× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ১৭ জুন ২০১৯, সোমবার

দেশি-বিদেশি নেতাদের অভিনন্দনে সিক্ত মোদি

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ২৪ মে ২০১৯, শুক্রবার, ১০:০৬

নির্বাচনের ফল ঘোষণার আগেই জয় নিশ্চিত ছিল ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির। প্রাথমিক ফলের হিসেবে বিশাল ব্যবধানে জয় নিশ্চিত করে ফের ইতিহাস সৃষ্টি করেছেন তিনি ও তার দল ভারতীয় জনতা পার্টি (বিজেপি)। ১৯৮৬ সালের পর ২০১৪ সালে প্রথম একক দল হিসেবে সরকার গঠনের জন্য পর্যাপ্ত আসনের বেশি আসনে জয়ী হয়েছিল বিজেপি। আর এবারও একক দল হিসেবেই সরকার গঠনে প্রয়োজনীয় ২৭২ আসনের সীমা অনেক আগেই অতিক্রম করেছে দলটি। তবে আসন সংখ্যা বেড়েছে গতবারের চেয়েও। নিজের রেকর্ড নিজেই ভেঙেছেন এই ঝানু রাজনীতিবিদ। গতকাল গভীর রাতে এ রিপোর্ট লেখার সময় পর্যন্ত বিজেপি নেতৃত্বাধীন জোট ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক এলায়েন্স (এনডিএ) এগিয়ে ছিল কমপক্ষে সাড়ে তিনশ’ আসনে। অন্যদিকে রাহুল গান্ধী নেতৃত্বাধীন কংগ্রেস ও ইউনাইটেড প্রগ্রেসিভ এলায়েন্স (ইউপিএ) এগিয়ে ছিল যথাক্রমে ৫৩ ও ৯২ আসনে।
এ ছাড়া, অন্যান্য দলগুলো এগিয়ে ছিল ১০০ আসনে। প্রাথমিক ফলাফলে জয় নিশ্চিত হওয়ার পর মোদি তার টুইটারে লিখেছেন, টুগেদার উই গ্রো, টুগেদার উই প্রসপার, টুগেদার উই উইল বিল্ড অ্যা স্ট্রং অ্যান্ড ইনক্লুসিভ ইন্ডিয়া। হ্যাশট্যাগে লিখেছেন বিজয় ভারত।
স্থানীয় গণমাধ্যমে বলা হয়েছে নয়াদিল্লিতে নিজ দল থেকে গত সন্ধ্যায় মোদিকে ‘গ্রান্ড ওয়েলকাম’ দেয়ার কথা বিজেপি দলীয় প্রধান কার্যালয়ে। এ জন্য আমন্ত্রণ জানানো হয় প্রায় ২০,০০০ নেতাকর্মীকে। লোকসভা নির্বাচনে অভাবনীয় সাফল্য দেখানোর পর তাকে এমন অভিনন্দন জানানোর পরিকল্পনা নেয় বিজেপি। পাশাপাশি দলীয় বিজয়ী সব প্রার্থীকে ২৫শে মে’র মধ্যে দিল্লি পৌঁছাতে বলা হয়েছে।
এদিকে, লোকসভা নির্বাচনে জয়ী হওয়ায় মোদিকে অভিনন্দন জানিয়েছেন সাবেক উপ-প্রধানমন্ত্রী এল কে আদভানী। তিনি বলেছেন, নির্বাচনে বিজেপিকে এই অপ্রত্যাশিত বিজয় এনে দেয়ার জন্য নরেন্দ্র মোদিকে আন্তরিক অভিনন্দন। দেশের প্রতিটি ভোটারের কাছে বিজেপির বার্তা পৌঁছে দিতে দলের সভাপতি হিসেবে অমিত শাহ ও সব উৎসর্গিত নেতাকর্মীরা সীমাহীন চেষ্টা চালিয়েছেন। বহুত্ববাদী ভারতের মতো এত বড় একটি দেশে এটা এক বিস্ময়কর অনুভূতি যে, নির্বাচনী প্রক্রিয়া এত সফলতার সঙ্গে সম্পন্ন হয়েছে। ভোটার ও সব নির্বাচনী এজেন্সির প্রতি আমার অভিনন্দন। উল্লেখ্য, ২০০২ থেকে ২০০৪ সাল পর্যন্ত সাবেক প্রধানমন্ত্রী অটল বিহারী বাজপেয়ীর অধীনে ভারতের ৭ম উপ-প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেন আদভানী। ভারতীয় জনতা পার্টি বা বিজেপির অন্যতম সহ-প্রতিষ্ঠাতা ও সিনিয়র নেতা তিনি। এসবের পাশাপাশি নিজ দলের নেতাকর্মীদের অভিনন্দন তো রয়েছেই। ফল ঘোষণার আগেই মোদিকে বিজয়ী হওয়ায় অভিনন্দন জানিয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ এক টুইটে লিখেছেন, বিজেপিকে এত বিশাল একটি বিজয় এনে দেয়ার জন্য প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি আপনাকে অনেক অভিনন্দন।দেশবাসীর প্রতি জানাই আমার কৃতজ্ঞতা। একইভাবে ফলাফল ঘোষণার আগেই নিরঙ্কুশ জয়ের জন্য মোদিকে অভিনন্দন জানান বহু বিশ্বনেতা। এর মধ্যে রয়েছেন শ্রীলঙ্কা, চীন, রাশিয়া, ইসরাইল, নেপাল, মালদ্বীপ, জাপান ও আফগানিস্তানের রাষ্ট্রপ্রধানরা। এর মধ্যে সবার আগে তাকে অভিনন্দন জানান শ্রীলঙ্কার প্রধানমন্ত্রী রণিল বিক্রমাসিংহে। টুইটে তিনি লিখেছেন, নরেন্দ্র মোদিকে মহান এই বিজয়ে অভিনন্দন। আপনার সঙ্গে ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করার অপেক্ষায় আমরা।
বিক্রমাসিংহের পর তাকে টুইটারে অভিনন্দন জানান ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু। তিনি দু’টি টুইট লিখেছেন। একটি ইংরেজিতে ও অন্যটি হিন্দিতে। টুইটে তিনি বলেন, নির্বাচনে আপনার অসাধারণ জয়ের জন্য আপনাকে আন্তরিক শুভেচ্ছা, আমার বন্ধু নরেন্দ্র মোদি। এই জয় আপনার নেতৃত্ব ও আপনি যেভাবে বিশ্বের সবচেয়ে বড় গণতন্ত্রকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন তার প্রমাণ। একই সঙ্গে আমরা আমাদের মধ্যকার বন্ধুত্ব এবং ভারত ও ইসরাইলের মধ্যকার সমপর্ককে নতুন উচ্চতায় নিয়ে যাবো। এদিকে, অনেককে চমকে দিয়ে প্রথমদিকেই অভিনন্দন জানান চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং। ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতিতে বলা হয়, চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং বৃহস্পতিবার মোদির নেতৃত্বে ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক এলায়েন্সের (এনডিএ) নির্বাচনী বিজয়ে অভিনন্দন জানিয়ে একটি চিঠি পাঠিয়েছেন। ওই চিঠিতে শি জিনপিং দুই দেশের মধ্যকার সম্পর্কের গুরুত্বের কথা তুলে ধরেছেন। পাশাপাশি তিনি ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে কাজ করার আগ্রহ প্রকাশ করেছেন। এর মধ্য দিয়ে দুই দেশের মধ্যকার ‘ক্লোজার ডেভেলপমেন্ট পার্টনারশিপ’কে নতুন উচ্চতায় নিয়ে যাওয়ার আশা প্রকাশ করেন। দুই দেশের মধ্যকার কয়েক বছরের সম্পর্কের বিষয়েও তিনি সন্তোষ প্রকাশ করেছেন। এ ছাড়া, ফোনালাপের মাধ্যমে অভিনন্দন জানিয়েছেন জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে ও ভুটানের রাজা জিগমে খেসার নামগিয়েল ওয়াংচুক। ভারতের ঘনিষ্ঠ মিত্র রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনও এক টেলিগ্রামে মোদির প্রতি তার শুভেচ্ছা ব্যক্ত করেছেন। তাতে তিনি লিখেছেন, পার্লামেন্ট নির্বাচনে বিজেপির বিশাল জয়ে নরেন্দ্র মোদিকে অভিনন্দন। পুতিন অভিনন্দন জানানোর পরপরই আফগানিস্তানের প্রেসিডেন্ট আশরাফ গনি এক মাইক্রো-ব্লগে লিখেছেন, শক্ত জয় নিশ্চিত করায় ভারতের প্রধানমন্ত্রীকে অভিনন্দন। অন্যদের মধ্যে নেপালের প্রধানমন্ত্রী কেপি ওলি শর্মা, মালদ্বীপের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম মোহাম্মদ সলিহ নির্বাচনে জয়লাভে মোদিকে অভিনন্দন জানিয়েছেন।


অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর