× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ২৬ মার্চ ২০১৯, মঙ্গলবার

রাস্তায় পুরো নগ্ন নরনারী

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ১০ মার্চ ২০১৯, রবিবার, ১১:১৫

কুইন্সল্যান্ড সীমান্তের কাছে নিউ সাউথ ওয়েলসের শহর নিমবিন। সেখানে সড়ক নিরাপত্তার বিষয়ে, পরিষ্কার ও নিরাপদ বিশ্বের অধিকারের বিষয়ে সচেতনতা বাড়াতে পুরোদস্তুর নগ্ন হয়ে রাস্তায় নামলেন নরনারীরা। তারা সাইক্লিস্ট। অর্থাৎ একেবারে বিবস্ত্র অবস্থায় তারা রাস্তায় নেমেছেন সাইকেল নিয়ে। বার্ষিক ‘ওয়ার্ল্ড ন্যাকেড বাইক রাইড’ উপলক্ষে তারা যখন রাস্তায় সাইকেল চালাচ্ছিলেন তখন দু’পাশ থেকে উৎসাহী মানুষ তাদের দেখছিলেন। এ সময় ওই নগ্ন নরনারী, যার মধ্যে অনেকেই যুবক-যুবতী, তারা সহাস্য ছিলেন। তাদেরকে সামান্যতম লজ্জা পেতে দেখা যায় নি।

এ খবর দিয়েছে বৃটেনের একটি ট্যাবলয়েড পত্রিকার অনলাইন সংস্করণ।
এতে বলা হয়েছে, নিউ সাউথ ওয়েলসের উত্তরাঞ্চলে এই বার্ষিক নগ্ন সাইকেল চালনায় যোগ দিয়েছিলেন কমপক্ষে ৫০ জন নরনারী। শনিবার বিকেলে তারা যখন সাইকেল নিয়ে রাস্তায় নামলেন তখন তাদের শরীরে শুধু হেলমেট ছাড়া আর কোনো আবরণ ছিল না। তারা সাইকেলের প্যাডেলে বল প্রয়োগ করে চালিয়ে গেলেন এ রাস্তা, সে রাস্তা। ‘বাইকটিভিস্টস’দের আয়োজনে এটা হলো এমন ১১তম বার্ষিক কর্মসূচি। তারা এর মধ্য দিয়ে সাইকেল চালকদের নিরাপত্তা, পথচারীদের নিরাপত্তা এবং সড়কে গাড়িচালকদের নিরাপত্তার সচেতনতা বাড়ায়।

এতে যারা যোগ দেন তাদের কারো কারো দেহের স্পর্শকাতর অঙ্গে ব্যবহার করা হয় কিছুটা পেইন্ড। বৃটিশ ওই পত্রিকাটি যেসব ছবি প্রকাশ করেছে তাও সেন্সর করে দিতে হয়েছে। বৃটিশ সংবাদ মাধ্যম এমনটা খুব বেশি করে না। কিন্তু এই ইভেন্টের ছবিগুলো এতটাই জীবন্ত ও স্পষ্ট যে, তা সেন্সর না করে তারা প্রকাশ করতে পারে নি। লন্ডন, মেলবোর্ন সহ বিশ্বের ৭০ টিরও বেশি শহরে এ কর্মসূচি পালিত হয়েছে বলে বলা হয়েছে প্রতিবেদনে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
আকবর আলী
১০ মার্চ ২০১৯, রবিবার, ২:৫২

বোধ হয় এদের দু'একজন নিজেদের এই দুরাবিস্থা দেখে নিজেই নিজের চোখকে বিশ্বাস করতে পারছেনা, তাই কাল চশমা পরে কিছুটা আড়াল করতে চাচ্ছে।

Aziz
১০ মার্চ ২০১৯, রবিবার, ২:১৮

এমন সুযোগ বাংলাদেশেও চালু করা হোক। তাহলে বাংলাদেশের কিছু নারীরা অনেক খুশি হয়ে এই সুযোগকে কাজে লাগাবে আমার বিশ্বাস। কেননা এখনি ঢাকা শহরে দেখলে দেখা যাবে কিছু সংখ্যক নারী আছে তারা তাদের শরীরে কাপড় রাখতে অনেক সমস্যা অনুভব করে। অন্তত তাদের শরির দেখাতে কনো সমস্যা থাকবে না।তাছাড়া এমনেতেই কেয়ামতের খুব কাছে আমরা।

Mohammed Ali
৯ মার্চ ২০১৯, শনিবার, ১১:৩০

একেবারে নগ্ন না, কাহারও চোখে সানগ্লাস ছিল।

অন্যান্য খবর