× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ২৪ মার্চ ২০১৯, রবিবার

অনশন, অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে এক শিক্ষার্থী

প্রথম পাতা

বিশ্ববিদ্যালয় রিপোর্টার | ১৪ মার্চ ২০১৯, বৃহস্পতিবার, ১০:১৩

ডাকসু ও হল সংসদ নির্বাচনে কারচুপি ও জালিয়াতি হয়েছে দাবি করে নির্বাচনের পুনঃতফসিল ঘোষণা ও নির্বাচন সংশ্লিষ্টদের পদত্যাগের দাবিতে আমরণ অনশনে বসেছে  বিশ্ববিদ্যালয়ের সাত শিক্ষার্থী। তাদের মধ্যে পাঁচজন কেন্দ্রীয় ও বিভিন্ন হল সংসদে নির্বাচন করেছেন। মঙ্গলবার সন্ধ্যার দিকে তারা অনশনে বসেন।

অনশনে বসা শিক্ষার্থীরা হলেন- কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ২০১৩-১৪ শিক্ষাবর্ষের মীম আরাফাত মানব, একই বিভাগের চতুর্থ বর্ষের তাওহীদ তানজীম, পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শোয়েব মাহমুদ, পপুলেশন সায়েন্সের দ্বিতীয় বর্ষের মো. মাঈনউদ্দিন, দর্শন বিভাগের তৃতীয় বর্ষের অনিন্দ্য মণ্ডল, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের তৃতীয় বর্ষের রাফিয়া তামান্না এবং প্রাণিবিদ্যা বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের আল মাহমুদ তাহা। এর মধ্যে মীম আরাফাত মানব ডাকসুর কেন্দ্রীয় সংসদে প্রগতিশীল ছাত্র ঐক্য সমর্থিত প্যানেলে আন্তর্জাতিক সম্পাদক, তাওহীদ তানজীম স্বতন্ত্রভাবে ডাকসুতে ছাত্র পরিবহন সম্পাদক, শোয়েব মাহমুদ শহীদুল্লাহ হল সংসদে প্রগতিশীল ছাত্র ঐক্য মনোনীত সাহিত্য সম্পাদক, অনিন্দ্য মণ্ডল জগন্নাথ হলে প্রগতিশীল ছাত্র ঐক্য সমর্থিত সদস্য এবং মো. মাঈনউদ্দিন হাজী মুহম্মদ মুহসীন হল সংসদে প্রগতিশীল ছাত্র ঐক্য ও স্বতন্ত্র জোট সমর্থিত সংস্কৃতি সম্পাদক প্রার্থী ছিলেন।

এছাড়া, রাফিয়া তামান্না ও আল মাহমুদ তাহা কোনো পদে নির্বাচন করেননি। তবে অনশনে বসে অনিন্দ্য মণ্ডল অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। গতকাল বিকাল সাড়ে চারটায় তিনি ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন।
বর্তমানে তিনি সেখানে চিকিৎসাধীন। অনশনের কারণ জানতে চাইলে শোয়েব মাহমুদ বলেন, ১১ই মার্চ ডাকসু নির্বাচনে জালিয়াতি ও ভোটচুরি হয়েছে। নির্বাচন সুষ্ঠু হয়নি। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকরা এ নির্বাচনের দায়িত্বে থাকে। তারা দায়িত্বে থাকার পরও এ ধরনের নির্বাচন অপ্রত্যাশিত ছিল। তিনি বলেন, এ নির্বাচনে জড়িত শিক্ষকসহ সবাইকে নির্বাচনে জালিয়াতির দায় স্বীকার করে পদত্যাগ করতে হবে। একই সঙ্গে আমাদের দাবি মোতাবেক ডাকসু নির্বাচনের পুনঃতফসিল ঘোষণা করতে হবে। দাবি মানা না হলে আমরা আমরণ অনশন করবো।

এদিকে অনশনকারীদের পাশেই ছাত্রলীগের কয়েকজন কর্মী প্ল্যাকার্ড নিয়ে অবস্থান নেন। নতুন করে নির্বাচন দাবি করা শিক্ষার্থীদের বিরুদ্ধে অবস্থান বলে তারা জানিয়েছেন।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর