× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ২৪ মার্চ ২০১৯, রবিবার

ঘুরে আসুন ধামরাইয়ের মোহাম্মদী গার্ডেন

এক্সক্লুসিভ

আজাহারুল ইসলাম রাজু, ধামরাই (ঢাকা) থেকে | ১৩ মার্চ ২০১৯, বুধবার, ৫:৩৬

ঢাকার অতি কাছে মনোরম পরিবেশে ধামরাইয়ের মহিষাশী মোহাম্মদী গার্ডেন ও পিকনিক স্পটে  সব সময়ই দর্শনার্থীদের উপচেপড়া ভিড় থাকে। আর ঈদের সময়ে হাজার হাজার দর্শনার্থীর পদচারণায় মোহাম্মদী গার্ডেনটি মুখরিত হয়ে উঠেছে। শুধু ঈদ নয়, যেকোনো ছুটি, পিকনিক ও পরিবার পরিজন নিয়ে বেড়ানোর জন্য এটি একটি উপযুক্ত স্থান। জানা গেছে, প্রায় ১১ বছর আগে, সৌখিন শিল্পপতি এসকে আবদুস সালাম ধামরাইয়ের মহিষাশীতে মোহাম্মদী গার্ডেন ও পার্কটি প্রতিষ্ঠা করেন। প্রথমে জমির পরিমাণ কম থাকলেও বর্তমানে বিশাল এলাকা জুড়ে তৈরি করা হয়েছে এ পার্কটি। দর্শনার্থীদের নিরাপত্তার জন্য পার্কের চারদিকে উঁচু প্রাচীর নির্মাণ করা হয়েছে। পার্কের ভেতর পুকুরের কিনারা জুড়ে রয়েছে প্রসারিত ফুলের বাগান ও নানা প্রজাতির ফলফলাদির গাছ তথা সবুজের সমারোহ। রয়েছে মিনি চিড়াখানা, সেখানে আছে বানর, কুকুর, খরগোসসহ নানা প্রাণী।
এছাড়াও পার্কে শিশুসহ সব বয়সের মানুষের আনন্দ দেয়ার জন্য রয়েছে, সুইমিং পুল, ট্রেন, চর্কি, ওভারব্রীজ, মাটির তৈরি মহিষসহ বিভিন্ন ভার্স্কয। যা সকলের উপভোগের জন্য অন্যরকম একটি বিনোদন কেন্দ্র।
স্থানীয়রা জানান, ব্যাপক নিরাপত্তার থাকে পরিবার পরিজন ও স্কুল কলেজ, যে প্রতিষ্ঠান এখানে বেড়ানোর জন্য একটি উপযুক্ত স্থান। এলাকাবাসীর সহযোগিতার কারণে পার্কটি দ্রুত সুমান ছড়াচ্ছে।

মোহাম্মদী গার্ডেন ও পার্কের দায়িত্বে থাকা হুমায়ুন কবির জানান, ঢাকার অতি কাছে হওয়ায় কোলাহলমুক্ত মনোরম পরিবেশের কারণে পার্কটিতে বেড়ানোর জন্য উপযুক্ত। এ জন্য দেশের দূর-দূরান্ত থেকে হাজার হাজার দর্শনার্থী এখানে ভিড় করছে। এলাকার লোকজনও তাদের সহযোগিতা করেন। বর্তমানে এ পার্কে ঈদ উপলক্ষে প্রচণ্ড ভিড় লেগে আছে। এখানে প্রবেশ টিকিট ৩০ টাকা। ছোটদের জন্য ২০ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। দর্শনার্থীদের দেখাশোনার জন্য অর্ধশতাধিক কর্মকর্তা-কর্মচারী সার্বক্ষণিক নিয়োজিত আছে। এখানে টয়লেট, বাথরুমের অবস্থাও অনেক ভালো রয়েছে বলে তিনি জানান। এ পার্কে আসার জন্য ঢাকার গাবতলী বাস টার্মিনাল থেকে মানিকগঞ্জ-আরিচাগামী যেকোনো যাত্রীবাহী বাসে উঠে ধামরাইয়ের কালামপুর বাসস্ট্যান্ডে নেমে সংযোগ সড়ক সাটুরিয়া-বালিয়ার বাসে উঠে মহিষাশী বাজারে নেমেই ২০০ মিটার উত্তরেই মোহাম্মদী গার্ডেন। এছাড়া গাবতলী থেকে সরাসরি সাটুরিয়া-বালিয়ার বাসে উঠে মহিষাশী বাজারেও নামা যায়। ঢাকা থেকে আসতে সময় লাগে মাত্র দেড় থেকে দুই ঘণ্টা। বাস ভাড়া মাত্র ৫০ থেকে ৬০ টাকা।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর