× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ১৮ জুন ২০১৯, মঙ্গলবার

লিবিয়ায় সরিয়ে নেয়া হলো ২৫০ বাংলাদেশিকে

প্রথম পাতা

স্টাফ রিপোর্টার | ১৯ এপ্রিল ২০১৯, শুক্রবার, ১০:০৪
ফাইল ছবি

লিবিয়ায় সরকার ও সেনাবাহিনীর মধ্যকার যুদ্ধে আটকে পড়া ২৫০ বাংলাদেশি শ্রমিককে নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নেয়া হয়েছে  
। রাজধানী ত্রিপোলিতে একটি নিরাপদ স্থানে ক্যাম্পে রাখা হয়েছে তাদেরকে। বাংলাদেশ দূতাবাসের ফার্স্ট সেক্রেটারি আশরাফুল ইসলাম মানবজমিনকে বলেন, গত ১৫ দিন ধরে আটকে পড়া বাংলাদেশিদের আমরা সরিয়ে নিয়েছি। তারা আটকে পড়ার পর আমাদের কাছে সহায়তা চেয়েছিলেন। তারা কোথায় আছেন তা জানতে জিপিএস ব্যবস্থার আশ্রয় নেয়া হয়। এ জন্য সহায়তা চাওয়া হয় লিবিয়ান রেডক্রসের এবং তাদের সহযোগিতায় এসব বাংলাদেশিকে উদ্ধার করা হয়।

ফিল্ড মার্শাল খলিফা হাফতারের নেতৃত্বাধীন লিবিয়ান ন্যাশনাল আর্মি দেশটির পশ্চিমাঞ্চল ও জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদ স্বীকৃত জাতীয় সরকারের অধীনে থাকা রাজধানীর ত্রিপোলি দখল করতে সামরিক আক্রমণ ‘অপারেশন ফ্লাড অব ডিগনিটি’ শুরু করেছে। এর ফলে উভয় পক্ষে যুদ্ধ চলছে।
৪ঠা এপ্রিল থেকে শুরু হয়েছে এই লড়াই।  

আশরাফুল ইসলাম জানান, এই যুদ্ধে কোনো বাংলাদেশি হতাহত হওয়ার তথ্য নেই। লিবিয়ায় এখন প্রায় ২০ হাজার বাংলাদেশি আছেন। তার মধ্যে প্রায় ৫০০০ অবস্থান করেন রাজধানী ত্রিপোলি ও এর আশপাশে। ২০১১ সালে লিবিয়ার নেতা মুয়াম্মার গাদ্দাফিকে ক্ষমতাচ্যুত করে হত্যা করার পর থেকেই সেখানে গৃহযুদ্ধ লেগে আছে। এ দেশটিতে বাংলাদেশ থেকে শ্রমিক নিয়োগ অনুমোদিত নয় তখন থেকেই। তবে পাচারকারীরা বিভিন্ন উপায় অবলম্বন করে বাংলাদেশিদের পাঠিয়ে থাকে লিবিয়ায়। অনেক সময় এক্ষেত্রে তাদেরকে লিবিয়া হয়ে ভূমধ্যসাগর পাড়ি দিয়ে ইউরোপে পাঠানোর প্রতিশ্রুতি দেয়া হয়।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর