× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ১৭ জুন ২০১৯, সোমবার

কথিত ‘বাংলাদেশী’ শিবসেনা নেতা আমিরুদ্দিন গ্রেপ্তার আসামে

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ৮ জুন ২০১৯, শনিবার, ১২:১৭

আসামে বহুল বিতর্কিত শিবসেনা নেতা আমিরুদ্দিন তালুকদার। তাকে ‘বাংলাদেশী’ বলে অভিহিত করা হয় সেখানে। এ নিয়ে তুমুল বিতর্ক আসাম তো বটেই, ভারতের অন্যান্য স্থানেও এ নিয়ে বিতর্ক আছে। বলা হয়েছে তিনি বাংলাদেশী নাগরিক। তার কথিত ‘বাংলাদেশী নাগরিকত্ব’-এর অভিযোগের প্রশংসা করার জন্য প্রশাসন ও পুলিশের সামনে ওই অভিযোগের পক্ষে থাকা এক ব্যক্তির ওপর চড়াও হয়েছিলেন আমিরুদ্দিন। এ সময় ওই ব্যক্তিকে বেদম মারপিঠ করেন আমিরদ্দিন। এতে তাকে সহায়তা করেন আরেকজন। ফলে আসাম পুলিশ তাকে ও ওই ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছে।
বর্তমানে তাদেরকে রাখা হয়েছে আসাম পুলিশের হেফাজতে। এ খবর দিয়েছে অনলাইন ডিএনএ।

এতে বলা হয়, আসাম পুলিশের মতে, আমিরুদ্দিন তালুকদার ও তার সহযোগীর বিরুদ্ধে গত বছর ৩রা নভেম্বর ভারতীয় দ-বিধির বিভিন্ন ধারায় মামলা হয়েছে। ওই মামলার পর মালাদ থেকে পালিয়ে যান আমিরুদ্দিন। তিনি পুলিশের চোখ এড়িয়ে চলতে থাকেন।
এ বছর মার্চে তার খোঁজে মুম্বই যান এসপি অঙ্কুর জৈন ও ডিএসপি দীপ্তি মালি। একই সঙ্গে মালাদ এলাকার মালবানি পুলিশ তাদের বিষয়ে অনুসন্ধান করতে থাকে। আমিরুদ্দিনের বিরুদ্ধে বাংলাদেশী নাগরিকত্বের যে অভিযোগ আছে তার অনুসন্ধান করতে থাকে পুলিশ। এ তদন্তের একটি আপডেট রিপোর্ট মালবানি পুলিশ লিখিতভাবে পাঠায় আসাম পুলিশের কাছে। ওই তদন্তে আমিরুদ্দিনের বাড়ি ও অন্যন্যা স্থান তল্লাশির কথা ও জব্দ করা জিনিসপত্রের কথা জানানো হয়।

ওদিকে শিবসেনা থেকে আমিরুদ্দিনের সদস্যপদ প্রত্যাহার করে তাকে বহিষ্কার করা হয়েছে দল থেকে। এ কথা নিশ্চিত করেছেন শিবসেনার সিনিয়র নেতা সুধাকর সারভে। তিনি বলেছেন, এ অভিযোগ উচ্চতর কর্তৃপক্ষের কাছে পাঠানো হয়েছে। তার ভাষায়, আমরা তদন্ত করে দেখছি তার বিরুদ্ধে কতগুলো অভিযোগ আছে। এরপরই শিগগিরই তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর