× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ১৮ জুলাই ২০১৯, বৃহস্পতিবার

নাক ফুল না পরায়

ষোলো আনা

প্রনব কর্মকার | ১২ এপ্রিল ২০১৯, শুক্রবার, ৮:২০

বিয়ে ঘিরে আমাদের সমাজে প্রচলিত আছে নানান কুসংস্কার। বিশেষ করে গ্রামাঞ্চলে এসব কুসংস্কারের প্রকোপ অত্যধিক। যেমন শনিবার, মঙ্গলবার, অমাবস্যা ও পৌষ-কার্তিক মাসে করা যাবে না বিয়ে। আর অমঙ্গল ডেকে আনে জন্মদিনের দিনের বিয়েও। আবার বন্ধ্যা নারীকে যাত্রায় না দেখা ও দাওয়াত দেয়াকে ভাবা হয় অশুভ। নতুন স্ত্রীকে বসতে দিতে হবে নরম স্থানে। এতে তার মেজাজ নরম থাকবে।

বরের পুরুষ কোনো আত্মীয়, বিশেষ করে দুলাভাই নতুন বউকে কোলে তুলে বাসর ঘর পর্যন্ত পৌঁছে দেবেন।
বরের ভাবি ও অন্য যুবতি মেয়েরা বরকে সমস্ত শরীরে হলুদ মাখিয়ে গোসল করাবেন। নতুন বউ প্রথম শ্বশুর বাড়িতে আসার সময় মাটিতে পা রেখে প্রবেশ করবে। এ ছাড়াও উভয়ের কাপড়ের মধ্যে গিট লাগানো হয়।
সেই সঙ্গে গ্রামাঞ্চলে ব্যাপকভাবে পরিচিত স্ত্রী চুড়ি বা নাকফুল না পরলে স্বামীর হায়াত কমে যায়।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
Anis
১১ মে ২০১৯, শনিবার, ৩:২২

কথা গুলো কসংস্কার হলেও সত্য এ জন্য যে,এখন সে বিবাহিত,কারো ঘরের বউ,এই কথা গুলো তাকে বারবার মনে করে দেয় যেআমি এখন বিবাহিত,আমার স্বামী আছে,আগের মত আর চলাফেরা করা যাবে না।

অন্যান্য খবর