× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ১৭ জুন ২০১৯, সোমবার
আলাপন

‘গানে সেই আবেদনটা খুঁজে পাওয়া যায় না’

বিনোদন

ফয়সাল রাব্বিকীন | ২১ মে ২০১৯, মঙ্গলবার, ৯:৩১

জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী সৈয়দ শহীদ। ‘এক জীবন’ গানটি গেয়ে শ্রোতাদের কাছে সমাদৃত হন তিনি। এটি বেশ জনপ্রিয় একটি গানে পরিণত হয়। এর পর ধারাাবাহিকভাবে অনেক গানে কন্ঠ দেন শহীদ। গাওয়ার পাশাপাশি সুরকার হিসেবেও সফলতা পান। একক ক্যারিয়ারের বাইরে দূরবীন ব্যান্ডের দলনেতা শহীদ। এ ব্যান্ডটির মাধ্যমেও বেশ কিছু জনপ্রিয় গান তিনি উপহার  দিয়েছেন। তবে বর্তমানে ব্যবসায়িক ব্যস্ততার কারণে গান কম করছেন তিনি।
অল্প গান করলেও মানের সঙ্গে আপোস করতে রাজী নন এ শিল্পী। তাই বেছে বেছে গান করছেন। সব মিলিয়ে কেমন আছেন? শহীদ উত্তরে বলেন, ভালো আছি। তবে অনেক ব্যস্ততার মধ্যে দিয়ে সময় কাটছে। সামনে যেহেতু ঈদ তাই ব্যবসার পাশাপাশি গানে সময় দিচ্ছি। ঈদে নতুন কি আসছে?  শহীদ বলেন, ঈদের জন্য বেশ কয়েকটি গানে কন্ঠ দিয়েছি। একেকটি গান এক এক রকম। ভিন্নতার ছোঁয়া খুঁজে পাবেন শ্রোতারা।

আমি নিজেও গানগুলো উপভোগ করে গেয়েছি। আমার বিশ্বাস পছন্দ হবে সবার। গান তুলনামূলক কম করছেন। এর কারণ কি? শহীদ বলেন, আমি কিন্তু পেশাগতভাবে গান করি না। শখের বসেই করি। ভালোবাসা থেকে করি। তবে শ্রোতারা আমার গান গ্রহণ করেছেন। আমি তাদের প্রতি অনেক কৃতজ্ঞ। আমি নিজেকে বড় শিল্পী মনে করি না। গান গেয়ে যা পেয়েছি সেটা পাওয়ারও কতটুকু যোগ্য তা আমি জানি না। দূরবিন ব্যান্ডের কাজ কেমন চলছে? শহীদ আত্মবিশ্বাসের সুরে বলেন, ভালো চলছে। আপনারা জানেন কদিন আগে কাজী শুভ ফের দূরবীনে যোগ দিয়েছে। আমরা আবার একসঙ্গে কাজ করছি। শো করছি। আমরা আমাদের প্র্যাকটিস কিংবা শোয়ের সময়টা খুব উপভোগ করি। আমি শুভকে ছোটভাইয়ের মতো স্নেহ করি। কাজী শুভও আমাকে ভালোবাসে, শ্রদ্ধা করে। আমরা একসঙ্গেই দূরবীন ব্যান্ড নিয়ে পথ চলতে চাই। আপনাদের নতুন গান কবে নাগাদ আসবে? শহীদ বলেন, দূরবীনের নতুন গানের কাজ চলছে। আমাদের অনেক গান শ্রোতারা সাদরে গ্রহণ করেছেন। দূরবীনের কাছে শ্রোতাদের প্রত্যাশাও বেড়েছে।

তাই তাদের প্রত্যাশা পূরণে সময় নিয়ে ভালো কিছু গান করতে চাই। চেষ্টা থাকবে এ বছরই দূরবীনের গান শ্রোতাদের হাতে তুলে দেওয়ার। এখনকার গানের অবস্থা কেমন মনে হচ্ছে আপনার কাছে? শহীদ বলেন, অনেক মেধাবী  শিল্পী, গীতিকার, সুরকার ও সংগীত পরিচালক রয়েছেন। কিন্তু সমস্যা হয়ে গেছে আগের মতো টিমওয়ার্ক নেই। একসঙ্গে বসে গান করার রীতিটা খুব মিস করি। এখন সময়টাই এমন। কারো তেমন সময় নেই। তাই গানে সেই আবেদনটা খুঁজে পাওয়া যায় না। গানের মান এখন সেরকম ভালো হচ্ছে না। এর ফলে দীঘদিন দিন ধরে টিকেও থাকছে না। আমি, মনে করি এ বিষয়টির ওপর জোর দেয়া উচিত। চলতি সময়ে ইউটিউবে প্রকাশিত গানের ভিউ নিয়ে প্রতিযোগিতা চলছে। এ বিষয়ে আপনার মন্তব্য কি? শহীদ বলেন, সময়ের সঙ্গে সঙ্গে বিষয়টি চলে এসেছে। তবে আমি ব্যাক্তিগতভাবে মনে করি ভিউ এর প্রতিযোগিতা বেশি দিন আর থাকবে না। আর গানের ভিউ কখনই জনপ্রিয়তার মাপকাঠি হতে পারে না। কারণ অনেক ভিউ হওয়া গানও অনেক সময় মানুষ মনে রাখছে না। কিন্তু কম ভিউয়ের গানও অনেক সময় মানুষের মুখে মুখে ফেরে। আসলে একটি ভালো অডিওর প্রচারে ভিডিওটা হতে পারে। কিন্তু অডিওটা আগে শক্তিশালী হতে হবে। আর এর জন্য ভালো কথা, সুর, সংগীত ও গায়কির দিকে জোর দিতে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর