× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ২৪ মে ২০১৯, শুক্রবার

‘অজেয়’ ন্যু ক্যাম্পে মেসি ম্যাজিক

খেলা

স্পোর্টস ডেস্ক | ১৫ মার্চ ২০১৯, শুক্রবার, ৯:১৭

আগের রাতে অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের বিপক্ষে দুর্দান্ত হ্যাটট্রিক নিয়ে জুভেন্টাসকে কোয়ার্টার ফাইনালে তোলেন মেসির চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। বুধবার মেসির দিকে চোখ ছিল সবার। ভক্তদের হতাশ করেননি মেসিও। এদিন মেসি নিজে করলেন দুই গোল। আর দুই গোল বানিয়ে দিলেন সতীর্থদের। লিওনেল মেসির জাদুকরী নৈপুণ্যে অলিম্পিক লিঁওকে উড়িয়ে উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লীগের কোয়ার্টার ফাইনালে উঠলো বার্সেলোনা। আসরে নিজ মাঠে নিজেদের ‘অজেয়’ চেহারাটা উজ্জ্বল করলো আরো। বুধবার ঘরের মাঠ ন্যু ক্যাম্পে ফরাসি ক্লাব লিঁওকে ৫-১ গোলে উড়িয়ে দেয় বার্সেলোনা। লিঁওর মাঠে গোলশূন্য সমতায় শেষ হয়েছিল দু’দলের প্রথম লেগের লড়াই। এ নিয়ে টানা ১২ বার চ্যাম্পিয়ন্স লীগের কোয়ার্টার ফাইনালের কৃতিত্ব দেখালো স্প্যানিশ জায়ান্টরা। নিজেদের ন্যু ক্যাম্প মাঠে টানা ৩০ ম্যাচে অপরাজিত (২৭ জয়, ৩ ড্র) থাকার রেকর্ড গড়লো বার্সেলোনা। এতে তারা ভেঙে দিলো জার্মান জায়ান্ট বায়ার্ন মিউনিখের রেকর্ড। নিজেদের মাঠে টানা ২৯ ম্যাচে অপরাজিত থাকার কীর্তি রয়েছে বায়ার্নের।
এদিন ম্যাচের ১৭তম মিনিটে মেসির পেনাল্টি গোলে এগিয়ে যায় বার্সা। দারুণ শটে বল জালে জড়ান মেসি। ৩১তম মিনিটে সুয়ারেজের পাস থেকে গোল নিয়ে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন ব্রাজিলিয়ান মিডফিল্ডার ফিলিপ্পে কুটিনহো। তবে দ্বিতীয়ার্ধে বার্সাকে চাপে ফেলে সফরকারী লিঁও। ম্যাচের ৫৮তম মিনিটে এক গোল শোধ করেন লিঁও তারকা লুকাস টুসার্ট। ম্যাচটি ২-২ গোলের সমতায় শেষ হলে বার্সাকে পেছনে ফেলে কোয়ার্টার ফাইনালে উঠে যেতো লিঁও। তবে ৭৮তম মিনিটে নিজের দ্বিতীয় গোল করে বার্সা শিবিরে স্বস্তি ফেরান মেসি। মাঝমাঠ থেকে বল পায়ে প্রায় ৩০ গজ দৌড়ে এসে প্রতিপক্ষ পাঁচ ডিফন্ডারকে বোকা বানিয়ে গোল আদায় করেন এ আর্জেন্টাইন গ্রেট। এ নয়ে ন্যু ক্যাম্পে চ্যাম্পিয়ন্স লীগে ৬১ ম্যাচে ৬২ গোল পেলেন লিওলেন মেসি। ৮১ মিনিটে স্প্যানিয়ার্ড ডিফেন্ডার জেরার্ড পিকে, ৮৬ মিনিটে উসমান দেম্বেলে গোল করলে বড় জয় নিশ্চিত হয় বার্সেলোনার। বার্সার শেষ দুই গোল আসে মেসির অ্যাসিস্ট থেকে। এ নিয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লীগের ১২ মৌসুমে নকআউট পর্বে গোলের কৃতিত্ব দেখালেন মেসি। আসরে এমন কীর্তি রয়েছে আর কেবল ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর (১৩ মৌসুম)। আর আসরের ইতিহাসে এ নিয়ে পাঁচ ম্যাচে কমপক্ষে ৪ গোলে অবদান রাখলেন মেসি। মেসির এমন সর্বশেষ কীর্তিটি ছিল ২০১২’র মৌসুমে। সেবার জার্মান দল বায়ার লেভারকুসেনের বিপক্ষে বার্সার ৭-১ ব্যবধানের জয়ে মেসি একাই করেন ৫ গোল। তবে আসরের একই ম্যাচে মেসির জোড়া গোল ও জোড়া অ্যাসিস্টের প্রথম ঘটনা এটি।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর