× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ২৫ মে ২০১৯, শনিবার
নুসরাতকে পুড়িয়ে হত্যা

মাদরাসা ফটক পাহারায় থাকা শাকিল গ্রেপ্তার

অনলাইন

ফেনী প্রতিনিধি | ২৫ এপ্রিল ২০১৯, বৃহস্পতিবার, ৮:৫৩

ফেনীর সোনাগাজীর মাদরাসা ছাত্রী নুসরাত জাহান রাফি হত্যার ঘটনার দিন মাদরাসার গেইট পাহারায় থাকা পলাতক আসামী মহিউদ্দিন শাকিলকে গ্রেপ্তার করেছে পিবিআই। বৃহস্পতিবার বিকেলে ফেনী শহরের উকিল পাড়া এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা পিবিআই’র পরিদর্শক মো. শাহ আলম জানান, নুসরাত হত্যা মামলায় রিমান্ডে থাকা আসামী ও ১৬৪ ধারায় জবানবন্দিকৃত কয়েক আসামীর তথ্যেও ভিত্তিতে ঘটনার দিন মাদরাসার গেইট পাহারায় থাকা পলাতক আসামী মহিউদ্দিন শাকিলকে গ্রেপ্তার করেছে পিবিআই। সে সোনাগাজী উপজেলার উত্তর চরচান্দিয়া গ্রামের রুহুল আমিনের ছেলে। ঘটনার পর থেকে সে পলাতক ছিলো। তাকে গ্রেপ্তারের জন্য পিবিআই বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়েছে।

গত ৬ই এপ্রিল সকালে মাদরাসা ছাত্রী নুসরাত আলিমের আরবি পরীক্ষা প্রথম পত্র দিতে মাদরাসায় গেলে দুর্বৃত্তরা তাকে ডেকে কৌশলে মাদরাসার ছাদে নিয়ে যায়। পরে তার গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়। এঘটনায় দগ্ধ নুসরাত ঢাকা মেডিকেল কলেজের বার্ণ ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ৫দিন পর গত ১০ই এপ্রিল রাতে মারা যায়। পরদিন ১১ই এপ্রিল বিকেলে তার জানাযা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়। এঘটনায় মাদরাসার অধ্যক্ষ সিরাজ উদ দৌলাকে প্রধান আসামী করে ৮ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত আরো ৪/৫ জনকে আসামী করে নুসরাতে ভাই মাহমুদুল হাসান নোমান ৮ এপ্রিল সোনাগাজী মডেল থানায় মামলা দায়ের করে। আলোচিত এ মামলা এ পর্যন্ত এজহারভুক্ত আট আসামীসহ ২১ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ ও পিবিআই। এদের মধ্যে হত্যায় সরাসরি জড়িত ৫ জনসহ ৮ জন আসামী আদালতে স্বীকারোক্তিমুলক জবানবন্দি দিয়েছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর