× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ২৪ মে ২০১৯, শুক্রবার

তালতলীতে ছাত্রকে শিকলে বেঁধে নির্যাতন শিক্ষক আটক

বাংলারজমিন

তালতলী (বরগুনা) প্রতিনিধি | ১২ মার্চ ২০১৯, মঙ্গলবার, ৮:৫২

তালতলীতে মাদ্‌রাসা শিক্ষকের নির্যাতনের ভয়ে বার বার পালিয়ে যাওয়া ছাত্রকে ধরে এনে গত ৭ দিন পর্যন্ত শিকলবন্দি করে রাখার অভিযোগ ওঠে। পরে থানায় মামলা হলে অভিযুক্ত শিক্ষককে আটক করে পুলিশ। অংকুজানপাড়ায় কারিমিয়া হাবিবিয়া মাদ্‌রাসায় গত রোববার রাতে এ ঘটনা ঘটে। সরেজমিন গিয়ে জানা যায়, উপজেলার অংকুজানপাড়ায় কারিমিয়া হাবিবিয়া মাদ্‌রারাসায় ছাত্রদের শাসনের নামে নিয়মিত শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন চালানো হচ্ছে। বার বার মাদ্‌রাসা পালানো ছাত্র একই গ্রামের আবদুর রহমানের ১২ বছরের পুত্র মো. ইব্রাহিমকে মাদ্‌রাসা শিক্ষক হাফেজ মো. ফোরকান হাওলাদার ধরে এনে মাদ্‌রাসার একটি কক্ষে গলা ও পায়ের গোড়ালিতে শিকল দিয়ে বেঁধে রাখে ৭ দিন ধরে। চালায় শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন। স্থানীরা বিষয়টি তাৎক্ষণিক পুলিশ প্রশাসনকে জানালে। পুলিশ গত রোববার রাতে শিকলবন্দি শিশুটি উদ্ধার করে। পরে পুলিশ রাতেই ঐ মাদ্‌রাসার অভিযুক্ত শিক্ষক হাফেজ মো. ফোরকানকে গ্রেপ্তার করে।
এ ব্যাপারে নির্যাতনের শিকার মো. ইব্রাহিমের নানা হারুন বাদী হয়ে থানায় মামলা করেন। অভিযুক্ত শিক্ষক হাফেজ মো. ফোরকান হাওলাদারকে আদালতে মাধ্যমে প্রেরণের নির্দেশ দেন। তালতলী থানার এসআই খালেক জানান, শিকলে বেঁধে নির্যাতনের খবর পেয়ে পুলিশ ফোর্র্স পাঠিয়ে ছাত্র ইব্রাহিমকে উদ্ধার করি। আর হাফেজ মো. ফোরকানকে আটক করা হয়।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর