× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ২৬ এপ্রিল ২০১৯, শুক্রবার

সাইফউদ্দিনের দুর্দান্ত বোলিংয়ে আবাহনীর জয়

খেলা

স্পোর্টস রিপোর্টার | ১৬ এপ্রিল ২০১৯, মঙ্গলবার, ১০:১০

একের পর এক জয়ে শিরোপা ধরে রাখার স্বপ্নে বিভোর ছিল আবাহনী লি.। তাদের পেছনেই ছুটছিল গেল আসরের রানার্স আপ লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জ। কিন্তু লীগ পর্বে হঠাৎ বদলে যায় পরিস্থিতি। শেষ পর্যন্ত ১১ ম্যাচে ২০ পয়েন্ট নিয়ে তালিকার শীর্ষ স্থান নিয়ে সুপার লীগে ওঠে রূপগঞ্জ। আর হেরে পথ হারিয়ে ১৬ পয়েন্ট নিয়ে শেষ ছয়ে আসে আবাহনী। তাই দলটির জন্য সুপার লীগে জয়ে ফেরা ছিল বড় চ্যালেঞ্জ। গতকাল দলকে বড় জয় উপহার দিয়েছেন তরুণ পেস অলরাউন্ডার মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন। মাত্র ৯ রান খরচ করে লিস্ট ‘এ’ ক্যারিয়ারে সেরা বোলিংয়ে তুলে নিয়েছেন পাঁচ উইকেট।
তাতেই মিরপুর শেরেবাংলা মাঠে আবাহনীর ছুড়ে দেয়া ২৫১ রান তাড়া করতে নেমে মাত্র ৮৬ রানে গুটিয়ে যায় প্রাইম দোলেশ্বর। ১৬৫ রানের জয় পায় আবাহনী। অন্যদিকে দাপট ধরে রেখেছে রূপগঞ্জ। গতকাল বিকেএসপিতে মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাবকে ৪৬ রানে হারায় দলটি। এটি তাদের টানা নবম জয়।
গতকাল টসে জিতে আবাহনীকে ব্যাটিংয়ে পাঠান দোলেশ্বরের অধিনায়ক ফরহাদ রেজা। মাত্র ১৩ রানের মধ্যে মোসাদ্দেক হোসেনের দলের ৩ উইকেট তুলে নিয়ে তার সিদ্ধান্ত যে সঠিক তা প্রমাণ করেন দলের বোলাররা। বল হাতে জহুরুল ইসলাম অমিকে ১ রানে ফিরিয়ে দলকে শুরুটা এনে দেন দোলেশ্বরের অধিনায়কই। এরপর মেহেদী হাসান মিরাজ ৫ ও সৌম্য সরকার ২ রানে শিকার হন পেসার আবু জায়েদ রাহীর। কিন্তু সেখান থেকে দলকে টেনে নেন ভারতীয় ব্যাটসম্যান ওয়াসিম জাফর ও তরুণ নাজমুল হোসেন শান্ত। চতুর্থ উইকেটে তাদের ১৪৬ রানের জুটি ভাঙে ৭১ রান করে জাফর আউট হলে। এরপর ৭০ রান করে ফিরে যান শান্তও। শেষ দিকে মোহাম্মদ মিঠুনের ৪১ ও মাশরাফি বিন মুর্তজার ২৪ রানে ২৫১ রান করতে সক্ষম হয় আবাহনী।
দোলেশ্বরের জয়ের লক্ষ্য খুব বড় ছিল না। কিন্তু এদিন উইকেটে কিছুটা ঘাস পেয়ে দুর্বার হয়ে ওঠেন সাইফউদ্দিন। প্রথম দুটি বল ছিল আউট সুইংগার। তৃতীয় বল হুট করে লাফিয়ে ওঠে ব্যাটসম্যান ইমরান উজ জামানের ব্যাটের কানা ছুঁয়ে বল উইকেটের পেছনে কিপারের গ্লাভস বন্দি হয়। এরপর তার বলেই উইকেটের পেছনে ক্যাচ দেন সৈকত আলি ১ রানে। স্লিপে সৌম্য সরকারকে ক্যাচ দেন ফরহাদ হোসেন। এরপর সাইফ হাসান ও মার্শাল আইয়ুবকে বোল্ড করে সাইফউদ্দিন পূর্ণ করেন পাঁচ উইকেট শিকার। এর আগে লিস্ট ‘এ’ ক্রিকেটে তার সর্বোচ্চ শিকার ছিল মাত্র ৩ উইকেট। গতকাল ৬ ওভার বল করে দুটি মেডেন দিয়ে মাত্র ৯ রান খরচ করে তুলে নেন ৫ উইকেট। এমন বোলিংয়ে মাত্র ৩৪ রানেই ৫ উইকেট হারিয়ে দোলেশ্বর পড়ে চরম বিপদে। এমন অবস্থায় ৬৫ বলে দলের পক্ষে ২৭ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলেন মাহমুদুল হাসান। মাত্র ২৯.৪ ওভারে দোলেশ্বর সবক’টি উইকেট হারায় দলের স্কোর বোর্ডে ১শ’ রান ওঠার আগেই।
মোহমেডানকে উড়িয়ে জয়রথে রূপগঞ্জ
লীগ পর্বের পর সুপার লীগেও মোহামেডানকে হারালো লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জ। গতকাল বিকেএসপি-৩ মাঠে টসে হেরে ব্যাট করতে নেমে ৪ উইকেট হারিয়ে ৩১৩ রান করে রূপগঞ্জ। অধিনায়ক নাঈম ইসলাম ১০৮ রানের অপরাজিত ইনিংসটি দলকে বড় সংগ্রহের পথ দেখায়। সেই সঙ্গে মুমিনুল হক সৌরভের ৭৮ রানের ইনিংসও দলের জন্য দারুণ অবদান। জবাব দিতে নেমে শুরুটা ভালই করেছিল মোহামেডান। জাতীয় দলের তারকা লিটন কুমার দাস ২৪ রানে আউট হলে ভাঙে ৪১ রানের জুটি। তবে আরেক ওপেনার ইরফান শুক্কুর আউট হওয়ার আগে ৭৩ রান করে দলকে এগিয়ে নেন। তাকে দারুণ সঙ্গ দেন রকিবুল হাসান ৫৮ রান করে। তবে এই দু’জনের বিদায়ের পর আর কেউ দলকে জয়ের পথ দেখাতে পারেনি। শুধুমাত্র স্পিন অলরাউন্ডার সোহাগ গাজীই খেলেছেন ২৯ রানের ইনিংস। শেষ পর্যন্ত ৪৬.২ ওভারে ২৬৭ রানেই গুটিয়ে যায় মোহামেডান।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
Alauddin Ahmed
১৬ এপ্রিল ২০১৯, মঙ্গলবার, ১০:০৯

মোহামেডান এর কর্মকর্তাদের প্রতি অনুরোধ যে ঢাকার মাটি তে ঐতিহ্যগত ভাবে যেসব দেশের প্লেয়ার রা সাফল্যের সাথে অতীতে খেলেছেন তাদের কেই অগ্রাধিকার দেয়া হোক. এরকম অতি জরুরি ম্যাচ এ দুই বিদেশী এ ব্যার্থ যা মেনে নেয়া যায়না এবং তাদের দুর্বল খেলোয়াড়ি ধক্ষতার এ প্রমান বহন করে.

অন্যান্য খবর