× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ২৭ জুন ২০১৯, বৃহস্পতিবার

সেমিতে পর্তুগাল দলে রোনালদো

খেলা

স্পোর্টস ডেস্ক | ২৫ মে ২০১৯, শনিবার, ৯:৩৩

ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো ও জোয়াও ফেলিক্সকে নিয়ে নেশন্স লীগের জন্য দল ঘোষণা করলো পর্তুগাল। আগামী ৫ই জুন নেশন্স লীগের সেমিফাইনালে সুইজারল্যান্ডের মুখোমুখি হবে পর্তুগিজরা। ইউরোপের নতুন ফুটবল আসর নেশন্স লীগে পর্তুগালের গ্রুপ পর্বের কোনো ম্যাচে খেলতে দেখা যায়নি রোনালদোকে। ২০১৮ বিশ্বকাপের পর আট মাস জাতীয় দলের বাইরে ছিলেন বিশ্বসেরা এ স্ট্রাইকার। পতুর্গাল কোচ ফার্নান্দো সান্তোস বলেন, ‘ফাইনালে যেতে হলে রোনালদোকে দলে প্রয়োজন। আমাদের লক্ষ্য ফাইনালে ওঠা। সেরা খেলোয়াড়দের নিয়ে দল গঠন করেছি। ২৩ দলের মধ্যে ফেলিক্সও রয়েছে।’ আগামী ৬ই জুন দ্বিতীয় সেমিফাইনালে ইংল্যান্ডের মুখোমুখি হবে নেদারল্যান্ডস।
নেশন্স লীগের ফাইনাল খেলা হবে পর্তুগালেই। আগামী ৯ই জুন পোর্তোর স্টেডিও দো দ্রাগাওতে নেশন্স লীগের ফাইনাল খেলা হবে।
সবশেষ গত মার্চে জাতীয় দলের হয়ে ইউরো ২০২০ বাছাই পর্বে খেলেছিলেন রোনালদো। রাশিয়া বিশ্বকাপের পর জাতীয় দলের জার্সি গায়ে ওটা ছিল রোনালদোর প্রথম ম্যাচ। বাছাই পর্বে সার্বিয়ার বিপক্ষে ম্যাচে ইনজুরিতে পড়েন রোনালদো। চলতি মৌসুমে সিরি আ লীগের বর্ষসেরা খেলোয়াড়ের পুরস্কার পেয়েছেন এই পর্তুগিজ সুপার স্টার। আসরে ২১ গোল পেয়েছেন রোনালদো। দলে জায়গা করে নিয়েছেন বেনফিকার জোয়াও ফেলিক্সও। সুইজারল্যান্ডের বিপক্ষের ম্যাচেই জাতীয় দলে অভিষেক হতে পারে ১৯ বছর বয়সী এই ফুটবলারের। চলতি মৌসুমে বেনফিকার হয়ে দুর্দান্ত খেলেছেন ফেলিক্স। মৌসুমে সরাসরি ৩১ গোলে অবদান তার (২০ গোল, ১১ অ্যাসিস্ট)। সবশেষ উয়েফা ইউরোপা লীগের কোয়ার্টার ফাইনালে জার্মান দল আইনট্রাখট ফ্রাঙ্কফুর্টের বিপক্ষে বেনফিকার ৪-২ গোলে জয়ে হ্যাটট্রিক করেন ফেলিক্স। এরই মধ্যে বিশ্বের নামিদামি ক্লাবগুলো এই পর্তুগিজ মিডফিল্ডারকে দলে টানতে তোড়জোড় করছে। বেনফিকায় ফেলিক্সের রিলিজ ক্লজ ১২০ মিলিয়ন ইউরো।
পর্তুগাল দল
গোলরক্ষক: বেতো  (গোজটেপ), হোসে সা (অলিম্পিয়াকোস), রুই প্যাট্রিসিও (উলভস)। ডিফেন্ডার: রাফায়েল গুয়েরেইরো (বরুশিয়া ডর্টমুন্ড), মারিও রুই (নাপোলি), রুবেন দিয়েস  (বেনফিকা), হোসে ফন্টে (লিল), পেপে (পোর্তো), নেলসন সেমেদো (বার্সেলোনা), জোয়াও কানসেলো (জুভেন্টাস)। মিডফিল্ডার: ব্রুনো ফের্নান্দ্রেস (স্পোর্টিং), দানিলো পেরেইরা  (পোর্তো), উইলাম কারভালো (রিয়াল বেটিস), পিজ্জি (বেনফিকা), রুবেন নাভাস (উলভস), জোয়াও মুটিনহো (উলভস)। ফরোয়ার্ড: বের্নাদো সিলভা (ম্যানচেস্টার সিটি), ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো (জুভেন্টাস), দিওগো জোটা (উলভস), ডায়েগো সোসা (ব্রাগা), জোয়াও ফেলিক্স (বেনফিকা), গোনচালো গায়েদেস (ভ্যালেন্সিয়া), রাফা সিলভা (বেনফিকা)।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর