× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ২৩ জুলাই ২০১৯, মঙ্গলবার

ক্রীড়াঙ্গনে বাজেট বাড়ানোর আশ্বাস প্রধানমন্ত্রীর

খেলা

স্পোর্টস রিপোর্টার | ১৬ এপ্রিল ২০১৯, মঙ্গলবার, ১০:০৯

ডিসেম্বরে সাউথ এশিয়ান গেমস (এসএ) আয়োজনের কথা বলেছে নেপাল। তবে এই গেমস আয়োজনে নেপালের উপর আস্থা রাখতে পারছে না বাংলাদেশ অলিম্পিক এসোসিয়েশন (বিওএ)। তিন দফা সময় পরিবর্তনেই আস্থা হারিয়েছে নেপাল। ডিসেম্বরে নেপাল যদি এসএ গেমস আয়োজনে ব্যর্থ হয়, সেক্ষেত্রে আগামী বছর শুরুর দিকে বাংলাদেশ গেমস আয়োজন করবে বিওএ। দেশের সবচেয়ে বড় ক্রীড়া প্রতিযোগিতা আয়োজনের সবুজ সংকেত দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
গতকাল প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে শেখ হাসিনার সঙ্গে দেখা করেন বাংলাদেশ অলিম্পিক এসোসিয়েশনের সভাপতি সেনাপ্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদ ও মহাসচিব সৈয়দ শাহেদ রেজা। এ সময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশ গেমস আয়োজনের বিষয়ে সবুজ সংকেত দিয়েছেন বিওএ’র শীর্ষ দুই কর্মকর্তাকে। বিষয়টি নিশ্চিত করেন বিওএ’র মহাসচিব সৈয়দ শাহেদ রেজা। এছাড়া তারা দেশের ক্রীড়াঙ্গনের উন্নয়নে আগামী বাজেটে পর্যাপ্ত বরাদ্দ দিতে প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করেন।
বৈঠক শেষে প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম সাংবাদিকদের এ কথা জানান। আন্তর্জাতিক প্রশিক্ষণ, বিদেশে দল পাঠানোসহ ক্রীড়াঙ্গনের সার্বিক বিষয় নিয়ে বৈঠকে আলোচনা হয়। পাশাপাশি ক্রীড়াঙ্গনের বিভিন্ন ডিসিপ্লিনে আগামী জাতীয় বাজেটে যাতে যথেষ্ট বরাদ্দ থাকে সে বিষয়ে তারা প্রধানমন্ত্রীর সুদৃষ্টি কামনা করেন। প্রেস সচিব বলেন, বৈঠকে তারা বাংলাদেশ দলের বিদেশ সফরসহ দেশের খেলাধুলা ও ক্রীড়ার সার্বিক উন্নয়ন নিয়ে আলোচনা করেন। প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ নিয়ে বিওএ মহাসচিব সৈয়দ শাহেদ রেজা বলেন, ‘এসএ গেমস না হলে আমরা বাংলাদেশ গেমস করতে চাই, সে বিষয়টি অবহিত করেছি প্রধানমন্ত্রীকে। তিনি আমাদের সম্মতি দিয়েছেন। এসএ গেমস না হলে কবে নাগাদ বাংলাদেশ গেমস হতে পারে? এমন প্রশ্নের জবাবে বিওএ মহাসচিব বলেন- ‘সেটা ঠিক করবো নেপাল যদি এসএ গেমস না করার সিদ্ধান্ত নেয় তারপর। আপাতত আমরা প্রধানমন্ত্রীর অনুমতি নিয়ে রাখলাম। খেলোয়াড়দের অনুশীলন নিয়ে তিনি বলেন ‘প্রধানমন্ত্রী আমাদের খেলোয়াড়দের অনুশীলনের বিষয়টি গুরুত্ব দিতে বলেছেন। তিনি বলেছেন, টাকার কোনো সমস্যা হবে না। আমরা যেন খেলোয়াড়দের বছরব্যাপী অনুশীলনে রাখি।’ দেশের খেলাধুলার উন্নয়নে আগামী বাজেটে পর্যাপ্ত বরাদ্দ দিতে প্রধানমন্ত্রীকে অনুরোধ করেছেন বিওএ’র সভাপতি ও মহাসচিব। এ সময় আন্তর্জাতিক ক্রীড়া আসরে অংশগ্রহণ, প্রশিক্ষণ ও বিদেশে দল পাঠানোসহ নানা বিষয় নিয়েও আলোচনা হয়েছে। বাংলাদেশ গেমস সর্বশেষ হয়েছিল ২০১৩ সালে। চার বছর অন্তর এ গেমস হওয়ার নিয়ম থাকলেও নানা সমস্যায় অনিয়মিত হয়ে পড়েছে দেশের সবচেয়ে বড় এ ক্রীড়া আসর।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর