× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ২৩ জুলাই ২০১৯, মঙ্গলবার

বালাকোটে বিমান হানার সাফল্য নিয়ে সংশয় বাড়ছে

ভারত

কলকাতা প্রতিনিধি | ৭ মার্চ ২০১৯, বৃহস্পতিবার, ১২:২০

নিয়ন্ত্রণ রেখা পেরিয়ে পাকিস্তানের অভ্যন্তরে খাইবার পাখতুনখোয়া প্রদেশের বালাকোটে ভারতের বিমান হানার সাফল্য নিয়ে সংশয় ক্রমশ বাড়ছে। এখন পর্যন্ত এই বিমান হানায় কতজন জঙ্গীর মৃত্যু হয়েছে তার কোনও তথ্য ভারত সরকার জায়ায় নি। তবে অভিযান যে সফল হয়েছে সে সম্পর্কে বারে বারে দাবি জানিয়েছে ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রক থেকে শুরু করে ভারতের বায়ু সেনাও। বায়ুসেনার পক্ষ থেকে বুধবারই ভারত সরকারের কাছে বি¯াÍরিত তথ্য ও উপগ্রহ চিত্র সম্বলিত একটি রিপোর্টে লক্ষ্য ৮০ শতাংশ সফল বলে জানানো হয়েছে। তবে  মিডিয়াতে নানা ধরণের পরষ্পরবিরোধী সংবাদ প্রকাশ হওয়ায় বালাকোটে বিমান অভিযানে আদৌ কোনও জঙ্গি ঘাঁটি ধ্বংস হয়েছে কিনা এই প্রশ্ন প্রকট হয়েছে।

পুলওয়ামায় জঙ্গি হামলায় নিহত উত্তরপ্রদেশের দুই সিআরপি জওয়ানের পরিবারও এই সংশয় জানিয়ে দাবি করেছে,বিমান হামলায় জঙ্গি মৃত্যুর বিশ্বাসযোগ্য প্রমাণ দিক সরকার। গত মঙ্গলবারই সংবাদ সংস্থা একটি উপগ্রহ চিত্র প্রকাশ করে জানিয়েছে, বালাকোটে পাহাড়ের মাথায় জইশ-ই-মহম্মদের চালানো মাদ্রাসাটি এখনও টিকে রয়েছে। ধ্বংসের কোনও চিহ্ন কোথাও নেই।  যুক্তরাষ্ট্রের একটি বেসরকারি স্যাটেলাইট অপারেটর ‘প্ল্যানেট ল্যাবস ইনকর্পোরেট’-কে দিয়ে বালাকোটের একটি ছবি তোলায় সংবাদ সংস্থা রয়টার্স।
মার্চের ৪ তারিখে তোলা হাই রেজোলিউশনের সেই ছবিতে স্পষ্ট দেখা যাচ্ছে, জাবা প্রামের অদূরে পাহাড়ের মাথায় সেই মাদ্রাসাটি দিব্যি অক্ষত রয়েছে। তার ছাদে কোনও গর্ত নেই, ভাঙনের কোনও চিহ্ন নেই দেওয়ালেও।

গত বছর এপ্রিলে সংস্থাটি শেষ বার এই অঞ্চলের যে উপগ্রহ চিত্র তুলেছিল, তার সঙ্গে এখন তোলা ছবিটির কোনও অমিল নেই। রয়টার্সে দাবি করেছে, কিছু প্রশ্ন-সহ এই ছবি তারা ভারত সরকারের পররাষ্ট্র ও প্রতিরক্ষা মন্ত্রকে ইমেল করে পাঠায়। কিন্তু তার পরে দু’-তিন দিন কেটে গেলেও কোনও জবাব মেলেনি। রয়টার্সের এই প্রতিবেদন প্রকাশের পরই নানা মহলে নতুন করে সংশয় তৈরি হয়েছে। প্রশ্ন উঠেছে,  এক হাজার কেজির বোমা কি লক্ষভ্রষ্ট হয়েছে ? ভারতের বিরোধী দলগুলি অনেকদিন ধরেই এই অভিযানের সাফ্য নিয়ে একই সংশয় প্রকাশ করে এসেছে। তবে ভারতীয মিডিয়ার খবর, গত বুধবারই সরকারের হাতে সরাসরি প্রমাণ তুলে দিয়েছে ভারতীয় বায়ু সেনা। উপগ্রহ চিত্র দিয়ে ওই রিপোর্টে দাবি করা হয়েছে, ওই দিন ৮০ শতাংশ বোমাই নির্দিষ্ট লক্ষ্যে আঘাত হেনেছে।

জানা গিয়েছে, ২৬ ফেব্রুয়ারি বালাকোটে অভিযানের ১২ পাতার একটি বিস্তারিত রিপোর্ট তৈরি করেছে ভারতীয় বায়ু সেনা। তাতে হামলার বিস্তারিত তথ্যের সঙ্গে রয়েছে বেশ কিছু ‘হাই রিজোলিউশন স্যাটেলাইট ইমেজ’। ওই সময় ভারতের আকাশে থাকা একটি নজরদারি বিমান থেকে ‘রেডার ইমেজ’ও যুক্ত করা হয়েছে ওই রিপোর্টের সঙ্গে। ওই রিপোর্টে দাবি করা হয়েছে, বালাকোটের ওই অভিযান সম্পূর্ণ সফল। বায়ু সেনার মিরাজ-২০০০ যুদ্ধবিমানে অভিযান চালানো হয়। ওই যুদ্ধবিমানগুলিই ইজরায়েলি স্পাইস ২০০০ বোমা ফেলে আসে। এই বোমাগুলি বাড়ির ছাদ দিয়ে ঢুকে ভিতরে বিস্ফোরণ ঘটিয়েছে। ফলে ক্ষতি হয়েছে ভিতরে ভিতরে। এই সূত্রেই রিপোর্টে বায়ু সেনার দাবি, ৮০ শতাংশ বোমাই নির্দিষ্ট লক্ষ্যে গিয়ে বিস্ফোরণ ঘটিয়েছে।

যে কোনও অভিযানেই ২০ শতাংশকে সম্ভাবনা হিসেবে রাখা হয়। এক্ষেত্রেও সেটাই হয়েছে। এদিকে, কাশ্মীরের পুলওয়ামায় জঙ্গি হানায় নিহত উত্তরপ্রদেশের জওয়ান প্রদীপ কুমার ও রাম ভকিলের পরিবারও জানিয়েছে, সরকার বিশ্বাসযোগ্য প্রমাণ দিলে তবেই তাঁরা শান্তি পাবেন। প্রদীপ কুমারের মা বলেছেন, দেশের এতগুলো ছেলে প্রাণ দিল। আর আমরা জঙ্গিদের দেহ পর্যন্ত দেখতে পেলাম না। আমরা এতে সন্তুষ্ট নই। আমরা চাই জঙ্গিদের মৃতদেহ টিভিতে দেখানো হোক।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
Kazi
৬ মার্চ ২০১৯, বুধবার, ১১:৩০

শেষ পর্যন্ত ভারতীয় সেনাবাহিনী ও ব্যর্থতা ঢাকতে মিথ্যার আশ্রয় নিল মনে হচ্ছে।

অন্যান্য খবর