× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ১৯ জুন ২০১৯, বুধবার

বাংলাদেশেও সন্ত্রাসী হামলার চেষ্টা চলছে: প্রধানমন্ত্রী

অনলাইন

অনলাইন ডেস্ক | ২৫ এপ্রিল ২০১৯, বৃহস্পতিবার, ১:০৩

শ্রীলঙ্কার সন্ত্রাসী হামলার প্রসঙ্গ তুলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, বাংলাদেশেও এমন ঘটনা ঘটানোর অনেক চেষ্টা চলছে। তবে আমাদের গোয়েন্দা সংস্থা এবং আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী সংস্থা যথেষ্ট সর্তকতা অবলম্বন করে যাচ্ছে। এ ব্যাপারে দেশবাসীকে সজাগ থাকতেও আহ্বান জানান তিনি। আজ রাজশাহী-ঢাকা-রাজশাহী রুটে নতুন বিরতিহীন ‘বনলতা এক্সপ্রেস’ ট্রেনের উদ্বোধনের সময় তিনি এসব কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, এই ধরনের সন্ত্রাস জঙ্গিবাদের সঙ্গে যারা সম্পৃক্ত থাকবে, কে কোথায় এই ধরনের সন্ত্রাসী-জঙ্গিবাদী কর্মকাণ্ডে লিপ্ত সেটা শুধু আমাদের গোয়েন্দা সংস্থা না, দেশবাসীকেও সতর্ক থাকতে হবে, খুঁজে বের করতে হবে এবং সঙ্গে সঙ্গে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী সংস্থাকে জানাতে হবে। জুমার খুতবায় জঙ্গিদের বিরুদ্ধে কথা বলতে সারাদেশের মসজিদের ইমামদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী বলেন, নিরীহ মানুষ হত্যা ইসলাম সমর্থন করে না। কাউকে হত্যা করার মাধ্যমে কারো বিচারের অধিকার ইসলাম কাউকে  দেয়নি। বিচার করবেন রাব্বুল আল আমিন। জুমার খুতবায় আপনারা জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে প্রচার করবেন।
আমরা শান্তি চাই। দেশে শান্তি থাকলে অবশ্যই উন্নয়ন হবে।

গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সেরে মাধ্যমে ট্রেনটির উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। অনুষ্ঠানের শুরুতে রেলের ওপর সংক্ষিপ্ত তথ্য উপস্থাপন করেন রেল মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. মোফাজ্জল হোসেন। রাজশাহী প্রান্তে বক্তব্য দেন রেলমন্ত্রী নুরুল ইসলাম সুজন, রাজশাহীর মেয়র এইচ এম খায়রুজ্জামান লিটন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, জঙ্গিবাদ, শুধু বাংলাদেশে নয়, সারাবিশ্বে তারা তাদের জঘন্য কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। কয়েকদিন আগে নিউজিল্যান্ডে মসজিদে প্রবেশ করে তারা মুসলমানদের হত্যা করেছে। শ্রীলঙ্কায় বোমা হামলায় কত মানুষের প্রাণ গেল। নিষ্পাপ শিশুরাও তাদের হাত থেকে রক্ষা পাচ্ছে না। আমাদের শিশু জায়ান চৌধুরীও রক্ষা পায়নি জঙ্গিদের হাত থেকে। জায়ানের জন্য আগামী শুক্রবার প্রত্যেক মসজিদে দোয়া করার আহবানও জানান প্রধানমন্ত্রী।

শেখ হাসিনা বলেন, রাজশাহীর উন্নয়নে আমরা হাত দিয়েছি। পুরো উত্তরবঙ্গেই আমরা উন্নয়ন করতে চাই। ইতিমধ্যে আমরা উত্তরবঙ্গের মঙ্গা কাটিয়েছি। এখন আমরা যে ১০০টি শিল্পাঞ্চল করছি সেগুলোর মধ্যে বেশকিছু থাকবে উত্তরাঞ্চলে।

তিনি বলেন, নতুন ট্রেন উদ্বোধন হওয়ায় রাজশাহীর মানুষ এখন ৫ ঘণ্টায় ঢাকা-রাজশাহী যাতায়াত করতে পারবেন। সামনে ঈদ এবং জ্যৈষ্ঠ মাস, পাকা আম। এ দু’টি মিলে এই  ট্রেন উদ্বোধন কার্যকর হবে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর