× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ২০ মার্চ ২০১৯, বুধবার

হবিগঞ্জের নদী রক্ষায় বাপার স্মারকলিপি

বাংলারজমিন

স্টাফ রিপোর্টার, হবিগঞ্জ থেকে | ১৬ মার্চ ২০১৯, শনিবার, ৮:৫৪

হবিগঞ্জের খোয়াইসহ বিভিন্ন নদী রক্ষায় জেলা প্রশাসক বরাবরে স্মারকলিপি প্রদান করেছে বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন (বাপা) হবিগঞ্জ ও খোয়াই রিভার ওয়াটারকিপার। গতকাল সকালে জেলা প্রশাসক বরাবরে হবিগঞ্জের খোয়াই নদী, পুরাতন খোয়াই, সুতাং, সোনাই নদীসহ অন্যান্য নদী সংরক্ষণের দাবিতে স্মারকলিপিটি প্রদান করা হয়। জেলা প্রশাসনের পক্ষে স্মারকলিপি গ্রহণ করেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) ফজলুল হক পাভেল। স্মারকলিপি গ্রহণ করে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক জানান, পুরাতন খোয়াই নদীকে ঘিরে ইতিমধ্যেই পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে। পুরাতন খোয়াই নদী পুনরুদ্ধার, সৌন্দর্য বর্ধনের জন্য প্রকল্প করে পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ে প্রেরণ করা হয়েছে। তিনি শিল্পবর্জ্য দূষণরোধসহ অন্যান্য নদী রক্ষায় যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণের আশ্বাস দেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন বাপা হবিগঞ্জের সহসভাপতি অ্যাডভোকেট মনসুর উদ্দিন আহমেদ ইকবাল, তাহমিনা বেগম গিনি, সাধারণ সম্পাদক ও খোয়াই রিভার ওয়াটারকিপার তোফাজ্জল সোহেল, অ্যাডভোকেট বিজন বিহারী দাস, ডা. আলী আহসান চৌধুরী পিন্টু, আমিনুল ইসলাম, সাইফুল ইসলাম, ইফতেখার হোসেন প্রমুখ। পরে হবিগঞ্জের সংকটাপন্ন সুতাং নদী পরিদর্শন করেন বাপা হবিগঞ্জ ও খোয়াই রিভার ওয়াটারকিপার এর প্রতিনিধি দল।
এ সময় প্রতিনিধি দল দেখতে পান সুতাং নদীর পানি কালো হয়ে আছে এবং মারাত্মক দুর্গন্ধ ছড়াচ্ছে। অসহনীয় দুর্গন্ধের ভেতর দিনাতিপাত করতে বাধ্য হচ্ছেন হাজার হাজার মানুষ। কারখানার অপরিকল্পিত বর্জ্য নিষ্কাশনের কারণে কয়েকটি ইউনিয়নের গ্রামের মানুষের জীবনযাত্রা দুর্বিষহ হয়ে পড়েছে। মারাত্মক স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে রয়েছেন ওইসব গ্রামের প্রায় লাখ মানুষ। প্রতিনিধি দল সুতাং নদী পাড়ের মানুষের সঙ্গে কথা বলেন। দূষণের ফলে সুতাং নদী পাড়ের গ্রামগুলোতে চরম পরিবেশ ও মানবিক বিপর্যয় নেমে এসেছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর