× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ২৩ জুলাই ২০১৯, মঙ্গলবার
বাংলাদেশ দল ঘোষণা আজ

চূড়ান্ত পরীক্ষা আয়ারল্যান্ডে!

খেলা

স্পোর্টস রিপোর্টার | ১৬ এপ্রিল ২০১৯, মঙ্গলবার, ১০:১০

ইংল্যান্ড বিশ্বকাপ আসর শুরু হতে দুই মাসও বাকি নেই। গেল কয়েক মাস ধরেই বাংলাদেশ দল নিয়ে চলছে জল্পনা-কল্পনা। অবশেষে দল ঘোষণা হচ্ছে আজ। গতকাল এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বিষয়টি নিশ্চিত করে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। তবে চূড়ান্ত দল নিয়ে নির্ভার নয় বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। কারণ দলে যাদের জায়গা পাওয়ার কথা তাদের অনেকেই নেই ফর্মে। সেই সঙ্গে আছে ইনজুরি নিয়ে চিন্তাও। বিশ্বকাপের আগেই আয়ারল্যান্ডে ত্রিদেশীয় সিরিজে মাঠে নামবে মাশরাফি বিন মুর্তজার দল।
বিশ্বকাপ স্কোয়াডের চূড়ান্ত পরীক্ষা হবে সেখানেই। তার মানে, সেখানে পারফরম্যান্স না করতে পারলে শেষ মুহূর্তে বিশ্বকাপ দল থেকে বাদ পড়ার শঙ্কা থাকবে। এ বিষয়ে গতকাল বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান বলেন, ‘আমার মনে হয় দল কাল বা পরশু দিয়ে দিবে। আমরা জানতে পেরেছি দল পরিবর্তন করার ২২শে মে পর্যন্ত সময় আছে। সামনে ট্রাই নেশন আছে, ওটা ১৭ই মে শেষ হয়ে যাবে। এখনো কয়েকটা সমস্যা হচ্ছে। আমরা যাদেরকে নিয়ে চিন্তাভাবনা করছি, তাদের ফর্ম ভালো না। এ ছাড়াও ইস্যুু হয়ে দাঁড়িয়েছে ইনজুরি সমস্যা। অনেক খেলোয়াড়কেই আমরা ধরেছিলাম বিশ্বকাপ স্কোয়াডে থাকবে। কিন্তু এখনো তারা পুরোপুরি সুস্থ না। এই জিনিসগুলো কন্সিডারেশনে নেয়ার জন্যই একটু সমস্যা হচ্ছিলো, ১৫ জনের স্কোয়াডটা এখনই ডিক্লেয়ার করা। এরপর যদি কারো ইনজুরি থাকে, কেউ যদি ভালো পারফর্ম করে, তার আসার একটা সুযোগ আছে। বা ট্রাই নেশনে ভালো খেলছে, তাহলে ওদেরকে আমরা নতুনভাবে সুযোগ দিয়ে দেখতে পারি।’ গতকাল জাতীয় দলের নির্বাচকদের সঙ্গে আলোচনার পরই এমন সব তথ্য সংবাদমাধ্যমকে জানান তিনি।
অন্যদিকে আয়ারল্যান্ডে ত্রিদেশীয় সিরিজের জন্যও আলাদা দল ঘোষণা করা হবে। সেই দলের সদস্য সংখ্যা হবে ১৭ জনের। এর কারণ বাড়তি দুই একজনকে পরীক্ষা করে নেয়া। এ বিষয়ে বিসিবি সভাপতি বলেন, ‘আমরা বিশ্বকাপের জন্য ১৫ জনের নাম দিচ্ছি। ট্রাইনেশনে অন্তত ১৭ জনের নাম যাচ্ছে। সো অ্যাডিশনাল দুজন তো থাকছেই। আমরা ওখান থেকেও ট্রাই করে দেখতে পারবো, সেই সুযোগ রয়েছে।’ দলে চমক হিসেবে বেশ কয়েকটি নাম শোনা যাচ্ছে। এর মধ্যে ব্যাটসম্যান ইয়াসির আলী রাব্বি ও স্পিনার নাঈম হাসানের নাম অন্যতম। নতুন কোন নাম আসবে কিনা তা নিয়ে নাজমুল হাসান নীরব। তিনি জানিয়েছেন দল ঘোষণা হলেই তা জানা যাবে। তিনি বলেন, ‘উনারা (নির্বাচক) কাল দিয়ে দিবে। উনাদের কাছ থেকেই জানা ভালো। অনেকগুলো নাম এসেছে। কিন্তু আজ নাম বলার কোনো মানে হয় না কারণ কালকেই আপনাদের অফিসিয়ালি জানিয়ে দিচ্ছে। আমি যতটুক জানি।’ এ ছাড়া দল গঠনে ঢাকা প্রিমিয়ার লীগের পারফরম্যান্সও বিবেচনা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন বিসিবি সভাপতি। তিনি বলেন, ‘প্রিমিয়ার লীগ আমাদের বিবেচনায় আছে। একেবারে যে নাই তা না।’
এ ছাড়াও বিশ্বকাপ দল গঠনে অভিজ্ঞতার সঙ্গে পারফরম্যান্স প্রধান্য পাবে বলে জানিয়েছেন বিসিবি সভাপতি। তার কথাতেই স্পষ্ট শুধু অভিজ্ঞ হলেই দলে নেয়া হবে তা নয়। থাকতে হবে ধারাবাহিক পারফরম্যান্সও। তিনি বলেন, ‘এখানে অভিজ্ঞতা একটা বড় রোল প্লে করেই, কিন্তু ফর্মও বড় বিষয়। পজিশনও ভেরি ইম্পরট্যান্ট। দেখা যায় এক পজিশনে অনেক অপশন আছে। আবার আরেক জায়গায় অনেক অপশন নেই। পেস বোলিংয়ে খুব আহামরি বক্তব্য নেই। রুবেল, মাশরাফি, মোস্তাফিজ, সাইফউদ্দিন যাচ্ছে, আরেকজন কে, তাসকিন। কিন্তু তাসকিন তো ইনজুরড। আমরা জানি না সে খেলতে পারবে কিনা, ফর্মে ফিরলে কেমন করবে এইসব তো জানি না। আপনি খুব বেশি নাম পাবেন না। এখন আমরা ১৫ জনের নাম দিয়ে দিচ্ছি। বাট আমরা অপেক্ষা করছি ট্রাই নেশনের। সেখানেই ফাইনাল সিদ্ধান্ত নিবো।’
ইংলিশ কন্ডিশনে বিশ্বকাপ, তাই দলে পেস বোলারদের নিয়েই বেশি চিন্তা। তবে স্পিনারও যে দারুণ প্রয়োজন। সাকিবের সঙ্গী হিসেবে অফ স্পিনার মেহেদী হাসান মিরাজ থাকবে। তবে এরপরও চিন্তা আছে আরো একজন বাড়তি স্পিনার দলে নেয়ার। এ নিয়ে বিসিবি সভাপতি বলেন, ‘স্পিনটাও আমরা দেখছি। আমাদের তো স্পিনটা আছেই। বাট স্টিল আমরা ট্রাই নেশনে আরো একজন স্পিনারকে দেখার চিন্তা করছি।’

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর