× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ২৬ এপ্রিল ২০১৯, শুক্রবার

শেখ কামাল টুর্নামেন্টের লোগো উন্মোচন

খেলা

স্পোর্টস রিপোর্টার | ১৪ এপ্রিল ২০১৯, রবিবার, ৮:৫৯

জৌলুস হারিয়ে ফেলা ফুটবলকে ফের জাগানোর চেষ্টা করছে বাংলাদেশ জেলা ও বিভাগীয় ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন (বিডিডিএফএ)। জেলায় জেলায় লীগ আয়োজন করেছে সংস্থাটি। এবার তারই ধারাবাহিকতায় যুবাদের নিয়ে অনুষ্ঠিত হচ্ছে শেখ কামাল অনূর্ধ্ব-২০ জাতীয় ফুটবল টুর্নামেন্ট। দেশজুড়ে ফুটবলার বাছাইয়ের পর মাঠে গড়াচ্ছে টুর্নামেন্টের খেলা। ১৭ই এপ্রিল শুরু হবে এই টুর্নামেন্ট। যার লোগো উন্মোচন হলো গতকাল রাজধানীর পূর্বানী হোটেলে। শেখ কামালের অবয়ব নিয়ে তৈরি লোগোটি উন্মোচন করেন বঙ্গবন্ধু মেমোরিয়াল ট্রাস্টের সদস্য সচিব শেখ হাফিজুর রহমান। লোগো উন্মোচন অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন বিডিডিএফএ’র মহাসচিব তরফদার মো. রুহুল আমিন।
লোগো উন্মোচন শেষে প্রধান অতিথি শেখ হাফিজুর রহমান বলেন, ‘বাংলাদেশে তারুণ্যের প্রতীক হিসেবে শেখ কামাল চিরদিনই স্মরণীয় হয়ে থাকবেন।
তার চিন্তা চেতনায় সর্বদাই ছিল সৃষ্টিশীল উদ্ভাবনী বৈশিষ্ট্য। আসন্ন শেখ কামাল অ-২০ ফুটবল বাংলাদেশে তরুণদের মাঝে নতুন জাগরণ সৃষ্টি করবে। যা শেখ কামালের চিন্তা চেতনার সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ। আমি এই টুর্নামেন্টের সর্বাঙ্গীন সাফল্য কামনা করি।’ বিডিডিএফএ’র মহাসচিব তরফদার রুহুল আমিন বলেন, ‘জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের পরিবার খেলাধূলার সঙ্গে নিবিড়ভাবে জড়িত। আজ দেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ক্রীড়াপ্রেমী হওয়া সত্ত্বেও ফুটবল এগোয়নি। বরং আমি বলবো পিছিয়েছে। আমরা এই অবস্থার পরিবর্তন চাই। দেশের ফুটবলে নতুন জাগরণ সৃষ্টি করার জন্যই আমরা শেখ কামাল অনূর্ধ্ব-২০ ফুটবল টুর্নামেন্ট আয়োজন করছি।’ দেশের ৮টি বিভাগের ৬৪ জেলার প্রায় ৭০০ জন ফুটবলার থেকে ৮টি বিভাগের জন্য ২৪০ জন ফুটবলার প্রাথমিকভাবে বাছাই করা হয়। পরবর্তীতে ১৮ সদস্যের চূড়ান্ত স্কোয়াড ঘোষণা করা হয়। যারা নিজ নিজ বিভাগকে প্রতিনিধিত্ব করবে। বাছাই পর্ব শুরু হয়েছিল গত বছরের সেপ্টেম্বরে। ৪৫ দিন আবাসিক ক্যাম্প করার পর খেলোয়াড়রা এখন প্রস্তুত চূড়ান্ত লড়াইয়ের জন্য। ক-গ্রুপে নড়াইল ভেন্যুতে খেলছে খুলনা, ঢাকা, রংপুর ও বরিশাল। খ-গ্রুপে নাটোর ভেন্যুতে খেলবে রাজশাহী, চট্টগ্রাম, সিলেট ও ময়মনসিংহ। ১৭-২২ এপ্রিল হবে গ্রুপ পর্ব। ২৫ ও ২৬ এপ্রিল কক্সবাজারে হবে দু’টা সেমিফাইনাল এবং ২৮ এপ্রিল অনুষ্ঠিত হবে ফাইনাল। ফাইনালের আগের দিন ২৭ এপ্রিল কক্সবাজারে অনুষ্ঠিত হবে ফুটবলের মহাসম্মেলন। এই সম্মেলনে অংশ নেবেন জেলা, বিভাগ, ক্লাব, শিক্ষা বোর্ড ও বিশ্ববিদ্যালয়ের ফুটবল সংগঠকরা।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর