× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ২৬ এপ্রিল ২০১৯, শুক্রবার

পশ্চিমবঙ্গে নির্বাচনী প্রচারণায় অংশ নিয়ে বিতর্কে ফেরদৌস

বিনোদন

কলকাতা প্রতিনিধি | ১৬ এপ্রিল ২০১৯, মঙ্গলবার, ৮:২৯

পশ্চিমবঙ্গের একটি লোকসভা কেন্দ্রে বাংলাদেশি অভিনেতা ফেরদৌসের নির্বাচনী প্রচারে রোড শো করা নিয়ে বিতর্ক তৈরি হয়েছে। বিদেশি অভিনেতার এই ভাবে সরাসরি রাজ্যের শাসক দলের হয়ে নির্বাচনী প্রচারে অংশ নেয়া আদৌ নীতি সম্মত কি না সেই প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। সোস্যাল মিডিয়াতে রোড শোর ছবি সহ খবর প্রকাশ্যে আসতেই সমালোচনার ঝড় বইতে শুরু করেছে। গত রোববার উত্তরবঙ্গের রায়গঞ্জে একটি রোড শোয়ের আয়োজন করেছিল রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস। সেই রোড শোয়ের প্রধান আকর্ষণ ছিলেন বাংলাদেশের জনপ্রিয় অভিনেতা ফেরদৌস। সঙ্গে অবশ্য টালিগঞ্জের অঙ্কুশ ও পায়েলও ছিলেন। ছিলেন প্রার্থী স্বয়ং। দেখা গেছে, ফেরদৌস  ট্রাকের উপরে দাঁড়িয়ে হাত নাড়ছেন।
হাতজোড় করে অভিনন্দন জানাচ্ছেন।  তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী কানাইয়ালাল আগরওয়ালের হয়ে ভোট দেয়ার আবেদনও জানিয়েছেন। এদিন রায়গঞ্জের পাশাপাশি হেমতাবাদেও আরেকটি রোড শো-এ টালিগঞ্জের সহ অভিনেতাদের সঙ্গে অংশ নিয়েছেন ফেরদৌস। নিঃসন্দেহে ভোট প্রচারে বিদেশি তারকা এনে তৃণমূল কংগ্রেস নজির তৈরি করেছে। অতীতে এমন নজির রয়েছে বলে কেউ মনে করতে পারেন নি। ফেরদৌস বাংলাদেশের মতো কলকাতাতেও জনপ্রিয়। অভিনেত্রী রচনা ব্যানার্জি ও ঋতুপর্ণা সেনগুপ্তের সঙ্গে জুটি করে তিনি টালিগঞ্জে বেশ কয়েকটি চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন। রাজনৈতিক মহলের একাংশের মতে, রায়গঞ্জ কেন্দ্রের ৫০ শতাংশ সংখ্যালঘু ভোটের দিকে তাকিয়েই ফেরদৌসকে প্রচারে আনা হয়েছে। বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ তার প্রতিক্রিয়ায় জানিয়েছেন, ভারতের একটি নিবন্ধিত রাজনৈতিক দল কীভাবে বিদেশি নাগরিককে দিয়ে পশ্চিমবঙ্গে রোড শো করাচ্ছে? আমি এরকম আগে শুনিনি। আগামীকাল হয়তো আমাদের মমতা ব্যানার্জি পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকে তৃণমূলের হয়ে নির্বাচনী প্রচারণায় অংশ নেয়ার জন্য ডাকতে পারেন। আমরা এই ঘটনার নিন্দা জানাই। তিনি আরো বলেছেন, একজন বাংলাদেশি অভিনেতাকে ব্যবহার করে রাজ্যের ক্ষমতাসীন দল উত্তর দিনাজপুর জেলার ৫০ শতাংশ মুসলিম ভোট নিজেদের দিকে টানতে চাইছে। তৃণমূল আসলে আমাদের দেখে ভয় পেয়ে গেছে, তাই বিদেশ থেকে অভিনেতা নিয়ে আসছে। তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী অবশ্য এসব প্রশ্নকে আমলই দিচ্ছেন না। তৃণমূল কংগ্রেস সমর্থকদের মতে, আমাদের হৃদয়ে তো একটাই বাংলাদেশ। তাই ভাষা ও সংস্কৃতির মেলবন্ধনের পাশাপাশি রাজনীতিতেও যদি এমন মেলবন্ধন ঘটে তাতে ক্ষতি কী? রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের মতে, টালিগঞ্জে এখন তৃণমূল কংগ্রেস রাজ বিরাজ করছে। এই দলের হয়ে প্রচার করছেন অধিকাংশ অভিনেতা ও অভিনেত্রী। তাই ফেরদৌসের কাছে প্রস্তাব আসায় তিনি তা উপেক্ষা করতে পারেন নি। কারণ, টালিগঞ্জে টিকে থাকতে হলে শাসক দলের এই অনুরোধ টুকুকে মান্যতা দিতেই হতো।


অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর