× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ২৭ জুন ২০১৯, বৃহস্পতিবার
নির্বাচনী প্রচারে বিজেপি সভাপতির হুমকি

পশ্চিমবঙ্গ থেকে অনুপ্রবেশকারীদের খুঁজে খুঁজে তাড়ানো হবে

ভারত

কলকাতা প্রতিনিধি | ৭ মে ২০১৯, মঙ্গলবার, ৭:৩৭

পশ্চিমবঙ্গ থেকে অনুপ্রবেশকারীদের খুঁজে খুঁজে তাড়ানো হবে বলে হুমকি দিয়েছেন বিজেপির সভাপতি অমিত শাহ। মঙ্গলবার পশ্চিমবঙ্গের তিনটি জনসভা থেকে অমিত শাহ  বলেছেন, অন্য দেশ থেকে যাঁরা শরনার্থী হয়ে ভারতে এসেছেন, তাঁদের নাগরিকত্ব দেওয়া হবে। আর শরণার্থীদের নাগরিকত্ব দেওয়ার পর অনুপ্রবেশকারীদের খুঁজে খুঁজে তাড়ানো হবে। এর পরেই তিনি জনতার কাছে প্রশ্ন রেখেছেন, পশ্চিমবঙ্গ থেকে অনুপ্রবেশকারীদের তাড়ানো উচিত কি উচিত নয়? রাজ্যে ষষ্ঠ দফার ভোট প্রচারে ফের রাজ্যে এসে অমিত শাহ তৃণমূলের বিরুদ্ধে তোপ দেগেছেন। রাজীব গান্ধী ইস্যুতে নিশানা করেছেন কংগ্রেসকেও। মঙ্গলবার পশ্চিম মেদিনীপুরের ঘাটালে একটি জনসভায় ‘জয় শ্রীরাম’ স্লোগানে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কেন এত রেগে যাচ্ছেন, তা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন অমিত শাহ। তিনি বলেছেন, এই রাজ্যে জয় শ্রীরাম বললে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় গাড়ি থামিয়ে জেলে পোরার হুমকি দেন। পাশাপাশি, তৃণমূলের বিরুদ্ধে সিন্ডিকেট, তোলাবাজির অভিযোগেও সরব হন তিনি।
মোদীর জয় নিয়ে এতটাই আশাবাদী যে অমিত শাহ বলেছেন, সারা দেশে একটাই শব্দ উঠেছে, পূর্ব-পশ্চিম-উত্তর-দক্ষিণে একটাই শব্দ মোদী-মোদী।  ২৩ তারিখের পর মোদীজিই দেশের প্রধানমন্ত্রী হবেন। অমিত শাহর দাবি, সারা দেশে উন্নয়নের ইস্যুতে ভোটের লড়াই হচ্ছে। তবে বিজেপি সভাপতির মতে, সারা দেশে এই উন্নয়নের ইস্যুতে ভোট হয়, কিন্তু পশ্চিমবঙ্গে গণতন্ত্র রক্ষার লড়তে হচ্ছে। তৃণমূল সরকারের বিরুদ্ধে বিজেপির অভিযোগ, এখানে বোমা-গুলি নিয়ে দুষ্কৃতিরা ঘুরে বেড়ায়। কিন্তু মমতা দিদি কোনও ব্যবস্থা নেন না । অমিত শাহ বলেছেন, কেন্দ্রীয় সরকার কয়েক লক্ষ কোটি রুপি দিয়েছে রাজ্যকে। কিন্তু সিন্ডিকেটের লোকেরা সব অর্থ খেয়ে নিয়েছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
saad
১৩ মে ২০১৯, সোমবার, ৭:১২

Mr omith shah every dog bark like you but mad dog bite

রিপন
৮ মে ২০১৯, বুধবার, ১২:৩৫

ভারত থেকে ওই যে রোজ অনুপ্রবেশ করছে খাবার আর কাজের সন্ধানে, কই আমরা তো টুঁ শব্দটিও করি না, ত্রিপুরা দিয়ে আসা ওসব পড়শিকে নীরবে জুগিয়ে যাই অন্ন, কাজ। কিন্তু গেরুয়া শিবির অমন ইতর মন-মানসিকতার পরিচয় দিচ্ছে কেন? এমন চিল্লাচিল্লি হাউকাউ জুড়ে দিয়েছে, যেন গেরুয়াদের সাড়ে সব্বোনাশ হয়ে যায় যদি খাবার কাজের সন্ধানে কিছু বুভুক্ষু মানুষ আসে সীমান্ত দিয়ে ভারতে। বিজেপি হলো গে' ইতরদের দল।

অন্যান্য খবর