× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার মন ভালো করা খবর
ঢাকা, ২০ অক্টোবর ২০১৯, রবিবার

গণধর্ষণ মামলায় ৬ জনের যাবজ্জীবন

অনলাইন

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি | ১৪ মে ২০১৯, মঙ্গলবার, ৪:২৪

সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরে গৃহবধুকে গণধর্ষণের দায়ে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদন্ড দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে প্রত্যেককে এক লাখ টাকা করে জরিমানা অনাদায়ে আরও এক বছরের বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করা হয়।

মঙ্গলবার দুপুরে সিরাজগঞ্জ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-১ এর বিচারক ফজলে খোদা মো. নাজির এ রায় প্রদান করেন।

দন্ডপ্রাপ্তরা হলেন, উপজেলার দরগার চর গ্রামের তোতা, আলহাজ্ব, আলমগীর, বুলবুল, জুয়েল রানা ও রতন।
সিরাজগঞ্জ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আদালতের স্পেশাল পিপি অ্যাডভোকেট আব্দুল হামিদ লাভলু এ তথ্য জানিয়েছেন।

মামলার বরাত দিয়ে আব্দুল হামিদ বলেন, ২০১৬ সালের ২৬ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যায় শাহজাদপুর উপজেলার দরগার চর গ্রামের ফরিদ সরকারের স্ত্রী নাজমা খাতুন (২৫) বাবা-মার সাথে একই  এলাকার মাসুম বিল্লাহ’র বাড়িতে ওরশ শুনতে যান। ওরশ শেষে রাতে বাড়ি ফেরার সময় ভুল করে ঘরের চাবি বাবার বাড়িতে রেখে এসেছিলেন নাজমা। পরে স্বামী ফরিদকে সাথে নিয়ে বাবার বাড়িতে চাবি আনতে যাচ্ছিলেন তারা। পথিমধ্যে একই এলাকার তোতা, আলহাজ্ব, আলমগীর, বুলবুল, জুয়েল রানা ও রতন মিলে দুজনকে আটক করে।
একপর্যায়ে তারা স্বামী ফরিদকে মারপিট করে তাড়িয়ে দিয়ে স্ত্রী নাজমাকে জোরপূর্বক গণধর্ষণ করে। এ অবস্থায় গ্রামের লোকজন এগিয়ে এসে রাতেই তাদের উদ্ধার করে এবং ধর্ষক তোতা ও আলহাজ্বকে আটক করে। এ ঘটনায় নাজমা খাতুন নিজেই বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেন। পরবর্তীতে গ্রামবাসীর সহায়তায় বাকী আসামীদেরও গ্রেপ্তার করে পুলিশ। পরে আসামীরা আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। তদন্ত শেষে সকলের বিরুদ্ধে চার্জসিট দেয় পুলিশ। সাক্ষ্য প্রমান শেষে বিচারক উল্লেখিত রায় প্রদান করেন।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
Nasir Ahmed khan
১৫ মে ২০১৯, বুধবার, ৬:১৮

Bicharokder eto doya keno? Aponar ma bon rape hole ki korten? Jonosomokkhe fashi den.

Kazi
১৪ মে ২০১৯, মঙ্গলবার, ১০:৩৬

This lifelong jail is not enough to stop rape. Rapist are not afraid of such punishment. So a punishment should be invented by law which rapists really feel severe, that is making them Khuja

ইমরান
১৪ মে ২০১৯, মঙ্গলবার, ৬:৩১

এদেশে অর্থ পাচারের মামলায় যদি যাবজ্জীবন কারাবাস হয়,তাহলে দর্ষনের বিচার কেন যাবজ্জীব? মৃর্ত্যদন্ড হওয়ার দরকার। হায়রে বিচার ব্যবস্থা!!!!!

মোকাররম আলী
১৪ মে ২০১৯, মঙ্গলবার, ৪:৪৬

মৃত্যুদণ্ড নয় কেন? কোন্ সহানুভূতিতে? কোন্ ভালোবাসায়? কবে উচিত বিচার পাবে এই জাতি?

অন্যান্য খবর