× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার মন ভালো করা খবর
ঢাকা, ১৮ অক্টোবর ২০১৯, শুক্রবার

ভারতে স্ট্রং রুমে ২৪ ঘণ্টার নজরদারি

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ২২ মে ২০১৯, বুধবার, ২:৪৫

ভোটগ্রহণ শেষে স্ট্রং রুমে কড়া নিরাপত্তা। তবুও কারচুপির আশংকায় রাতভর এর বাইরে পাহারা বসিয়েছে ভারতের বিরোধী দলগুলো। একটি দুটি নয় অনেক রাজ্যে এ ঘটনা ঘটেছে। বিভিন্ন রাজ্যে এমন সব স্ট্রং রুমে ২৪ ঘণ্টা সরাসরি নজরদারি করা হচ্ছে অথবা সিসিটিভি ক্যামেরার মাধ্যমে চোখ আটকে আছে বিরোধীদের। স্ট্রং রুমগুলোতে ভোটশেষে ভোটিং মেশিন রাখা হয়েছে। ইভিএমে ভোট জালিয়াতি করার অভিযোগের প্রেক্ষিতে এমন ব্যবস্থা নিয়েছে বিরোধীরা। ভোটিং মেশিনে ফল জালিয়াতি করার চেষ্টার অভিযোগ তুলে উত্তর প্রদেশে বিক্ষোভ হয়েছে। এ খবর দিয়েছে অনলাইন এনডিটিভি।

মধ্য প্রদেশের কেন্দ্রীয় জেলখানায় ভোটিং মেশিন রাখা হয়েছে। অর্থাৎ জেলখানার ভিতরে স্থাপন করা হয়েছে স্ট্রং রুম। মঙ্গলবার রাতে ওই রুম পরিদর্শন করেছেন কংগ্রেসের সিনিয়র নেতা ও রাজ্যের ভুপাল থেকে প্রার্থী দিগ্বিজয় সিং ও তার স্ত্রী।
উত্তর প্রদেশের মিরাট ও রায়বেরেলিতে ইভিএম স্টোর রুমের বাইরে অবস্থান করছেন কংগ্রেস কর্মীরা। এটা কংগ্রেসের শক্ত ঘাঁটি। এখান থেকে পুনরায় নির্বাচন করছেন সোনিয়া গান্ধী।
মঙ্গলবার নির্বাচন কমিশনের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন বিরোধী ২২ দলের নেতারা। বহু ভিডিও প্রকাশ হওয়ার পর তারা পাঁচটি রাজ্যে ইভিএম নিয়ে আপত্তি জানিয়েছেন কমিশনকে। তারা প্রথমে ভিভিপ্যাট মেশিনকে বিবেচনায় নেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন।
ভোটিং মেশিনে যাতে কোনো নড়চড় না হয় তা নিশ্চিত করতে সোমবার থেকে স্ট্রং রুমের বাইরে অবস্থান করছেন চণ্ডিগড় কংগ্রেসের নেতাকর্মীরা। ২৪ ঘণ্টার এই মনিটরিংয়ে রাজনৈতিক দলগুলোর প্রতিনিধিরা যোগ দিতে পারেন।
মঙ্গলবার মহারাষ্ট্র নির্বাচন কমিশনের প্রধানের কাছে মুম্বই কংগ্রেসের প্রধান মিলিন্দ দেওড়া চিঠি লিখেছেন। তাতে স্টোরেজ রুমের চারপাশে নজরদারি বাড়াতে বলা হয়েছে। যদি সম্ভব হয় তাহলে স্ট্রং রুমের সিসিটিভি ক্যামেরার পাসওয়ার্ড প্রার্থীদের সঙ্গে শেয়ার করতে বলেছেন, যাতে তারা পরিস্থিতি মনিটরিং করতে পারেন। মুম্বই দক্ষিণ থেকে কংগ্রেসের প্রার্থী মিলিন্দ দেওড়া।  
মুম্বই উত্তর পশ্চিমের কংগ্রেস প্রার্থী সঞ্জয় নিরুপম গোরেগাঁ কেন্দ্র পরিদর্শন করেছেন। সেখানকার নিরাপত্তা ব্যবস্থা পরখ করেছেন তিনি। পরে তিনি বলেন, মঙ্গলবার দিবাগত রাত ও বুধবার দিবাগত রাত অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। সব দলের নেতাকর্মী ও লোকজনকে অবশ্যই নজরদারি করতে হবে যে, বিজেপির নেতাকর্মীরা কোনো ভুল পদক্ষেপ নেয় কিনা। থিরুভানান্দপুরাম থেকে পুনরায় নির্বাচন করছেন কংগ্রেসের এমপি ও সাবেক মন্ত্রী শশী ঠারুর। বুধবার তার স্টোর রুম পরীক্ষা করার কথা। আসামের কামরূপে ভোটিং মেশিন রাখা হয়েছে যে স্টোর রুমে, সেখানে যাওয়ার রাস্তায় নজরদারি বসিয়েছে আসাম কংগ্রেস নেতারা।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
Kazi
২৩ মে ২০১৯, বৃহস্পতিবার, ৩:১৩

দলীয় পাহারা শুরু হয়েছে শেষ দিনের ভোটৈর পর। কিন্তু যা করার এই দুদিনের আগের মেশিন গুলিতেই হয়ে গেছে। কেউ পাত্তাই পায় নি।

অন্যান্য খবর