× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ২৪ মার্চ ২০১৯, রবিবার

সন্ত্রাসবাদের কোনো ধর্ম নেই

শেষের পাতা

মানবজমিন ডেস্ক | ১৬ মার্চ ২০১৯, শনিবার, ৯:২০

৯/১১ পরবর্তীতে বর্তমানে যে ইসলামভীতি বিরাজ করছে, ক্রমবর্ধমান সন্ত্রাসের জন্য আমি তাকেই দায়ী করবো। যেখানে একজন মুসলিম যেকোনো সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড চালালে তার জন্য ইসলাম ও সামগ্রিকভাবে ১৩০ কোটি মুসলিমকে দায়ী করা হয়। মুসলিমদের বৈধ রাজনৈতিক লড়াইকে খর্ব (ডিমোনাইজ) করতে ইচ্ছাকৃতভাবে এসব করা হয়েছে। নিউজিল্যান্ডে মসজিদে সন্ত্রাসী হামলায় কমপক্ষে ৪৯ জন নিহত হওয়ার পর এর নিন্দা জানাতে গিয়ে টুইটারে একথা বলেছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। তার পাশাপাশি নিন্দা প্রকাশ করেছেন প্রেসিডেন্ট আরিফ আলভি ও অন্য রাজনীতিকরা। ইমরান খান আরো বলেছেন, নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে মসজিদে সন্ত্রাসী হামলায় আমি বেদনাহত ও কঠোর নিন্দা জানাই। সব সময় আমরা যা বলে এসেছি, তা আবার বলছি: সন্ত্রাসবাদের কোনো ধর্ম নেই। হতাহত ও তাদের পরিবারবর্গের জন্য প্রার্থনা করি।


প্রেসিডেন্ট আরিফ আলভি টুইটে বলেছেন, ক্রাইস্টচার্চে ভয়াবহ হত্যাযজ্ঞে বেদনাহত ও শোকার্ত। ভিকটিমদের জন্য আমার প্রার্থনা। ঘৃণা একবার ছড়িয়ে পড়লে তা বন্ধ করা কঠিন। কঠিন সময়।

নিন্দা জানিয়েছেন পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মাহমুদ কুরেশিও। তিনি ওই হামলাকে বিয়োগান্তক সন্ত্রাসী হামলা বলে মন্তব্য করেছেন। বলেছেন, এ হামলার কঠোর নিন্দা জানান তিনি। একে হায়েনার হামলা আখ্যায়িত করে তিনি বলেন, হায়েনার আক্রমণে নিষ্পাপ প্রাণহানিতে নিন্দা জানাই।

নিন্দা জানিয়েছেন পাকিস্তান পিপলস পার্টির (পিপিপি) চেয়ারম্যান বিলাওয়াল জারদারি ভুট্টো। তিনি এ হামলাকে বর্বর, সহিংস সন্ত্রাস বলে আখ্যায়িত করেছেন। তিনি বলেছেন, শ্বেতাঙ্গ আধিপত্যবাদ ও ইসলামভীতির ফলে এ হামলা বৃদ্ধি পাচ্ছে। এটা দুর্ভাগ্যজনক।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর