× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ২০ মার্চ ২০১৯, বুধবার

ঝিনাইদহে অজ্ঞাত ৫ লাশের পরিচয় মেলেনি ৭ মাসেও

বাংলারজমিন

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি | ১১ মার্চ ২০১৯, সোমবার, ৮:৫১

ঝিনাইদহের বিভিন্ন স্থান থেকে উদ্ধার হওয়া ও হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে এসে মৃত্যুর শিকার ৫ ব্যক্তির পরিচয় ৭ মাসেও উদ্ধার হয়নি। পুলিশও কোনো কূলকিনারা করতে পারছে না। মৃত্যুর কারণ নির্ণয়ে রাসায়নিক পরীক্ষার জন্য ঢাকায় পাঠানো হলেও এখনো রিপোর্ট আসেনি। ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক অফিস সূত্রে এমন ৫টি লাশের তথ্য পাওয়া গেছে। সূত্র জানায় ২০১৮ সালের ২২শে সেপ্টেম্বর সদর উপজেলার ফুরসন্দি গ্রামে দিনমজুরের কাজ করতে এসে মোতালেব নামে এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়। কিন্তু তার শুধু নামটিই জানা সম্ভব হয়েছে। গ্রামের ঠিকানা আজও উদ্ধার হয়নি। একই বছরের ১০ অক্টোবর সদরের বিষয়খালী এলাকার নৃসিংহপুর গ্রামের সেচ কেনালের মধ্য থেকে বোরকা পরিহিত এক গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।
সাড়ে ৫ মাসেও অজ্ঞাত এই নারীর পরিচয় মেলেনি। তাকে শ্বসরোধ করে হত্যা করা হয়। তার হাত পা বাঁধা ছিল। ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালের সামনে থেকে অজ্ঞাত এক ব্যক্তিকে উদ্ধার করে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ৩০শে অক্টোবর তার মৃত্যু ঘটে। অজ্ঞাত এই ব্যক্তিরও পরিচয় উদ্ধার হয়নি। কোটচাঁদপুর উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্র থেকে অজ্ঞাত এক পুরুষকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে পাঠানো হলে ১০ই ডিসেম্বর তার মৃত্যু হয়। তারও নাম পরিচয় পায়নি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। সর্বশেষ চলতি বছরের ২৪শে ফেব্রুয়ারি ঝিনাইদহ শহরের সুইট হোটেলের পুকুর থেকে অজ্ঞাত এক ব্যক্তির লাশ উদ্ধর করে পুলিশ। ১৫ দিন অতিবাহিত হয়ে গেলেও অজ্ঞাত পুরুষ ব্যক্তিটির পরিচয় মেলেনি। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই রবি শংকর জানান, আমরা চেষ্টা করছি পরিচয় উদ্ধারের। ঝিনাইদহ সদর থানার ওসি মিজানুর রহমান খান জানান, অজ্ঞাত লাশের পরিচয় জানতে সব রকম চেষ্টা করা হচ্ছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর