× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ২৬ এপ্রিল ২০১৯, শুক্রবার
ভোটের আগে মমতার বিস্ফোরক অভিযোগ

পশ্চিমবঙ্গে কংগ্রেসকে সাহায্য করছে আরএসএস

ভারত

কলকাতা প্রতিনিধি | ১১ এপ্রিল ২০১৯, বৃহস্পতিবার, ১২:৫৭

উত্তরবঙ্গে প্রচারে গিয়ে তৃণমূল কংগ্রেস নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছিলেন, বিজেপি, কংগ্রেস ও বামরা তিন ভাই। আরও বলেছিলেন, কংগ্রেসের জন্যই বিজেপির বাড়বাড়ন্ত। কিন্তু বুধবার নদীয়ার চোপড়ায় এক জনসভায় বিস্ফোরক অভিযোগ করেছেন কংগ্রেসের বিরুদ্ধে। মমতা এদিন বলেছেন, কংগ্রেসকে সাহায্য করছে আরএসএস। আরএসএস হিন্দুবাদী বিজেপির প্রধান মাথা হিসেবেই পরিচিত। অবশ্য মমতার প্রধান আক্রমণের নিশানা ছিলেন বহরমপুর, জঙ্গিপুর এবং দার্জিলিংয়ের তিন কংগ্রেস প্রার্থী অধীর চৌধুরী, অভিজিৎ মুখোপাধ্যায় এবং শঙ্কর মালাকার। মুখ্যমন্ত্রী অবশ্য সরাসরি কারও নাম বলেন নি।

মমতা বলেছেন, কংগ্রেস ও বিজেপির মিল হয়েছে।
বহরমপুরে কংগ্রেসের নেতা আরএসএস-এর মদতে ভোটে লড়ছেন। তেমনই জঙ্গিপুরে প্রণব মুখোপাধ্যায়ের ছেলে আরএসএস-এর মদতে লড়ছেন। দার্জিলিংয়ের কংগ্রেস প্রার্থীও আরএসএস-এর সাহায্য নিচ্ছেন। এরপরেই জনগণের উদ্দেশ্যে তিনি বলেছেন, আপনারা কি চান আরএসএস-কে সাহায্য করতে? উল্লেখ্য, বহরমপুর এবং জঙ্গিপুর দু’টি কেন্দ্রই সংখ্যালঘু অধ্যুষিত। জঙ্গিপুরে একমাত্র কংগ্রেস ছাড়া তৃণমূল, বিজেপি এবং বাম তিন দলই সংখ্যালঘু প্রার্থী দিয়েছে। তবে এদিন মমতার অভিযোগের জবাবে প্রণববাবুর পুত্র অভিজিৎ মুখোপাধ্যায় বলেছেন, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানছেন কী ভাবে যে, আমরা আরএসএস-এর সঙ্গে কথা বলছি, যোগাযোগ রাখছি? উনি কি আমাদের ফোন ট্র্যাপ করছেন নাকি গোয়েন্দাগিরি করছেন। আর বহরমপুরের কংগ্রেস প্রার্থী অধীর চৌধুরি তীব্র প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে বলেছেন, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কি আরএসএস-এর কোর কমিটির সদস্য? না হলে উনি জানছেন কী ভাবে যে আমাকে আরএসএস মদত দিচ্ছে। 

আসলে হাস্যকর সব কথা বলে উনি নিজেই বিজেপির সঙ্গে বোঝাপড়ার রাস্তাটা খোলা রাখতে চাইছেন। চোপড়ায় ভাষণে মমতা শুধু কংগ্রেস ও আরএসএস যোগ নিয়েই নয়, আরএসএস এবং বিজেপি রাজ্যের সংখ্যালঘুদের উপর অত্যাচার করছে বলেও অভিযোগ করেছেন। তিনি বলেছেন, সংখ্যালঘুদের উপর অত্যাচার করেছে বিজেপি ও সঙ্ঘ। গোরক্ষার নামে অত্যাচার, গণহত্যা হয়েছে। এখন বলছে আমি চৌকিদার। এই চৌকিদার চোর। আরএসএস নেতা জিষ্ণু বসু পাল্টা অভিযোগ করেছেন, তৃণমূল সরকারের আমলে রাজ্যে একের পর এক দাঙ্গা হয়েছে। সে সব থেকে মানুষের চোখ সরানোর জন্যই মুখ্যমন্ত্রী বারবার আরএসএসকে টার্গেট করছেন।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর