× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ২৪ মার্চ ২০১৯, রবিবার

হামলার ঘটনায় যা বললেন খালেদ মাসুদ

খেলা

স্পোর্টস ডেস্ক | ১৫ মার্চ ২০১৯, শুক্রবার, ২:৩৯

ক্রাইস্টচার্চে হামলার নৃশংসতা খুব কাছে থেকে দেখেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। টিম ম্যানেজার খালেদ মাসুদ পাইলটও ছিলেন তামিম-মুশফিকদের সঙ্গে। ওই ঘটনার বর্নণায় দিয়েছেন তিনি।
অক্ষত অবস্থায় টিম হোটেলে ফেরার পর পাইলট বলেন, ‘আপনারা অনেকেই হয়ত দেখেছেন। যা আসলে আমরা কেউ আশা করি না। আমরা খুব লাকি। বাসে অনেকজন ছিলাম। প্রায় ১৭ জন। যারা নামাজ পড়তে যাচ্ছিলাম।
দু-তিনজন হয়ত হোটেলে ছিল। আমরা মসজিদের খুব কাছে ছিলাম, মাত্র ৫০ গজ দূরে। খুবই লাকি আমরা। যদি তিন চার মিনিট আগে আসতাম, হয়ত বড় একটা দুর্ঘটনা ঘটে যেত। সেখান থেকে অক্ষত অবস্থায় বেরিয়ে আসা কঠিনই ছিল।

প্রায় আট দশ মিনিট বাসে ছিলাম আমরা। মাথা নিচু করে ছিলাম। এই ভয়ে যে ফায়ার হতে পারে। টেররিস্ট যদি বাসে ঢুকে এলো পাতাড়ি গুলি ছুঁড়ে? আমরা পেছনের সাইড দিয়ে জোরে জোরে হেঁটে, বলতে গেলে অনেকটা দৌড়ে ড্রেসিংরুমে চলে যাই। সেখানে আলোচনা হয় কিভাবে আমরা এ জায়াগা থেকে বেরোবো। নিউজিল্যান্ড কর্তৃপক্ষ যথাসাধ্য চেষ্টা করেছে আমাদের একসঙ্গে নিরাপদ জায়গায় নিয়ে যেতে। তাদের তো কোনো দোষ নেই। তারা যে কালচারে অভ্যস্ত সেভাবেই চেষ্টা করেছে।’

‘বাস থেকে বেরিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্তটা সঠিক ছিল। কারণ, পরবর্তীতে আমরা ভিডিওতে দেখি যে, বাইরে এসে রাস্তায় লোকজনকে গুলি করেছে। বাংলাদেশের সবাই খুব উদ্বিগ্ন ছিল আমাদের নিয়ে। পুরো টিম আমাদের হোটেলে আছে। সবাই সুস্থ আছে। আগামীকাল যে ম্যাচটা ছিল সেটা ক্যানসেল করা হয়েছে। তারা অফিসিয়ালি আমাদের ফোন করে জানিয়েছে সেটা। খুব শিগগিরই হয়ত অফিসিয়ালি মেইল পাঠাবে। ’

‘পরিকল্পনাও হয়ে গেছে কিভাবে দেশে ফিরবো। আমাদের লজিস্টিকের সঙ্গে যোগাযোগ করা হচ্ছে। আমাদের টিকিটগুলো কনফার্ম করে দ্রুত যেন এখান থেকে বের হতে পারি সে ব্যবস্থা করার চেষ্টা চলছে। আর সারাক্ষণই আমাদের সঙ্গে বোর্ডের যোগাযোগ রয়েছে। বোর্ড প্রেসিডেন্ট পাপন ভাইসহ বোর্ডের অন্যান্য সদস্যরা সারাক্ষণ দলের সবার সঙ্গে যোগাযোগ করছেন। আমাদের দেখভাল করার জন্য, সাহস দেয়ার জন্য বোর্ডকে ধন্যবাদ জানাই।’

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর