× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ২৪ মে ২০১৯, শুক্রবার

‘নিরাপত্তা ব্যবস্থা বলতে কিছুই ছিল না’

খেলা

স্পোর্টস রিপোর্টার | ১৬ মার্চ ২০১৯, শনিবার, ৯:০৩

ক্রাইস্টচার্চে সন্ত্রাসী হামলার পর বিদেশ সফরে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। গতকাল বাংলাদেশ দল যখন টিম বাসে করে জুমার নামাজের উদ্দেশে মসজিদে যাচ্ছিল, তখন তাদের সঙ্গে কোনো নিরাপত্তারক্ষী ছিল না। বিষয়টি অপ্রত্যাশিত বলে জানান বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। গতকাল গুলশানে নিজ বাসভবনে এক সংবাদ সম্মেলনে পাপন বলেন, ভবিষ্যতে নিরাপত্তার নিশ্চয়তা পেলে তবেই বিদেশ সফরে যাবে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল।
বাংলাদেশে কোনো দল সফরে এলে তাদের সর্বোচ্চ নিরাপত্ত নিশ্চিত করে বিসিবি। তাহলে নিউজিল্যান্ডে কেন পর্যাপ্ত নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হলো না বাংলাদেশি ক্রিকেটারদের জন্য? প্রশ্নটা ওঠা খুবই স্বাভাবিক। হামলায় যদি বাংলাদেশি ক্রিকেটারদের কেউ হতাহত হতো, তাহলে সেই দায় কি নিউজিল্যান্ড সরকারকে নিতে হতো না? শুধু নিউজিল্যান্ড নয়, অন্যান্য দেশগুলোতেও তেমন নিরাপত্তা দেয়া হয় না বাংলাদেশি ক্রিকেটারদের। পাপন তাই হতাশা প্রকাশ করে বলেন, ‘আমাদের দেশে কোনো দল এলে, ওরা যেমন নিরাপত্তা চায় আমরা তেমন নিরাপত্তাই নিশ্চিত করি। রীতিমতো ভিভিআইপি মর্যাদা দেয়া হয় বিদেশি খেলোয়াড়দের। কিন্তু বিদেশে বাংলাদেশ দলের জন্য তেমন নিরাপত্তা ব্যবস্থা থাকে না। আজও নিরাপত্তা ব্যবস্থা বলতে কিছুই ছিলো না। ঘটনাস্থলে পুলিশ যেতে যে সময় লেগেছে, এটাই তো অবাক করার মতো! আমার মনে হয় না আমাদের দেশে বা আশপাশের কোনো দেশে এমন কিছু হলে পুলিশ আসতে এতো সময় লাগতো।’
ক্রাইস্টচার্চ হামলার পর বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের নিরাপত্তার ব্যাপারে আরো ভাবতে হবে বলে জানিয়েছেন বিসিবি’র সভাপতি। ভবিষ্যতে বিদেশ সফরে নিরাপত্তা নিশ্চিত করার কথাও বলেন তিনি। পাপন বলেন, ‘এখন বাংলাদেশে দলের জন্য সিকিউরিটি ম্যানেজারের কথাও ভাবা হচ্ছে। এমন পরিস্থিতিতে এর আগে কখনো পড়েনি বাংলাদেশ দল। তাই এইসব নিয়ে বিসিবি কখনো ভাবেনি। এখন থেকে বিদেশ সফরে গেলে ক্রিকেটারদের জন্য নিরাপত্তার একটি মানদণ্ড তৈরি করে দেয়া হবে। যদি সেই স্ট্যান্ডার্ডের নিরাপত্তা দেয়া না হয়, তাহলে আমরা সিরিজ খেলতে যাব না।’
আগামী ৩০শে মে শুরু হতে যাচ্ছে আইসিসি ওয়ানডে বিশ্বকাপ। বিশ্বকাপকে সামনে রেখে বাংলাদেশ দলের নিরাপত্তা নিয়ে পাপন বলেন, ‘বিশ্বকাপের এমনিতেই আইসিসির সর্বোচ্চ নিরাপত্তা বেষ্টনী থাকে। আমার বিশ্বাস এই ঘটনার পর তা আরো জোরদার করা হবে।’

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর