাইয়িং রাউন্ড’।

এই নিয়ে তৃতীয়বারের মত বাংলাদেশে জাতীয় পর্যায়ে প্রতিযোগিতাটি অনুষ্ঠিত হয়েছে।
ইন্টারন্যাশনাল ল স্টুডেন্টস অ্যাসোসিয়েশন বাংলাদেশ যথাক্রমে অফিস অফ ওভারসিজ প্রসিকিউটোরিয়াল ডেভেলপমেন্ট অ্যাসিস্টেন্স অ্যান্ড ট্রেইনিং (ঙচউঅঞ), ইউ.এস. ডিপার্টমেন্ট অফ জাস্টিস (উঙঔ), তীর-সিটি গ্রুপ, ইন্ডিপেন্ডেন্ট ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ, বাংলাদেশ চ্যাপ্টার অফ এশিয়ান সোসাইটি অফ দ্য ইন্টারন্যাশনাল ল,(অংরধহঝওখ ইধহমষধফবংয) এর সহযোগিতায় অনুষ্ঠিত হয় বিশ্বের সবচেয়ে সম্মানজনক মুটকোর্ট প্রতিযোগিতার ন্যাশনাল রাউন্ড।

প্রতিযোগিতাটি ২১-২৩শে ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত হয়।

গত ২১শে ফেব্রুয়ারি হোটেল আমারি ঢাকায় অনুষ্ঠিত উদ্বোধনী আয়োজনে বাংলাদেশ সরকারের এটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম প্রধান অতিথি হিসেবে প্রতিযোগিতাটির উদ্বোধন ঘোষণা করেন।

প্রতিযোগিতাটি শুরু হয় ২২শে ফেব্রুয়ারি এবং ২৩ শে ফেব্রুয়ারি প্রতিযোগিতার ফাইনাল রাউন্ড অনুষ্ঠিত হয় । ২৩শে ফেব্রুয়ারি ইন্ডিপেন্ডেন্ট ইউনিভার্সিটি,বাংলাদেশে প্রতিযোগিতাটির ফাইনাল রাউন্ড অনুষ্ঠিত হয়। ফাইনাল রাউন্ডে বিচারক হিসেবে বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের আপীল বিভাগের সম্মানিত বিচারপতি জাস্টিস মোহাম্মদ ইমান আলী, হাইকোর্ট বিভাগের সম্মানিত বিচারপতি জাস্টিস সৈয়দ রেফাত আহমেদ, জাস্টিস মামুন রহমান বিচারকের আসন অলংকৃত করেন।

সমাপনী অধিবেশনে উপস্থিত অতিথিবৃন্দ প্রতিযোগিতায় নারী শিক্ষার্থীদের উল্লেখযোগ্য অংশগ্রহণের ভূয়সী প্রশংসা করেন।

সমাপনী অনুষ্ঠানে  সিটি গ্রুপের হেড অফ দ্য সেলস মোঃ ফরহাদ হোসেন বলেন, “বাংলাদেশকে নিয়ে আমাদের অনেক স্বপ্ন আছে।” তিনি প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারীদের শুভকামনা জানিয়ে তারা দেশের জন্য সম্মান বয়ে আনবে এই আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

ঢাকায় অবস্থিত যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাসের অন্তর্ভুত ডিপার্টমেন্ট অফ জাস্টিসের স্থায়ী আইন উপদেষ্টা এরিক উপাঙ্গা অনুষ্ঠানটির সকল আয়োজকদের ধন্যবাদ জানান।

বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের আপীল বিভাগের সম্মানিত বিচারপতি জাস্টিস মোহাম্মদ ইমান আলী উক্ত অনুষ্ঠানে বিচারকের দায়িত্ব পালন করে অত্যন্ত আনন্দিত হয়েছেন বলে জানান।

হাইকোর্ট বিভাগের সম্মানিত বিচারপতি জাস্টিস সৈয়দ রেফাত আহমেদ এই প্রতিযোগিতায় বিচারকের দায়িত্ব পালনের ব্যাপারে তার উচ্ছাস প্রকাশ করেন এবং, ভবিষ্যতে বিচারব্যবস্থায় অনেক আশা আছে বলে জানান।

জাস্টিস মামুন রহমান প্রত্যেক প্রতিযোগীকে তাদের সাফল্যের শুভেচ্ছা জানান।

ইন্ডিপেন্ডেন্ট ইউনিভার্সিটির ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ওমর রহমান সবাইকে শুভেচ্ছা জানিয়ে বলেন এধরনের প্রতিযোগিতা প্রতিটি আইনের শিক্ষার্থীদের জন্য এক বড় প্ল্যাটফর্ম।

ইন্ডিপেন্ডেন্ট ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশের আইন বিভাগের উপদেষ্টা ও এশিয়ানসিল বাংলাদেশের সভাপতি প্রফেসর ড. বোরহান উদ্দিন খান সমাপনী অধিবেশনে সভাপতি হিসেবে সভাপতিত্ব করেন।  ইলসার বাংলাদেশ চ্যাপ্টারের কোঅর্ডিনেটর নুরান চৌধুরী একটি ভিডিওবার্তার মাধ্যমে সবাইকে শুভেচ্ছা জানান

বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ও জেসাপ বাংলাদেশ ন্যাশনাল রাউন্ড ২০১৯ এর ন্যাশনাল অ্যাডমিনিস্ট্রেটর এ এস সায়েম আলী পাঠান প্রতিযোগিতার বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করেন।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর