× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ২৪ মে ২০১৯, শুক্রবার

কাজটা ভুটান ম্যাচেই সারতে চাইছে বাংলাদেশ

খেলা

সামন হোসেন, বিরাটনগর নেপাল থেকে | ১৪ মার্চ ২০১৯, বৃহস্পতিবার, ৯:২৭

স্বাগতিক নেপাল ও ভুটান ম্যাচ দিয়ে এরই মধ্যে মাঠে গড়িয়েছে নারী ফুটবলে দক্ষিণ এশিয়ার সেরা আসর সাফ চ্যাম্পিয়নশিপ। বিরাটনগরের শহীদ রঙ্গশালা স্টেডিয়ামে গতকাল শক্তিধর ভারত মালদ্বীপকে হারিয়েছে ছয় গোলের বড় ব্যবধানে। আজ শুরু হচ্ছে রানার্সআপ বাংলাদেশের মিশন। শুরুতেই ভুটানকে হারিয়ে সেমিফাইনাল নিশ্চিত করতে চাইছে বাংলাদেশ। রঙ্গশালায় ম্যাচটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় বিকাল সোয়া তিনটায়।
নারী ফুটবলযজ্ঞের আসরের এই জায়গাটা পর্যটকদের কাছে কাঠমাণ্ডু কিংবা পোখরার মতো পরিচিত নয়। তবে এখন একটু মেয়েদের ফুটবলের দিকে ঝুঁকেছে নগরী। এটাই বিরাটনগরের বীরত্ব প্রকাশের একটা সুযোগ। দশ হাজার ধারণ ক্ষমতার রঙ্গশালা স্টেডিয়ামে নেপালের প্রথম ম্যাচেই দর্শক উপচে পড়েছে। বাংলাদেশ ম্যাচেও তেমনটা হবে, সেটা আগেই ধরে নিয়েছেন বাংলাদেশের কোচ গোলাম রব্বানী ছোটন। তাই কোনো ঝুঁকি নিতে চাইছেন না ভুটান ম্যাচে। যা করার ভুটানকে হারিয়েই করতে হবে! কাল রঙ্গশালায় সেই তালিমই দিয়েছেন শিষ্যদের। এক ঘণ্টার ট্রেনিংয়ে ছোটন বলের চেয়ে টেকনিক্যাল অনুশীলনের দিকেই বেশি নজড় দিয়েছেন। গতকাল টিম হোটেল জেনিয়ালের লবিতে বসে ছোটনের সুরেই কথা বললেন বাংলাদেশ দলের টেকনিক্যাল ডিরেক্টর পল স্মলি। অন্যরা সাবিনা-কৃষ্ণাদের নিয়ে আশার কথা শোনালেও পল জানালেন বাস্তবতার কথা। বাস্তবতা মেনেই তার প্রথম টার্গেট ভুটানকে হারিয়ে সেমিফাইনাল নিশ্চিত করা।
ভারতের শিলিগুড়িতে সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের গত আসরে ভারতের গ্রুপে পরেও গ্রুপ সেরা হয়ে সেমিফাইনাল খেলেছিল বাংলাদেশ। সেটা সম্ভব হয়ে ছিল গ্রুপে আফগানিস্তানকে ৬ গোলে হারিয়ে ভারতের সঙ্গে গোলশূল্য ড্র করার কারণে। গ্রুপ সেরা হওয়াতেই সেমিফাইনালে শক্তিশালী নেপালকে এড়িয়ে ছিল বাংলাদেশ। যে কারণে প্রথমবার ফাইনাল খেলার সুযোগ পেয়েছিল লাল সবুজের বাংলাদেশ। এবারও সেমিফাইনালে ভারতকে এড়াতে চাইবেন ছোটন শিষ্যরা। সেটা করতে হলে ‘এ’ গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হতে হবে সাবিনাদের। সেক্ষেত্রে ভুটানকে চার গোলে হারাতে হবে। পাশাপাশি নেপালকে আটকাতে হবে। তবে ভুটান ম্যাচের আগে এতসব সমীকরণ নিয়ে ভাবতে চান না বাংলাদেশ দলের হেড কোচ গোলাম রব্বানী ছোটন। গতকাল রঙ্গশালা স্টেডিয়ামে অনুশীলন শেষে এই কোচ বলেন, ভুটানের বিপক্ষের ম্যাচটি আমাদের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আমরা সবাই জানি কাল আমরা জিতলে সেমি-ফাইনালে উঠবো। এজন্য আমাদের মূল ফোকাস কালকের ম্যাচ নিয়ে।’ এদিকে চোটের কারণে গতকাল অনুশীলন করেননি দলের অন্যতম সেরা মিডফিল্ডার কৃষ্ণারানী সরকার। পুরোটা সময়ই পায়ে বরফ লাগিয়ে বসে থাকতে দেখা গেছে তাকে। যদিও কৃষ্ণাকে  পাওয়ার আশা পুরোপুরি ছাড়েননি ছোটন। দল নিয়ে নারী ফুটবল দলের সফল এই কোচ বলেন, কৃষ্ণার জন্য এখনও একাদশ সাজাতে পারিনি। তবে এই ম্যাচে আমি ৫-২-৩ ফরমেশনে খেলবো। আমার মূল টার্গেট হলো নিজেদের জাল সুরক্ষা করে দ্রুত গোল বের করা।   
স্টেডিয়াম নিয়ে ছোটন বলেন, মাঠ শক্ত অনুশীলনে মেয়েরা কিছুটা সমস্যায় পড়েছে। তবে টুর্নামেন্ট ফিক্সড হয়ে গেছে। এখন আমাদের এ মাঠেই খেলতে হবে। এ নিয়ে আর বাড়তি চিন্তা না করাই ভালো। তাছাড়া মেয়েরা পেশাদার খেলোয়াড়। এ বছর তারা অনেক আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলেছে।
সাফ চ্যাম্পিয়নশিপে এ পর্যন্ত ভুটানের সঙ্গে দুই বার মুখোমুখি হয়েছে বাংলাদেশ। যার দুটিতেই জিতেছে লাল সুবজের প্রতিনিধিরা। ২০১০ সালে কক্সবাজারে অনুষ্ঠিত প্রথম আসরে ভুটানকে ৯-০ গোলে হারিয়েছিল বাংলাদেশ। দ্বিতীয় সাক্ষাৎটি ২০১৪ সালে করাচিতে। সেবার সুইনু প্রুর একমাত্র গোলে জয় পায় বাংলাদেশ। সাম্প্রতিক বষয়ভিত্তিক ফুটবলে ভুটানের সঙ্গে দুই বারের সাক্ষাতে ২২ গোল দিয়েছে তহুরা-মার্জিয়ারা। বষয়ভিত্তিক বিভিন্ন দলের প্রায় ১৭জন আছে এবারের বাংলাদেশ দলে। গত সাফে খেলা ফুটবলারের সংখ্যাটাও এর কাছাকাছি। এরপরও এই টুর্নামেন্টে বাংলাদেশ দলকে আন্ডারডগ বলছেন পল স্মলি। এই টুর্নামেন্টে অন্য দলগুলোর ফুটবলারদের গড় বয়স যেখানে ২৪ এর উপরে সেখানে বাংলাদেশের মাত্র ১৭। বিশের ওপর একমাত্র ফুটবলার সাবিনা খাতুন। তবে পলের বিশ্বাস এরা চার পাঁচ বছর পর বাংলাদেশের পতাকা অনেক উঁচুতে মেলে ধরবে। যার শুরুটা এই বিরাটনগরে হলে মন্দকি?

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর