× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ১৮ জুন ২০১৯, মঙ্গলবার

কংগ্রেস থেকে পদত্যাগ মুখপাত্র প্রিয়াংকার, যোগ দিলেন শিবসেনায়

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ২০ এপ্রিল ২০১৯, শনিবার, ১১:৪৮

কংগ্রেসের মুখ লাল করে দিয়ে পদত্যাগ করেছেন দলটির জাতীয় মুখপাত্র ও মিডিয়া সেলের আহ্বায়ক প্রিয়াংকা চতুর্বেদী। তিনি যোগ দিয়েছেন উগ্র হিন্দুত্ববাদী দল শিবসেনায়। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বেশ আলোচিত প্রিয়াংকা চতুর্বেদী। তিনি শুক্রবার কংগ্রেস থেকে পদত্যাগ করেন। এর কয়েক ঘন্টার মধ্যে যোগ দেন শিব সেনায়। এ খবর দিয়েছে অনলাইন টাইমস অব ইন্ডিয়া।
গত বছর সেপ্টেম্বরে মথুরায় প্রিয়াংকা চতুর্বেদীর সঙ্গে অশোভন আচরণ করেছিলেন দলীয় বেশ কিছু নেতাকর্মী। এ অভিযোগে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছিল তাদের।
সম্প্রতি খবর ছড়িয়ে পড়ে যে, সেইসব নেতাকর্মীকে আবার পুনর্বাসন করছে কংগ্রেস। এ নিয়ে কংগ্রেসের কড়া সমালোচনা হয়। ঠিক এমনই এক সময়ে পদত্যাগ করেছেন প্রিয়াংকা চতুর্বেদী। অনেক বছর ধরে তিনি কংগ্রেসের হয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমকে মাতিয়ে রেখেছিলেন। যারা এমন কাজ করেছেন দলের পক্ষে তিনি তাদের প্রথম সারির। এ নিয়ে বিজেপির সঙ্গে তিক্ত লড়াই করতে হয়েছে তাকে। ফলে যখন লোকসভার মতো গুরুত্বপূর্ণ নির্বাচন চলছে তখন তার পদত্যাগ কংগ্রেসের জন্য একটি বড় আঘাত।

দলীয় সভাপতি রাহুল গান্ধীর কাছে লেখা এক চিঠিতে প্রিয়াংকা চতুর্বেদী বলেছেন, গত কয়েক সপ্তাহে সুনির্দিষ্ট কিছু বিষয় আমাকে এটা আশ্বস্ত করেছে  যে, এই সংগঠনে আমার সার্ভিসের আর কোনো মূল্য নেই। আমি সড়কের শেষ প্রান্তে পৌঁছে গিয়েছি। একই সঙ্গে এ সংগঠনে যেটুকু করেছি সেটা আমার নিজের আত্মসম্মান ও মর্যাদার জন্য।

কেন এমন সিদ্ধান্ত নিলেন, শিবসেনায় কেন যোগ দিলেন, যে দলটিকে মাঝে মধ্যেই বলা হয় সাম্প্রদায়িক। এমন প্রশ্নের জবাবে প্রিয়াংকা চতুর্বেদী বলেছেন, একজন মুম্বইকার হিসেবে শৈশব থেকেই এ দলটির সঙ্গে সম্পর্ক ছিল। মুম্বই-মহারাষ্ট্রের সঙ্গে যুক্ত আছেন এমন প্রতিটি মানুষেরই শিবসেনার প্রতি একটা নমনীয় অনুভূতি আছে। আমি যেহেতু মথুরার তাই মুম্বই হলো আমার কর্মভূমি। তবে লোকসভা নির্বাচনে শিবসেনার টিকেট পাওয়ার জন্য দল পরিবর্তন করার অভিযোগ তিনি প্রত্যাখ্যান করেছেন। এক্ষেত্রে তিনি হয়রানির প্রসঙ্গ টেনে এনেছেন। তিনি বলেছেন, নারীদের নিরাপত্তা, মর্যাদা, ক্ষমতায়নের বিষয়টি কংগ্রেসে থাকা সত্ত্বেও আমাকে যেটা বেদনাহত করেছে তা হলো, একই নীতি দলের ভিতরে অনেক সদস্যের ক্ষেত্রে প্রয়োগ করা হয় না। দলীয় কর্মসূচি পালন করার সময় আমার বিরুদ্ধে দলের নির্দিষ্ট কিছু সদস্য অশোভন আচরণ করেন এবং গুরুত্বর ঘটনা ঘটান, তাদেরকে এবার নির্বাচনে ব্যবহার করা হচ্ছে।

তার বিদায় গুরুত্বর কিছু নয় বলে মনে করেন কংগ্রেস মুখপাত্র রণদীপ সূর্যেওয়ালা। বলেছেন, কেউ ক্যারিয়ারের জন্য যাবেন এটা তো অস্বাভাবিক কিছু নয়।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর