× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ২৩ মে ২০১৯, বৃহস্পতিবার

হামলার নিন্দা জানিয়ে ভোটারদের আশ্বস্ত করলেন মোদি

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ২২ এপ্রিল ২০১৯, সোমবার, ১২:৩১

শ্রীলঙ্কা হামলার নিন্দা জানিয়ে ভারতে ভোটারদের আশ্বস্ত করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। তিনি ওই হামলার নিন্দা জানিয়ে বলেছেন, শুধু তিনিই ভারতের জন্য হুমকি এমন ‘সন্ত্রাসীদের’ পরাজিত করতে পারেন। তাই ভোটারদের উচিত তাকে ভোট দেয়া। এ খবর দিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।
নরেন্দ্র মোদি রাজস্থানে এক নির্বাচনী প্রচারণায় বক্তব্য রাখছিলেন। তিনি এ সময় ভোটারদের উদ্দেশ্যে বলেন, সন্ত্রাসকে নিশ্চিহ্ন করে দেয়া উচিত কিনা? কে এটা করতে পারে? আপনারা কি মোদিকে বাদ দিয়ে অন্য কোনো নাম চিন্তা করতে পারেন? অন্য কেউ কি এই কাজ করতে পারে?

ভারতের এবারের লোকসভা নির্বাচনে নরেন্দ্র মোদি ও তার ক্ষমতাসীন ভারতীয় জনতা পার্টি (বিজেপি) জাতীয় নিরাপত্তা রেকর্ডকে সামনে তুলে ধরেছে। এর ওপর ভিত্তি করে তারা নির্বাচনী বৈতরণী পাড় হতে চায়। বিশেষ করে, পাকিস্তানের বিরুদ্ধে মোদি যে পেশীশক্তি দেখিয়েছেন তাতে বিজেপির জনপ্রিয়তা অনেকটা বেড়েছে। যেখানে বিরোধীরা কর্মসংস্থান ও নি¤œ আয়ের মতো দুর্বল ইস্যুগুলোকে প্রাধান্য দিয়েছে।

সর্বশেষ বক্তব্যে সন্ত্রাসীদের পরাজিত করা বলতে মোদি কি তবে পাকিস্তানের দিকে ইঙ্গিত করেছেন! এ বছরের শুরুতে দেশ দুটির মধ্যে উত্তেজনা চরমে পৌঁছে। পুলওয়ামা হামলার পর পাকিস্তানে যুদ্ধবিমান পাঠান মোদি। ১৯৭১ সালে বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের পর এমনটা প্রথম ঘটালো ভারত।

শ্রীলঙ্কা হামলায় কমপক্ষে তিনজনভারতীয় নিহত হয়েছেন। তবে হামলার দায় কেউ স্বীকার করে নি। এ বিষয়ে মোদি বলেন, আমাদের প্রতিবেশী শ্রীলঙ্কায় সন্ত্রাসীরা রক্তাক্ত খেলা খেলেছে। তারা হত্যা করেছে নিরাপরাধ মানুষকে। রোববার রাজস্থানে আরেকটি নির্বাচনী র‌্যালিতে মোদি  শ্রীলঙ্কা হামলার কথা উল্লেখ করেন। তিনি বলেন, জঙ্গিদের কারণে ভারতও অব্যাহতভাবে ভুগছে। পাকিস্তানের হুমকিতে ভয় পাওয়ার নীতি শেষ করেছে ভারত। তিনি আরো বলেন, আমাদের হাতে আছে পারমাণবিক অস্ত্রের বোতাম। জবাব দিতে তা ব্যবহার করা হবে। তার এ বক্তব্যের পর জনতার মধ্য থেকে উল্লাস ছড়িয়ে পড়ে।

উল্লেখ্য পাকিস্তানের কাছে আছে ১৪০ থেকে ১৫০টি পারমাণবিক অস্ত্র। অন্যদিকে ভারতের আছে ১৩০ থেকে ১৪০টি এমন অস্ত্র। দু’দেশের হাতেই আছে ব্যাপক বিধ্বংসী পারমাণবিক ক্ষেপণাস্ত্র।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
রিপন
২২ এপ্রিল ২০১৯, সোমবার, ১:৪৭

শ্রীলঙ্কায় হামলার ব্যাপারে নিন্দা জানালেও এই চৌকিদার মাত্র ক'দিন আগে ক্রাইস্ট চার্চ হামলার ব্যাপারে নিন্দা জানানোর বেলায় একেবারেই চুপ মেরে ছিল, কিচ্ছুটি বলে নি। চৌকিদারটি কি ডিউটি ফাঁকি দিয়ে তখন ঘুমিয়ে ছিল? ডিউটি ফাঁকি দিয়ে নাক ডেকে ঘুমায় এমন চৌকিদারের হাতে পাহারার দায়িত্ব দিয়ে পাঁড় আহাম্মকও নিরাপদ বোধ করে না। পাঁড় উন্মাদ হলে ভিন্ন কথা।

অন্যান্য খবর