× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ২৭ জুন ২০১৯, বৃহস্পতিবার

ফল পাকাতে কেমিক্যাল নয় ৭ দিনের মধ্যে মনিটরিং টিম গঠনের নির্দেশ হাইকোর্টের

দেশ বিদেশ

স্টাফ রিপোর্টার | ২১ মে ২০১৯, মঙ্গলবার, ৯:৩৯

 ঢাকাসহ সারা দেশের ফলের বাজার ও আড়তে আমসহ কোনো ফল পাকাতে ও সংরক্ষণকালে কেউ যাতে কোনো কেমিক্যাল ব্যবহার করতে না পারে তা তদারকির জন্য মনিটরিং টিম গঠনের নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। পুলিশ মহাপরিদর্শক (আইজি), র‌্যাব মহাপরিচালক, বিএসটিআই চেয়ারম্যান ও সংশ্লিষ্ট পরিচালককে ৭ দিনের মধ্যে এই মনিটরিং টিম গঠন করতে বলা হয়েছে। এ বিষয়ে আগামী ১৮ জুনের মধ্যে অগ্রগতি প্রতিবেদন দাখিল করতে সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দেয়া হয়েছে। গতকাল বিচারপতি এফআরএম নাজমুল আহসান ও বিচারপতি কে এম কামরুল কাদেরের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এই আদেশ দেন। মানবাধিকার ও পরিবেশবাদী সংগঠন হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড পিস ফর বাংলাদেশের (এইচআরপিবি) করা এক আবেদনে এ আদেশ দেন আদালত। আদালতে আবেদনকারী পক্ষে আইনজীবী ছিলেন অ্যাডভোকেট মনজিল মোরসেদ। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল আবদুল্লাহ আল মাহমুদ বাশার।
আদালতে মনজিল মোরসেদ একটি আবেদন দিয়ে বলেন, এখন আমসহ বিভিন্ন মৌসুমী ফল বাজারে আসছে।
বিশেষ করে আমের মৌসুম শুরু হয়েছে। হয়তো কেউ আম বাগানে কেমিক্যাল ব্যবহার করলো না। কিন্তু আড়তে এনে কেমিক্যাল ব্যবহার করতে পারে। তাই এটা ঠেকাতে আড়ত ও বাজার পর্যবেক্ষণের জন্য কমিটি থাকা দরকার। এজন্য আদালতের আবারো আদেশ দেয়ার প্রয়োজন রয়েছে বলে মনে করি। আইনজীবী মনজিল মোরসেদ জানান, গত ৯ই এপ্রিল আদালত দুটি আদেশ দিয়েছিলেন। রাজশাহীর জেলা প্রশাসককে নির্দেশ দিয়েছিলেন আমবাগানগুলোতে ম্যাজিস্ট্রেটসহ পুলিশ নিয়োগ দিতে, যাতে আম পাকানোর জন্য কোনো কেমিক্যাল ব্যবহার করতে না পারে। আরেকটা নির্দেশ দিয়েছিলেন চারজন বিবাদীকে যে, ঢাকাসহ সারা দেশের ফলের বাজার ও আড়ৎগুলোতে তদারকি টিম গঠন করতে। যাতে কেমিক্যাল ব্যবহার করে ফল রক্ষণাবেক্ষণ বা ফল পাকানো না হয়। এ বিষয়ে ৩০ দিনের মধ্যে প্রতিবেদন দেয়ার নির্দেশ দিয়েছিলেন আদালত। কিন্তু তারা কোনো প্রতিবেদন না দেয়ায় গতকাল আদালতের দৃষ্টিতে আনা হয় যে, এটি যদি না করা হয় তাহলে দেখা গেল রাজশাহীর আম বাগানে কেমিক্যাল ব্যবহার করলো না, কিন্তু ঢাকা বা ফলের বাজার-আড়তে এনে যদি কেমিক্যাল ব্যবহার করা হয় তাহলে সুফল পাওয়া যাবে না।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর