× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ২০ মার্চ ২০১৯, বুধবার

রূপগঞ্জে গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যু আটক ২

বাংলারজমিন

স্টাফ রিপোর্টার, রূপগঞ্জ থেকে | ১১ মার্চ ২০১৯, সোমবার, ৯:০৬

 নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে ফারজানা আক্তার (২০) নামে এক গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশ ২ ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছে। শনিবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে উপজেলার কাঞ্চন পৌরসভার কেন্দুয়াপাড়া এলাকায় ঘটে এ ঘটনা। স্থানীয়রা জানান, তিনবছর পূর্বে উপজেলার কেন্দুয়াপাড়া এলাকার কমিজউদ্দিনের ছেলে আব্দুল মতিন পার্শ্ববর্তী হাটাব এলাকার কবির খন্দকারের মেয়ে ফারজানাকে ইসলামের শরিয়াহ মোতাবেক বিয়ে করেন। বর্তমানে ফারিয়া নামে দেড় বছরের এক কন্যা সন্তান রয়েছে তাদের। বছরখানেক আগে কাজের জন্য আব্দুল মতিন মালয়েশিয়া পাড়ি জমান। গত বৃহস্পতিবার হাটাব পিতার বাড়ি থেকে স্বামীর বাড়িতে আসে ফারজানা। শনিবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে শিশু ফারিয়ার কান্না শুনে মতিনের পিতা, বড় ভাইসহ আশপাশের লোকজন দরজা ভেঙে ফারজানার ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
খবর পেয়ে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল প্রেরণ করেন। এদিকে নিহতের মা শিমু আক্তার জানান, তার মেয়ের জামাতা মতিন বিদেশে যাবার পর থেকেই তিনি গবির বলে ফারজানাকে প্রতিনিয়ত তার শ্বশুর, শাশুড়ি, ভাসুর, ননদ মানসিকভাবে নির্যাতন করতো। শনিবার রাতে আমার মেয়ের সঙ্গে খুব খারাপ আচরণ করে তারা। তা সহ্য করতে না পেরে ফারজানা গলায় ফাস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। নিহতের মায়ের অভিযোগের ভিত্তিতেই পুলিশ মতিনের বড় ভাই শাহীন ও ভগ্নিপতি লোকমানকে গ্রেপ্তার করেন। এ ব্যাপারে থানার উপ-পরিদর্শক রিপন আলী খান জানান, ঘটনাটি আত্মহত্যা বলে মনে হলেও ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন পেলে প্রকৃত কারণ নির্ণয় করা সম্ভব হবে। নিহতের মা আত্মহত্যার প্ররোচনার অভিযোগে শ্বশুড়-শাশুড়িসহ ৭ জনকে আসামি মামলা করেছেন। তার অভিযোগের প্রেক্ষিতেই দুজনকে আটক করা হয়েছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর