× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ১৬ জুলাই ২০১৯, মঙ্গলবার

কিমের ওপর হতাশ ট্রাম্প

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ১০ মার্চ ২০১৯, রবিবার, ৯:৫১

উত্তর কোরিয়ার পুনরায় পরমাণু অস্ত্রের কার্যক্রম শুরু করায় হতাশা প্রকাশ করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রামপ। শুক্রবার তিনি বলেন, পিয়ংইয়ং যদি সত্যিই আবারো পরমাণু অস্ত্র পরীক্ষা করতে থাকে তাহলে তিনি অত্যন্ত হতাশ হবেন। একইসঙ্গে উত্তর কোরিয়ার সর্বোচ্চ নেতা কিম জং উনের সঙ্গে থাকা তার সুসমপর্ক নষ্ট হয়ে যাবে বলেও জানান তিনি। এ খবর দিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।
সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলার সময় মার্কিন প্রেসিডেন্ট বলেন, আমি নেতিবাচকভাবে বিস্মিত হতাম যদি দেখতাম তিনি এমন কিছু করেছেন যা আমাদের বোঝাপড়ার মধ্যে ছিল না। কিন্তু আমরা দেখতে পাচ্ছি কি ঘটছে সেখানে। যদি উত্তর কোরিয়া পরমাণু অস্ত্রের পরীক্ষা চালায় আমি সত্যিই খুব হতাশ হব। দক্ষিণ কোরিয়ার গোয়েন্দা সংস্থার দেয়া তথ্যমতে উত্তর কোরিয়া পুরোদমে আবারও তাদের পরমাণু অস্ত্রবাহী ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণ কেন্দ্র নির্মাণ করছে। মার্কিন কর্মকর্তারাও এ ঘটনা নিশ্চিত করেছেন, প্রমাণ মিলেছে স্যাটেলাইট থেকে পাওয়া ছবিতেও।
তবে সবথেকে চাঞ্চল্যকর তথ্যটি হচ্ছে উত্তর কোরিয়া পিয়ং ইয়ং এর কাছেই যুক্তরাষ্ট্রে আঘাতে সক্ষম আইসিবিএম বা আন্তঃমহাদেশীয় ক্ষেপণাস্ত্র নির্মাণ করছে।
গত শুক্রবার যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় রেডিও জানিয়েছে, মার্কিন বিশেষজ্ঞরা এ বিষয়ে নিশ্চিত যে উত্তর কোরিয়া নতুন একটি ক্ষেপণাস্ত্র কিংবা মহাকাশযান উড্ডয়নের চেষ্টা চালাচ্ছে। রয়টার্সকে একজন বিশেষজ্ঞ জানিয়েছেন যে, এই দুইটি কেন্দ্র একে অপরের সঙ্গে সংযুক্ত বলেই মনে হচ্ছে। তবে এ বিষয়ে তাৎক্ষণিকভাবে কোনো মন্তব্য করতে রাজি হয়নি পেন্টাগন কিংবা মার্কিন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।
উল্লেখ্য, ২০১৭ সালের পর থেকে উত্তর কোরিয়া সবধরনের ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা বন্ধ রেখেছে। ডনাল্ড ট্রামপ বরাবরই পিয়ং ইয়ং এর এ সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়ে এসেছেন। এর মধ্যে উত্তর কোরিয়ার সর্বোচ্চ নেতা কিম জং উনের সঙ্গে দুই দফা বৈঠকে বসেন ডনাল্ড ট্রামপ। তবে এতে কোনো ধরনের চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়নি। প্রথম সম্মেলন শেষে কিম প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন যে, উত্তর কোরিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণ সাইট ধ্বংস করে দেবেন। সেখানেই স্যাটেলাইট ছবিতে দেখা গেছে কিম নতুন করে ওই উৎক্ষেপণ সাইটের নির্মান শুরু করেছেন। শুক্রবার সাংবাদিকদের ট্রামপ বলেন, আমার ধারণা ছিল যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে উত্তর কোরিয়ার অসাধারণ সমপর্ক রয়েছে। আশা করি এটা সবসময় ভালোই থাকবে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর