× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ২৩ মে ২০১৯, বৃহস্পতিবার

রাতের আঁধারে পরকীয়া, অতঃপর...

অনলাইন

কামাল হোসেন, ভূঞাপুর (টাঙ্গাইল)প্রতিনিধি | ১৯ এপ্রিল ২০১৯, শুক্রবার, ৩:১৮
প্রতীকী ছবি

রাতের আঁধারে সাবেক প্রেমিকা দুই বাচ্চার জননী আমিনার সঙ্গে পরকীয়া করতে গিয়ে স্থানীয় জনতার কাছে হাতেনাতে ধরা পড়েছে আলজেরিয়া প্রবাসী আলতাফ হোসেন ও তার সহযোগী আরিফ। বৃহস্পতিবার রাতে ঘটনাটি ঘটেছে টাঙ্গাইল জেলার ভূঞাপুর উপজেলার গোবিন্দাসী ইউনিয়নের রুহুলী গ্রামে। এ ঘটনায় অলোয়া ইউপি চেয়ারম্যান রহিজ উদ্দিন আকন্দ,  গাবসারা ইউপি চেয়ারম্যান মনিরুজ্জামান মনির ও ইউপি সদস্য শহীদুল ইসলাসহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গের সমন্বয়ে শুক্রবার সকালে এক সালিশ বসে। সালিশে পরকীয়া প্রেমিক আলতাফের ৮০ হাজার ও সহযোগী আরিফের ৬০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।
 
জানা যায়, উপজেলার গাবসারা ইউনিয়নের পুংলীপাড়া গ্রামের মজিদের ছেলে আলতাফ হোসেনের সাথে প্রায় ১০ বছর আগে একই গ্রামের আমিনার প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। চলতে থাকে তাদের মন দেয়া নেয়া। এরই মধ্যে গোবিন্দাদাসী ইউনিয়নের রুহুলী গ্রামের দুলালের সাথে বিয়ে হয় আমিনার। আলতাফও বিয়ে করে ৭ বছর আগে আলজেরিয়া পাড়ি জমায়। তারপরও থেমে থাকেনি তাদের প্রেম ভালোবাসা। মোবাইলে নিয়মিত যোগাযোগ ও আলতাফ মাঝে মধ্যে দেশে এসে সাক্ষাত ও অনৈতিক কাজ চালিয়ে যেত। কয়েক দিন আগে সে আলজেরিয়া থেকে দেশে আসে। আমিনার স্বামী বাড়িতে না থাকায় বৃহস্পতিবার মধ্য রাতে আলতাফ তার এক সহযোগী আরিফকে নিয়ে তার ঘরে প্রবেশ করে। এ সময় স্থানীয় লোকজন টের পেয়ে তাদেরকে আটক করে।
 
ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে অলোয়া ইউপি চেয়ারম্যান রহিজ উদ্দিন আকন্দ বলেন, উভয়ের সংসার টিকিয়ে রাখার জন্য সালিশের মাধ্যমে বিষয়টির সমাধান করা হয়। এতে প্রেমিক আলতাফের ৮০ হাজার ও আরিফের ৬০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
অনিচ্ছুক
১৯ এপ্রিল ২০১৯, শুক্রবার, ৬:২৫

বিচারের রায় শুধু পুরুষদের সাজা কেন? মহিলা কি ধোয়া তুলশি পাতা?

Nasir ahned
১৯ এপ্রিল ২০১৯, শুক্রবার, ৫:৫৫

সব সময় অন্যের দোষ আর নিজেকে মহাপুরুষ ভাবা ঠিকনা।৷ যেহেতু অনেক দিনের সম্পর্ক টেলিফোনে কথা বলা কিংবা দেশেআসলে দেখা সাক্ষাত করা খারাপ কিছু না। বাসায় তাদের কি অবস্থায় পাওয়া গেছে সেটার উপর নির্ভর করে তাদের অপরা। যদি দরজা ভিতর থেকে বন্ধ থাকে তাহলে ব্যাপারটা সন্দেহজনক। এবং শাস্তিজগ্য। আর যদি দরজা খোলা রেখে সাধারন দেখা সাক্ষাতের উদ্দেশ্যে আসে তাহলে ব্যপারটা স্বাভাবিক ভাবে নিতে হবে।সংসার টিকিয়ে রাখতে স্বামী স্ত্রী পরসস্প রের প্রতি শ্রদ্ধা থাকতে হবে।

M0nirul islam
১৯ এপ্রিল ২০১৯, শুক্রবার, ৫:০৯

৮০ হাজার আরেক রাতে মহিলা থেকে উসুল করে নিবে, বোকার সংসারও এভাবে টিকবেনা

ওবাইদুল
১৯ এপ্রিল ২০১৯, শুক্রবার, ৫:০৯

মহিলার স্বামীর উচিৎ এই মহিলাকে ত্যাগ করা । দেশ এখন অনৈতিকতার অন্ধকারে হাবুডুবু খাচ্ছে ।

জাফর আহমেদ
১৯ এপ্রিল ২০১৯, শুক্রবার, ২:৩৪

এটা কোন ধরনের বিচার। পুরুষদের অর্থ দন্ড করা হয়েছে।আর নারীর কিছু হলো না। এখন টাকা গুলো কে পাবে মহিলার স্বামী না চেয়ারম্যান?

Nixon pandit
১৯ এপ্রিল ২০১৯, শুক্রবার, ২:২৯

বাবু মশাই , সংসার কি এভাবে টেকানো যায় ! আপনি কি মনে করেন, জরিমানা করানোর পরে ঐ প্রেমিক- প্রেমিকা একে অপরকে ভুলে যাবে । আপনি হলে পারতেন কি ভুলে যেতে ?

অন্যান্য খবর